ওসির সহযোগিতায় রাস্তা ও জমি দখল করে পেট্রল পাম্প

অপসারণ দাবিতে খিলগাঁওয়ে ভুক্তভোগীদের মানববন্ধন

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৫ জুলাই ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

হাসনাবানু কবরস্থান, মসজিদ ও একমাত্র রাস্তা খুলে দেয়ার দাবিতে রাজধানীর বনশ্রী পূর্বাঞ্চল আবাসিক এলাকা (উত্তরগাঁও) ৭৫নং ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের মানববন্ধন -যুগান্তর

খিলগাঁও থানার ওসি মশিউর রহমানের সহযোগিতায় কবরস্থান ও ব্যক্তিমালিকানাধীন জমি এবং মসজিদের রাস্তা দখল করে পেট্রল পাম্প গড়ে তোলা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ জমি থেকে পেট্রল পাম্পটি অপসারণের দাবিতে শনিবার সকালে নন্দীপাড়ায় মানববন্ধন করেছেন এলাকাবাসী। মানববন্ধনে তারা অভিযোগ করেন, মশিউর রহমানের শেল্টারে মাসুদ আহমেদ ওরফে টুন্ডা মুকুল এলাকায় দখলবাজি চালিয়ে যাচ্ছে। সে অবৈধভাবে মুক্তিযোদ্ধা ডা. জাহিদুর রহমানের জমি এবং হাছনাবানু কবরস্থান ও মসজিদের রাস্তার জমি দখল করে একটি পেট্রল পাম্প গড়ে তুলেছে।
মানববন্ধনে ডা. জাহিদুর রহমান বলেন, ওসি মশিউর রহমান সশরীরে একাধিকবার টুন্ডা মুকুলের সহযোগীর ভূমিকায় অবতীর্ণ হন। আমিন এনে এককভাবে মাপঝোক করে রাস্তার একটা বড় অংশ পেট্রল পাম্পের মধ্যে নিয়ে তিনি নিজেই এখানে খুঁটি গাড়েন। এ নিয়ে এলাকাবাসী স্থানীয় এমপিসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কাছে যায়। কিন্তু এরপরও কোনো প্রতিকার মিলছে না। জাহিদুর রহমান আরও বলেন, মাসুদ আহমেদ মুকুল তার বাহিনী দিয়ে জমি দখল করে নিলে কয়েকবার ওসির দ্বারস্থ হই। কিন্তু তিনি মামলা নিতে চাননি। পরে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার নির্দেশে তিনি একটি মামলা নেন এবং মাসুদ আহমেদ মুকুল ও তার এক সহযোগীকে গ্রেফতার করেন।
মানববন্ধনে ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করেন, মশিউর রহমান প্রায় তিন বছর ধরে খিলগাঁও থানার ওসি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি এখানে আসার পর ভূমিদস্যুসহ বিভিন্ন অপরাধীর সঙ্গে সখ্য গড়ে তুলেছেন। ওসির শেল্টারে মাসুদ আহমেদ মুকুলের বাহিনীর অন্য সদস্যরা বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।
এসব বিষয়ে জানতে খিলগাঁও থানার ওসি মশিউর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি যুগান্তরকে বলেন, মাসুদ আহমেদ মুকুল কেন, আমি কাউকেই শেল্টার দেইনি। কেউ যদি আমার বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ এনে থাকে তবে তা সঠিক নয়।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত