ফেসবুকে প্রতারণার ফাঁদ

বড় অংকের টাকা নেয়া ৩ বিদেশি গ্রেফতার

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৩ জুলাই ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভুয়া আইডি তৈরি করে প্রতারণার মাধ্যমে বড় অংকের অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে ৩ বিদেশি নাগরিককে গ্রেফতার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। এ প্রতারক চক্র আরিফুল ইসলাম ফয়সাল নামের ঢাকার এক যুবকের কাছ থেকে ২২ লাখ ৬৮ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

গ্রেফতাররা হলেন, সোলেমান নিউগেন টেগমো বার্টিন (৪৭), নিউগেন টাওজার্জ ক্রিস্টিয়ান (৩৮) ও একোনগো আরনাস্ট ইব্রাহিম (৪২)। এদের মধ্যে একজন কেনিয়ার এক ও দু’জন ক্যামেরুনের নাগরিক।

রাজধানীতে বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান সিআইডির ডিআইজি শেখ মোহাম্মদ রেজাউল হায়দার। তিনি বলেন, ভুক্তভোগীদের অভিযোগের ভিত্তিতে বুধবার দিনগত রাতে রাজধানীর ভাটারা থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

তাদের প্রতারণার ধরন সম্পর্কে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, প্রথমে তারা ফেসবুকে ফেক আইডি এবং নাম ব্যবহার করে বিভিন্ন মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। সাধারণ মানুষদের সঙ্গে তারা বন্ধুত্ব তৈরি করেন। এ সুযোগে প্রতারক চক্রের সদস্যরা বিভিন্ন দামি গিফট পাঠান এবং সেটি কাস্টমসে আটকে আছে, ছাড়িয়ে আনতে হবে বলে মোটা অংকের টাকা চান। সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশি কেউ কাস্টমসের কর্মকর্তা অথবা পরিচয় দিয়ে প্রতারণা কাজে সহায়তা করেন।

তিনি বলেন, প্রতারক চক্রের গ্রেফতার সদস্যরা নারী সেজে ফেক আইডি ব্যবহার করে ভুক্তভোগী মোহাম্মদ আরিফুল ইসলাম ওরফে ফয়সালের সঙ্গে বন্ধুত্বের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। চক্রের এক সদস্য নিজেকে যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক হিসেবে পরিচয় দিয়ে আরিফুলকে কুরিয়ার এজেন্টের মাধ্যমে উপহার পাঠাবে বলে জানান। এরপর চক্রটি বিভিন্ন সময়ে নগদ ৮ লাখ ৭০ হাজার টাকা এবং ব্যাংকের মাধ্যমে ১৩ লাখ ৯৮ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। তার কাছ থেকে মোট ২২ লাখ ৬৮ হাজার টাকা প্রতারণা মাধ্যমে হাতিয়ে নেয় এ চক্রের তিন সদস্য।

প্রতারণার সঙ্গে জড়িত এমন কতজন আফ্রিকান নাগরিক বাংলাদেশে আছেন এ বিষয়ে কোনো তথ্য আছে কিনা জানতে চাইলে সিআইডির ডিআইজি বলেন, সুনির্দিষ্ট করে এ বিষয়ে কিছু বলতে পারছি না। তবে যারাই এ প্রতারণা করছে তারা সবাই একই গ্রুপের নয়। দু’জন, তিনজন অথবা পাঁচজন করে একেকটি গ্রুপে প্রতারণামূলক কর্মকাণ্ডগুলো হচ্ছে। তাই নিশ্চিত করে কতগুলো গ্রুপ আছে সেটি বলা সম্ভব হচ্ছে না। আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদ করে বিস্তারিত জানা যাবে।

তিনি আরও বলেন, গ্রেফতার আসামিরা অনেক আক্রমণাত্মক। অভিযানের সময় তারা পুলিশ সদস্যদের ওপর বিভিন্ন প্রকার হামলা চালানোর চেষ্টা করেছেন। এ চক্রটি ২০১৮ সাল থেকে বাংলাদেশে অবস্থান করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিভিন্ন মানুষের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণে অর্থ হাতিয়ে নিয়েছেন। এদের সঙ্গে কোনো বাংলাদেশি নাগরিক জড়িত আছে কিনা খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে। এ বিষয়ে ভুক্তভোগী আরিফুল ইসলাম রাজধানীর বিমানবন্দর থানায় একটি প্রতারণার মামলা দায়ের করেছেন।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত