ছাগলনাইয়ায় ছেলের ওপর অভিমান করে মায়ের আত্মহত্যা
jugantor
ছাগলনাইয়ায় ছেলের ওপর অভিমান করে মায়ের আত্মহত্যা

  ফেনী প্রতিনিধি  

২৬ নভেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ছেলের ওপর অভিমান করে বৃদ্ধা মা আত্মহত্যা করেছেন। ঘটনাটি ঘটেছে ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলার জয়নগরে। এ ঘটনায় পুলিশ বৃদ্ধার ছেলে আবু রসুল ওরফে রাসেল, তার স্ত্রী বিবি রোকসানা রিমা ও আরেক ছেলে জয়নাল আবদীনের স্ত্রী আকলিমা আক্তারকে গ্রেফতার করেছে। ছাগলনাইয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাহবুবুর রহমান জানান, ছাগলনাইয়ার মহামায়া ইউনিয়নের জয়নগরে আয়েশা আক্তার বিষপানে আত্মহত্যা করেন।

এ ঘটনায় বৃদ্ধার ভাই আবু তাহের বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাতে আয়েশার দুই ছেলে, ছেলের স্ত্রীসহ পাঁচজনকে আসামি করে আত্মহত্যার প্ররোচণার অভিযোগে মামলা করেন। পুলিশ জানায়, জয়নগরের মৃত সেকান্দর মিয়ার ছয় ছেলে রয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে পারিবারিক কলহের জেরে ধরে শারীরিক ও মানসিকভাবে ছেলে ও ছেলেদের স্ত্রীরা আয়েশা আক্তারকে নির্যাতন করতেন। রোববার রাত ১০টার দিকে কুয়েত প্রবাসী ছেলে জয়নাল আবদিনের সঙ্গে আয়েশার মোবাইল ফোনে কথা বলার সময় বাকবিতণ্ডা হয়। অসুস্থতার জন্য ছেলেদের কাছে ওষুধ কিনতে টাকা চাইলে তারা মাকে ওষুধের পরিবর্তে বিষ কিনে খেতে বলে। ছেলে ও পুত্রবধূদের এমন আচরণে মানসিকভাবে আঘাত পেয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে যান ওই বৃদ্ধা।

চাঁদগাজী বাজার থেকে বিষ কিনে এনে সোমবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বাড়ির একটি কক্ষের দরজা বন্ধ করে বিষপান করেন আয়েশা আক্তার। বিষয়টি পরিবারের অন্য সদস্যরা টের পেয়ে সোমবার রাতে দরজা ভেঙে বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে প্রথমে ছাগলনাইয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে ফেনী সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

ছাগলনাইয়ায় ছেলের ওপর অভিমান করে মায়ের আত্মহত্যা

 ফেনী প্রতিনিধি 
২৬ নভেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ছেলের ওপর অভিমান করে বৃদ্ধা মা আত্মহত্যা করেছেন। ঘটনাটি ঘটেছে ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলার জয়নগরে। এ ঘটনায় পুলিশ বৃদ্ধার ছেলে আবু রসুল ওরফে রাসেল, তার স্ত্রী বিবি রোকসানা রিমা ও আরেক ছেলে জয়নাল আবদীনের স্ত্রী আকলিমা আক্তারকে গ্রেফতার করেছে। ছাগলনাইয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাহবুবুর রহমান জানান, ছাগলনাইয়ার মহামায়া ইউনিয়নের জয়নগরে আয়েশা আক্তার বিষপানে আত্মহত্যা করেন।

এ ঘটনায় বৃদ্ধার ভাই আবু তাহের বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাতে আয়েশার দুই ছেলে, ছেলের স্ত্রীসহ পাঁচজনকে আসামি করে আত্মহত্যার প্ররোচণার অভিযোগে মামলা করেন। পুলিশ জানায়, জয়নগরের মৃত সেকান্দর মিয়ার ছয় ছেলে রয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে পারিবারিক কলহের জেরে ধরে শারীরিক ও মানসিকভাবে ছেলে ও ছেলেদের স্ত্রীরা আয়েশা আক্তারকে নির্যাতন করতেন। রোববার রাত ১০টার দিকে কুয়েত প্রবাসী ছেলে জয়নাল আবদিনের সঙ্গে আয়েশার মোবাইল ফোনে কথা বলার সময় বাকবিতণ্ডা হয়। অসুস্থতার জন্য ছেলেদের কাছে ওষুধ কিনতে টাকা চাইলে তারা মাকে ওষুধের পরিবর্তে বিষ কিনে খেতে বলে। ছেলে ও পুত্রবধূদের এমন আচরণে মানসিকভাবে আঘাত পেয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে যান ওই বৃদ্ধা।

চাঁদগাজী বাজার থেকে বিষ কিনে এনে সোমবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বাড়ির একটি কক্ষের দরজা বন্ধ করে বিষপান করেন আয়েশা আক্তার। বিষয়টি পরিবারের অন্য সদস্যরা টের পেয়ে সোমবার রাতে দরজা ভেঙে বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে প্রথমে ছাগলনাইয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে ফেনী সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন