সবাইকে বিনামূল্যে করোনা ভ্যাকসিন দিতে হবে
jugantor
লালবাগে কম্বল বিতরণ
সবাইকে বিনামূল্যে করোনা ভ্যাকসিন দিতে হবে

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২৯ নভেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দেশের প্রতিটি মানুষের জন্য বিনামূল্যে করোনা ভ্যাকসিন নিশ্চিত করতে সরকারের কাছে আবারও দাবি জানিয়েছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় উপনেতা জিএম কাদের। শনিবার দুপুরে রাজধানীর লালবাগের আমলীগোলা পার্কে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য হাজী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলনের ব্যবস্থাপনায় ২ মাসব্যাপী কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানের উদ্বোধনকালে পার্টি চেয়ারম্যান এ দাবি করেন।

জিএম কাদের বলেন, যারা সারা দিন খাবার জোগাড় করতে সংগ্রাম করেন, লকডাউন হলে ক্ষুধার তাড়নায় আইন ভঙ্গ করেন খাবারের জন্য- তাদের পক্ষে পয়সা দিয়ে ভ্যাকসিন নেয়া অসম্ভব হয়ে পড়বে। দেশের প্রায় ৯০ ভাগ মানুষের পক্ষে পয়সা দিয়ে ভ্যাকসিন নেয়া সম্ভব নয়। তাই সবাইকে সরকারিভাবে করোনা ভ্যাকসিন দিতে হবে।

তিনি বলেন, শীতের সঙ্গে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার বেড়েছে। চিকিৎসায় দৃশ্যমান প্রস্তুতি নেই।

জিএম কাদের বলেন, রাজধানীতে কিছু বেসরকারি হাসপাতালে লাইফ সাপোর্ট ও অক্সিজেন সহায়তা আছে। কিন্তু দেশের বেশিরভাগ হাসপাতালে এ সুবিধা নেই। আবার সাধারণ মানুষের পক্ষে বেসরকারি হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা নেয়ার সামর্থ্য নেই। সাধারণ মানুষ আক্রান্ত হলে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় চিকিৎসা নিয়ে ভালো হচ্ছেন অথবা মারা যাচ্ছেন। তাই দেশের প্রতিটি হাসপাতালে করোনা চিকিৎসায় কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। একটি মানবিক রাজনৈতিক দল হিসেবে সব সময় জাতীয় পার্টি সাধারণ মানুষের পাশে থাকবে বলেও প্রত্যয় ব্যক্ত করেন জিএম কাদের। জাতীয় পার্টির মহাসচিব জিয়াউদ্দন আহমেদ বাবলু বলেন, দেশের মানুষের মাঝে হাহাকার উঠেছে। সাধারণ মানুষের জীবনের নিরাপত্তা নেই। শুধু জাতীয় পার্টিই পারে সাধারণ মানুষের মনে স্বস্তি ফিরিয়ে দিতে। মানুষের জীবনের নিরাপত্তা দিতে পারবে জাতীয় পার্টি। তাই জাতীয় পার্টিকে সমর্থন দিতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

বিএনএস গ্রুপের চেয়ারম্যান এনএমএইচ বুলুর সভাপতিত্বে কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন- জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য মীর আবদুস সবুর আসুদ ও হাজী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন। উপস্থিত ছিলেন- জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. ইসহাক ভূঁইয়া, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক জহিরুল ইসলাম মিন্টু, যুগ্ম-দফতর সম্পাদক মাহমুদ আলম, সমরেশ মণ্ডল মানিক, জাতীয় পার্টি নেতা কাজী জামাল উদ্দিন, আবদুল কাদের, ডা. বজলুর রহমান ও মো. রফিকুল আলম প্রধান।

তৃণমূলে জাতীয় পার্টিকে শক্তিশালী করা ছাড়া বিকল্প নেই : তৃণমূল পর্যায়ে জাতীয় পার্টিকে শক্তিশালী করা ছাড়া বিকল্প নেই। পার্টি তৃণমূলে শক্তিশালী হলে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় যাওয়া সহজতর হবে এবং ক্ষমতায় গেলে দেশ ও জনগণের কল্যাণে অনেক কাজ করা সম্ভব। যেমনটা করেছিলেন জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। আজও মানুষ ’৯০-এর পূর্বের এরশাদ শাসনামলের সোনালি দিনগুলোর কথা ভোলেননি। মানুষ তখন সুখে-শান্তিতে ছিলেন, কর্মসংস্থান ছিল, মানুষ ঘরে-বাইরে নিরাপদে ছিলেন। জাতীয় পার্টি রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় গেলে সুশাসনের মাধ্যমে সেদিন ফিরিয়ে আনব ইনশাআল্লাহ। শনিবার খুলনা বিভাগীয় সাংগঠনিক টিমের সঙ্গে বাগেরহাট জেলার তৃণমূল নেতাকর্মীদের সাংগঠনিক মতবিনিময় সভায় ঢাকা থেকে টেলিফোনে এ বক্তব্য দেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের এমপি।

সারা দেশে জাতীয় পার্টিকে সুসংগঠিত করার লক্ষ্যে পার্টির চেয়ারম্যানের নির্দেশে বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় বাগেরহাট শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে জাতীয় পার্টির বাগেরহাট জেলা সাংগঠনিক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান ও খুলনা জেলা সভাপতি মো. শফিকুল ইসলাম মধুর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও খুলনা বিভাগীয় অতিরিক্ত মহাসচিব সাহিদুর রহমান টেপা বলেন- আমার সাংগঠনিক টিম খুলনা বিভাগে নিরলস কাজ করছে ।

বাগেরহাটে সাংগঠনিক মতবিনিময় সভা শেষে খুলনা ফকিরহাটে এক পথসভায় অংশগ্রহণ করে খুলনা বিভাগীয় অতিরিক্ত মহাসচিব সাহিদুর রহমান টেপার নেতৃত্বে সাংগঠনিক টিম।

লালবাগে কম্বল বিতরণ

সবাইকে বিনামূল্যে করোনা ভ্যাকসিন দিতে হবে

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২৯ নভেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দেশের প্রতিটি মানুষের জন্য বিনামূল্যে করোনা ভ্যাকসিন নিশ্চিত করতে সরকারের কাছে আবারও দাবি জানিয়েছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় উপনেতা জিএম কাদের। শনিবার দুপুরে রাজধানীর লালবাগের আমলীগোলা পার্কে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য হাজী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলনের ব্যবস্থাপনায় ২ মাসব্যাপী কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানের উদ্বোধনকালে পার্টি চেয়ারম্যান এ দাবি করেন।

জিএম কাদের বলেন, যারা সারা দিন খাবার জোগাড় করতে সংগ্রাম করেন, লকডাউন হলে ক্ষুধার তাড়নায় আইন ভঙ্গ করেন খাবারের জন্য- তাদের পক্ষে পয়সা দিয়ে ভ্যাকসিন নেয়া অসম্ভব হয়ে পড়বে। দেশের প্রায় ৯০ ভাগ মানুষের পক্ষে পয়সা দিয়ে ভ্যাকসিন নেয়া সম্ভব নয়। তাই সবাইকে সরকারিভাবে করোনা ভ্যাকসিন দিতে হবে।

তিনি বলেন, শীতের সঙ্গে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার বেড়েছে। চিকিৎসায় দৃশ্যমান প্রস্তুতি নেই।

জিএম কাদের বলেন, রাজধানীতে কিছু বেসরকারি হাসপাতালে লাইফ সাপোর্ট ও অক্সিজেন সহায়তা আছে। কিন্তু দেশের বেশিরভাগ হাসপাতালে এ সুবিধা নেই। আবার সাধারণ মানুষের পক্ষে বেসরকারি হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা নেয়ার সামর্থ্য নেই। সাধারণ মানুষ আক্রান্ত হলে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় চিকিৎসা নিয়ে ভালো হচ্ছেন অথবা মারা যাচ্ছেন। তাই দেশের প্রতিটি হাসপাতালে করোনা চিকিৎসায় কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। একটি মানবিক রাজনৈতিক দল হিসেবে সব সময় জাতীয় পার্টি সাধারণ মানুষের পাশে থাকবে বলেও প্রত্যয় ব্যক্ত করেন জিএম কাদের। জাতীয় পার্টির মহাসচিব জিয়াউদ্দন আহমেদ বাবলু বলেন, দেশের মানুষের মাঝে হাহাকার উঠেছে। সাধারণ মানুষের জীবনের নিরাপত্তা নেই। শুধু জাতীয় পার্টিই পারে সাধারণ মানুষের মনে স্বস্তি ফিরিয়ে দিতে। মানুষের জীবনের নিরাপত্তা দিতে পারবে জাতীয় পার্টি। তাই জাতীয় পার্টিকে সমর্থন দিতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

বিএনএস গ্রুপের চেয়ারম্যান এনএমএইচ বুলুর সভাপতিত্বে কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন- জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য মীর আবদুস সবুর আসুদ ও হাজী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন। উপস্থিত ছিলেন- জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. ইসহাক ভূঁইয়া, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক জহিরুল ইসলাম মিন্টু, যুগ্ম-দফতর সম্পাদক মাহমুদ আলম, সমরেশ মণ্ডল মানিক, জাতীয় পার্টি নেতা কাজী জামাল উদ্দিন, আবদুল কাদের, ডা. বজলুর রহমান ও মো. রফিকুল আলম প্রধান।

তৃণমূলে জাতীয় পার্টিকে শক্তিশালী করা ছাড়া বিকল্প নেই : তৃণমূল পর্যায়ে জাতীয় পার্টিকে শক্তিশালী করা ছাড়া বিকল্প নেই। পার্টি তৃণমূলে শক্তিশালী হলে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় যাওয়া সহজতর হবে এবং ক্ষমতায় গেলে দেশ ও জনগণের কল্যাণে অনেক কাজ করা সম্ভব। যেমনটা করেছিলেন জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। আজও মানুষ ’৯০-এর পূর্বের এরশাদ শাসনামলের সোনালি দিনগুলোর কথা ভোলেননি। মানুষ তখন সুখে-শান্তিতে ছিলেন, কর্মসংস্থান ছিল, মানুষ ঘরে-বাইরে নিরাপদে ছিলেন। জাতীয় পার্টি রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় গেলে সুশাসনের মাধ্যমে সেদিন ফিরিয়ে আনব ইনশাআল্লাহ। শনিবার খুলনা বিভাগীয় সাংগঠনিক টিমের সঙ্গে বাগেরহাট জেলার তৃণমূল নেতাকর্মীদের সাংগঠনিক মতবিনিময় সভায় ঢাকা থেকে টেলিফোনে এ বক্তব্য দেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের এমপি।

সারা দেশে জাতীয় পার্টিকে সুসংগঠিত করার লক্ষ্যে পার্টির চেয়ারম্যানের নির্দেশে বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় বাগেরহাট শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে জাতীয় পার্টির বাগেরহাট জেলা সাংগঠনিক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান ও খুলনা জেলা সভাপতি মো. শফিকুল ইসলাম মধুর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও খুলনা বিভাগীয় অতিরিক্ত মহাসচিব সাহিদুর রহমান টেপা বলেন- আমার সাংগঠনিক টিম খুলনা বিভাগে নিরলস কাজ করছে ।

বাগেরহাটে সাংগঠনিক মতবিনিময় সভা শেষে খুলনা ফকিরহাটে এক পথসভায় অংশগ্রহণ করে খুলনা বিভাগীয় অতিরিক্ত মহাসচিব সাহিদুর রহমান টেপার নেতৃত্বে সাংগঠনিক টিম।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন