ত্রাণ আত্মসাৎ

এক ইউপি চেয়ারম্যান ও দুই সদস্য বরখাস্ত

  যুগান্তর ডেস্ক ১৩ মে ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ত্রাণের চাল আত্মসাতের অভিযোগে এক ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান ও দুই সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে স্থানীয় সরকার বিভাগ। মঙ্গলবার স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে এসংক্রান্ত পৃথক প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পর এ নিয়ে মোট ৫৫ জনপ্রতিনিধিকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এদের মধ্যে ২০ জন ইউপি চেয়ারম্যান, ৩৩ ইউপি সদস্য, একজন জেলা পরিষদ সদস্য ও একজন পৌরসভার কাউন্সিলর। এদিকে, চাল আত্মসাতের অভিযোগে পটুয়াখালীর দশমিনায় এক ডিলারের লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে।

সাময়িকভাবে বরখাস্ত জনপ্রতিনিধিরা হলেন- হবিগঞ্জ জেলার শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার নুরপুর ইউপির চেয়ারম্যান মুখলিছ মিয়া, রাজশাহী জেলার চারঘাট উপজেলার নিমপাড়া ইউপির ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মো. আকবর আলী এবং ভোলা জেলার চরফ্যাশন উপজেলার আহাম্মদপুর ইউপির ১ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মো. কামাল হোসেন।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে ত্রাণ ও ভিজিডির চাল আত্মসাত, খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল আত্মসাত এবং মৎস্য ভিজিএফের চাল আত্মসাতের অভিযোগ তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে। এছাড়া সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসক তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে সুপারিশ করেছেন। তাদের এ অপরাধমূলক কার্যক্রমের কারণে তাদের দিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের ক্ষমতা প্রয়োগে প্রশাসনিক দৃষ্টিকোণে সমীচীন নয় বলে সরকার মনে করছে। এজন্য স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন-২০০৯ এর ৩৪(১) ধারা অনুযায়ী তাদের স্বীয় পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

একই সময় সাময়িকভাবে বরখাস্ত চেয়ারম্যান ও সদস্যদের পৃথক পৃথক কারণ দর্শানো নোটিশে কেন তাদেরকে চূড়ান্তভাবে পদ থেকে অপসারণ করা হবে না তার জবাব পাওয়ার ১০ দিনের মধ্যে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্থানীয় সরকার বিভাগে পাঠাতে বলা হয়েছে।

যুগান্তর প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

হবিগঞ্জ : হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার নুরপুর ইউপি চেয়ারম্যান মুখলিছ মিয়ার হেফাজত থেকে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১ হাজার ৭০০ কেজি চাল ৮ মে রাতে জব্দ করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। আরও ৩০০ কেজি চালের হদিস পাওয়া যায়নি। এ কারণে তাকে বরখাস্ত করা হয়।

দশমিনা (পটুয়াখালী) : ৩০ এপ্রিল দশমিনা সদর ইউনিয়নের কাটাখালী ও গোলখালী এলাকার ডিলার আবদুল হাই সিকদারের বিরুদ্ধে ওই এলাকার ১৯ জন উপকারভোগী তাদের ৩ মাসের সরকারি চাল আত্মসাত করেছেন বলে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ করেন। তদন্তে সত্যতা পাওয়ায় তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

ভালুকায় ইউপি সদস্যের মেয়ের নামে বিজিডি কার্ড : ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি জানান, ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার ৮নং ডাকাতিয়া ইউনিয়নের সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্য লাইলী বেগমের মেয়ে সৌদি প্রবাসী কল্পনা আক্তারের নামে বিজিডির কার্ড ইস্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সূত্রে জানা যায়, ১, ২ ও ৩ ওয়ার্ডের সংরক্ষিত ইউপি সদস্য লাইলী বেগমের মেয়ে কল্পনা আক্তার এক বছর পূর্বে সৌদি আরব চলে যান। ২নং ওয়ার্ড থেকে প্রায় ২ বছর পূর্বে লাইলী তার মেয়ের নামে একটি বিজিডি কার্ড বরাদ্দ দেন। কার্ড ইস্যুর পর থেকে ওই কার্ডের চাল উত্তোলন করা হচ্ছে। লাইলী বেগম তার ভাইয়ের মেয়েকে দিয়ে বরাদ্দকৃত চাল উত্তোলন করাচ্ছেন। মঙ্গলবার বিষয়টি জানাজানি হলে ইউপি চেয়ারম্যান ওই কার্ডটি বাতিল করে দেন।

ইউপি সদস্য লাইলী বেগম কার্ড বরাদ্দের কথা স্বীকার করে বলেন, ওই কার্ডে কোনো চাল আমি উত্তোলন করিনি।

 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত