খুলনায় বেতন পাচ্ছেন না আউটসোর্সিং কর্মচারীরা

  খুলনা ব্যুরো ১৩ মে ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

খুলনায় করোনাভাইরাস শনাক্তকরণে ভরসা করতে হচ্ছে সুবিধাবঞ্চিত আউটসোর্সিং কর্মচারীদের ওপর। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছেন তারা। এরপরও মাসের পর মাস বেতন পাচ্ছেন না। করোনা পরীক্ষার জন্য একাধিক কমিটি গঠন করা হলেও কমিটির সদস্যদের দেখা মেলে না। অনুসন্ধানে জানা গেছে, খুলনা জেনারেল হাসপাতাল থেকে করোনা সন্দেহের রোগীদের নমুনা নিয়ে খুলনা মেডিকেল কলেজে (খুমেক) যাতায়াত করেন একজন আউটসোর্সিং কর্মচারী। সরেজমিন দেখা গেছে, শুধু পলিথিনের গ্লাভস হাতে দিয়েই তাকে ওই নমুনা বহন করতে হয়। অথচ দূর থেকে একবার ঘুরে আসা একজন ডাক্তারের থাকে পা থেকে মাথা পর্যন্ত সুরক্ষা ব্যবস্থা। অনেক সময় নার্সরাও রোগীর কাছে না গিয়ে আউটসোর্সিং কর্মচারীদের দিয়ে তাদের দায়িত্ব সেরে নেন।

এ ব্যাপারে খুমেক হাসপাতালের ওয়ার্ড মাস্টার আতাউর রহমান বলেন, সরকারি কর্মচারী কম বলে আউটসোর্সিং কর্মচারীদের দিয়েই ডিউটি করানো হচ্ছে। করোনার জন্য প্রণোদনার অংশ হিসেবে খুমেক হাসপাতাল থেকে স্বাস্থ্য অধিদফতরে ৯০০ জনের একটি তালিকা পাঠানো হয়েছে। সেখানে ডাক্তার-নার্স-সরকারি কর্মচারীদের মধ্যে যাদের ডিউটিতে দেখা যায়নি তাদের নামও রয়েছে। অর্থাৎ এখানেও বঞ্চিত আউটসোর্সিং কর্মচারীরা। খুমেক হাসপাতালের পরিচালক ডা. মুন্সী মো. রেজা সেকেন্দার বলেন, সরকারি কর্মচারী আর আউটসোর্সিং কর্মচারীদের আলাদা করে দেখার কোনো সুযোগ নেই। সমস্যার বিষয়ে তিনি নজর দেবেন বলে জানান।

 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত