মাদারীপুরে ডিসির সচেতনতামূলক মাইকিং স্থগিত
jugantor
মাদারীপুরে ডিসির সচেতনতামূলক মাইকিং স্থগিত
করোনা সংক্রমণ রোধে সন্ধ্যার পর শিক্ষার্থীরা বের হবেন না -ডিসি

  মাদারীপুর প্রতিনিধি  

২৮ নভেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

করোনা সংক্রমণ রোধে সন্ধ্যা ৭টার পর অভিভাবক ছাড়া কোনো শিক্ষার্থী বাইরে বের হতে পারবে না। করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় শিক্ষার্থী ও জনগণকে সচেতন করতে, কিশোর গ্যাং, নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা রোধসহ বিভিন্ন বিষয়ে মঙ্গলবার শিবচর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে

জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন বক্তব্য দেন। তিনি আরও বলেন, গ্রাম বা শহরের আড্ডাস্থল ও চায়ের দোকানে টেলিভিশন রাখা যাবে না। ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কল্যাণে জেলা প্রশাসকের বক্তব্যকে কেন্দ্র করে যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকসহ নানা মাধ্যমে শুরু হয় নানা সমালোচনা।

এদিকে সচেতন নাগরিক কমিটির সভাপতি খান মোহাম্মদ শহীদ মন্তব্য করতে গিয়ে বলেছেন, নাগরিক অধিকার বিবেচনায় জেলা প্রশাসকের সিদ্ধান্তের কয়েকটি বিষয় বিতর্কিত। তবে এ সিদ্ধান্ত সাময়িক হতে পারে, দীর্ঘস্থায়ী নয়।

বিষয়টি ভিন্ন ভাবে প্রচার করায় তাকে নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে বলে দাবি করেন জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন। তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের ভালোর জন্য কিছু বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়ে মাইকিং করে সবাইকে সচেতন করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু কিছু মানুষ বিষয়টি ভিন্ন দিকে নিয়ে যাচ্ছে। এ কারণে আজ মাইকিং স্থগিত করা হয়েছে। জনগণ ও জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে বসে আরও আলোচনা করে সিদ্ধান্তগুলো বাস্তবায়ন করা হবে। বৃহস্পতিবার বিকালে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন শিবচরে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাবিষয়ক মতবিনিময় সভায় বলেছেন, অধিক রাত পর্যন্ত বাড়ির বাইরে থাকার কারণে অনেক শিক্ষার্থীই মাদকাসক্ত ও জুয়া খেলাসহ বিভিন্ন অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে। তাই পৌরসভার মধ্যে রাত ১০টা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে রাত ৯টার মধ্যে সব দোকানপাট বন্ধ করতে হবে। এ সময় শিবচর পৌর মেয়র আওলাদ হোসেন খান তাকে অবগত করেন শিবচরে দোকানপাট রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা। মতবিনিময় সভায় শিবচর উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল লতিফ মোল্লা, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আসাদুজ্জামান, রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।

মাদারীপুরে ডিসির সচেতনতামূলক মাইকিং স্থগিত

করোনা সংক্রমণ রোধে সন্ধ্যার পর শিক্ষার্থীরা বের হবেন না -ডিসি
 মাদারীপুর প্রতিনিধি 
২৮ নভেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

করোনা সংক্রমণ রোধে সন্ধ্যা ৭টার পর অভিভাবক ছাড়া কোনো শিক্ষার্থী বাইরে বের হতে পারবে না। করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় শিক্ষার্থী ও জনগণকে সচেতন করতে, কিশোর গ্যাং, নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা রোধসহ বিভিন্ন বিষয়ে মঙ্গলবার শিবচর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে

জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন বক্তব্য দেন। তিনি আরও বলেন, গ্রাম বা শহরের আড্ডাস্থল ও চায়ের দোকানে টেলিভিশন রাখা যাবে না। ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কল্যাণে জেলা প্রশাসকের বক্তব্যকে কেন্দ্র করে যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকসহ নানা মাধ্যমে শুরু হয় নানা সমালোচনা।

এদিকে সচেতন নাগরিক কমিটির সভাপতি খান মোহাম্মদ শহীদ মন্তব্য করতে গিয়ে বলেছেন, নাগরিক অধিকার বিবেচনায় জেলা প্রশাসকের সিদ্ধান্তের কয়েকটি বিষয় বিতর্কিত। তবে এ সিদ্ধান্ত সাময়িক হতে পারে, দীর্ঘস্থায়ী নয়।

বিষয়টি ভিন্ন ভাবে প্রচার করায় তাকে নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে বলে দাবি করেন জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন। তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের ভালোর জন্য কিছু বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়ে মাইকিং করে সবাইকে সচেতন করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু কিছু মানুষ বিষয়টি ভিন্ন দিকে নিয়ে যাচ্ছে। এ কারণে আজ মাইকিং স্থগিত করা হয়েছে। জনগণ ও জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে বসে আরও আলোচনা করে সিদ্ধান্তগুলো বাস্তবায়ন করা হবে। বৃহস্পতিবার বিকালে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন শিবচরে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাবিষয়ক মতবিনিময় সভায় বলেছেন, অধিক রাত পর্যন্ত বাড়ির বাইরে থাকার কারণে অনেক শিক্ষার্থীই মাদকাসক্ত ও জুয়া খেলাসহ বিভিন্ন অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে। তাই পৌরসভার মধ্যে রাত ১০টা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে রাত ৯টার মধ্যে সব দোকানপাট বন্ধ করতে হবে। এ সময় শিবচর পৌর মেয়র আওলাদ হোসেন খান তাকে অবগত করেন শিবচরে দোকানপাট রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা। মতবিনিময় সভায় শিবচর উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল লতিফ মোল্লা, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আসাদুজ্জামান, রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।