ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯০তম জন্মবার্ষিকী

আগামীকাল ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৭ আগস্ট ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯০তম জন্মবার্ষিকীতে নগদ অর্থ, সেলাই মেশিন ও ল্যাপটপ বিতরণের উদ্যোগ নিয়েছেন মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা।
বৃহস্পতিবার দুপুরে সচিবালয়ের মন্ত্রণালয় সভাকক্ষে এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯০তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে অনুষ্ঠানের বিস্তারিত গণমাধ্যমের সামনে তুলে ধরে সংবাদ সম্মেলনে প্রতিমন্ত্রী জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামীকাল সকাল ১০.৩০টায় গণভবন থেকে ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে বঙ্গমাতা ফজিলাতুন নেছা মুজিবের ৯০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগদান করবেন। সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত সচিব ফরিদা পারভীন, অতিরিক্ত সচিব ড. মহিউদ্দীন আহমেদ, প্রধান তথ্য কর্মকর্তা সুরথ কুমার সরকার ও মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বৈশ্বিক মহামারী করোনার কারণে ক্ষতিগ্রস্ত নারীদের আর্থিক সাহায্য ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে বঙ্গমাতার ৯০তম জন্মবার্ষিকীতে দুস্থ নারীদের সেলাই মেশিন ও মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে নগদ টাকা দেয়া হবে। গোপালগঞ্জ জেলার দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীদের মধ্যে একশত ল্যাপটপ বিতরণ করা হবে। সব জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে প্রাপ্ত সুবিধাভোগীদের তালিকা অনুযায়ী, ৬৪ জেলায় তিন হাজার ২০০ সেলাই মেশিন ও এক হাজার ৩০০ দুস্থ ও অসহায় নারীর মধ্যে দুই হাজার টাকা করে মোট ছাব্বিশ লাখ টাকা দেয়া হবে।
প্রতিমন্ত্রী ইন্দিরা জানান, প্রতি বছর মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয় যথাযথ মর্যাদায় মহীয়সী নারী বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকী উদযাপন করে আসছে। এ বছরের প্রতিপাদ্য ‘বঙ্গমাতা ত্যাগ ও সুন্দরের সাহসী প্রতীক’। জন্মবার্ষিকী অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মতিয়া চৌধুরী।

তিনি সাংবাদিকদের জানান, গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে আর্থিক অনুদান গ্রহণের জন্য পাঁচজন, সেলাই মেশিন গ্রহণের জন্য পাঁচজন এবং ল্যাপটপ গ্রহণের জন্য পাঁচজন নির্বাচিত সুবিধাভোগী উপস্থিত থাকবেন। আর্থিক অনুদানের অর্থ ইলেক্ট্রনিক পদ্ধতিতে প্রধানমন্ত্রীর মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচিত সুবিধাভোগীদের মোবাইল নম্বরে স্থানান্তর করা হবে। প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে গোপালগঞ্জের জেলা প্রশাসক উপস্থিত সুবিধাভোগীদের মধ্যে সেলাই মেশিন এবং ল্যাপটপ হস্তান্তর করবেন। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, সারা দেশে জেলা প্রশাসকদের সঙ্গে সমন্বয় করে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অধীন দফতর-সংস্থা বঙ্গমাতার জন্মবার্ষিকী উদযাপনে আলোচনা সভার আয়োজন করবে। যার মাধ্যমে মহান মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা আন্দোলনের প্রতিটি পর্যায়, যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ পুনর্গঠন এবং দেশে নারীর ক্ষমতায়নে বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের গৌরবময় ও অগ্রণী ভূমিকা সর্বস্তরের মানুষের মাঝে ছড়িয়ে যাবে। বিদেশে অবস্থিত বাংলাদেশের দূতাবাস ও মিশনসমূহ জন্মবার্ষিকীর অনুষ্ঠান উদযাপন করবে।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, অনুষ্ঠানটি বাংলাদেশ টেলিভিশন, বাংলাদেশ বেতার ও অনলাইনে সরাসরি সম্প্রচার করা হবে। মহীয়সী নারী বঙ্গমাতার গৌরবময় কর্মজীবনের ওপর প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণ ও স্মরণিকা প্রকাশ করা হবে। বাংলাদেশ শিশু একাডেমি মিলনায়তন থেকে বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯০তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে অনুষ্ঠানে সভাপতি হিসেবে মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন্নেসা ইন্দিরা ও অন্যান্য বিশেষ অতিথিরা ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে সংযুক্ত থাকবেন। এছাড়া গোপালগঞ্জ থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সংযুক্ত হবেন গোপালগঞ্জের জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত