মাশরাফির আবারও করোনা পজিটিভ

  স্পোর্টস রিপোর্টার ০৫ জুলাই ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মাশরাফি বিন মুর্তজা। ফাইল ছবি

দ্বিতীয়বার করোনা পরীক্ষা করেও মাশরাফি মুর্তজার রিপোর্টে খুশি হওয়ার মতো কিছু আসেনি। আবারও করোনা পজিটিভ তার। তবে শারীরিকভাবে সুস্থ আছেন বাংলাদেশ দলের সাবেক অধিনায়ক ও নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য।

মাশরাফির সঙ্গে প্রায় একই সময়ে করোনা পজিটিভ হয়েছিল সাবেক ক্রিকেটার নাফিস ইকবাল ও বাঁ-হাতি স্পিনার নাজমুল ইসলাম অপুর। তারা দ্বিতীয়বারের পরীক্ষাতেই নেগেটিভ ফল পেয়েছেন। কিন্তু মাশরাফির দ্বিতীয় পরীক্ষার ফল পজিটিভ আসার বিষয়টি তার পারিবারিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। পরে মাশরাফিও জানিয়েছেন, তার নেগেটিভ ফল আসেনি।

তিনদিন আগে মাশরাফি দ্বিতীয়বার করোনা পরীক্ষা করেন। কিন্তু সেই পরীক্ষার ফল গোপন রাখা যায়নি। শনিবার দুপুরে ছড়িয়ে পড়ে যে মাশরাফির করোনা টেস্টের ফল আবার পজিটিভ এসেছে। ১৪ দিন পরই দ্বিতীয়বার টেস্ট করাতে চেয়েছিলেন মাশরাফি। কিন্তু তার আগেই তার পরীক্ষা করানো হয়। তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি অব্যাহত আছে।

মাশরাফির পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে, আগামী কয়েকদিনের মধ্যে আবারও তার পরীক্ষা করানো হবে। ২০ জুন মাশরাফির শরীরে প্রথম করোনাভাইরাস ধরা পড়ে। পরে তার ভাই মোরসালিন মুর্তজারও করোনা পজিটিভ আসে। গত দুই সপ্তাহ বাসায় থেকেই চিকিৎসা নিয়েছেন বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে অনুপ্রেরণাদায়ী অধিনায়ক। প্রধাণমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক মাশরাফির চিকিৎসার দিকনির্দেশনা দিচ্ছেন। মাশরাফির অ্যাজমা সমস্যা থাকায় তাকে বাড়তি সতর্ক থাকতে বলছেন চিকিৎসকরা।

মাশরাফির আগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন তার শাশুড়ি ও শ্যালিকা। দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের পর থেকেই বেশ সক্রিয় ভূমিকা পালন করেছেন মাশরাফি। নিজের নির্বাচনী এলাকা নড়াইলের অসহায় এবং দরিদ্র মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করে আসছেন তিনি। এছাড়া সারা দেশে বিভিন্নভাবে তিনি অসহায় মানুষের সাহায্যের জন্য পাশে দাঁড়িয়েছেন।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত