চিকিৎসকের শাস্তি দাবিতে নার্সদের বিক্ষোভ
jugantor
যৌন হয়রানির তদন্ত নিয়ে গড়িমসি
চিকিৎসকের শাস্তি দাবিতে নার্সদের বিক্ষোভ

  রাজশাহী ব্যুরো  

২৭ জানুয়ারি ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে প্রশিক্ষণার্থী এক চিকিৎসকের হাতে নার্সের যৌন হয়রানির ঘটনার তদন্ত নিয়ে গড়িমসির অভিযোগ উঠেছে। এর প্রতিবাদে হাসপাতালের প্রধান ফটকের সামনে নার্সরা মঙ্গলবার মানববন্ধন এবং বিক্ষোভ-সমাবেশ করেছেন। বিক্ষোভ কর্মসূচি থেকে তারা যৌন নিপীড়ক চিকিৎসকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন। বাংলাদেশ নার্সেস অ্যাসোসিয়েশনের রামেক হাসপাতাল শাখার ব্যানারে এ কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের রামেক শাখার সভাপতি শাহাদাতুন নূর লাকি। পরিচালনায় ছিলেন সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ খলিলুর রহমান। সমাবেশে সংগঠনের অন্য সদস্যরা বক্তব্য দেন।

বক্তারা বলেন, ঘটনার পর বেশ কিছু সময় পার হলেও অভিযুক্ত চিকিৎসককে শুধু দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি ছাড়া অন্য কোনো শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। অভিযুক্ত চিকিৎসক পার পেলে তারা আরও বড় আন্দোলন কর্মসূচি হাতে নেবেন।

জানা গেছে, অভিযুক্ত চিকিৎসকের নাম মামুন-অর-রহমান। তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে অ্যানেসথেসিয়ার ওপর কোর্স করছেন। কোর্সের অংশ হিসাবে এসেছেন রামেক হাসপাতালে। ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস শেষ করা ডা. মামুন চট্টগ্রামের একটি প্রাইভেট হাসপাতালে কর্মরত। রামেক হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) কর্তব্যরত এক নার্সকে যৌন হয়রানি করেছেন ১৮ ও ১৯ জানুয়ারি। পরদিন তাকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। রামেক হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস বলেন, তদন্ত চলছে। আমরা বিষয়টি দেখছি। কেউ অপরাধ করে থাকলে ছাড় পাবেন না।

যৌন হয়রানির তদন্ত নিয়ে গড়িমসি

চিকিৎসকের শাস্তি দাবিতে নার্সদের বিক্ষোভ

 রাজশাহী ব্যুরো 
২৭ জানুয়ারি ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে প্রশিক্ষণার্থী এক চিকিৎসকের হাতে নার্সের যৌন হয়রানির ঘটনার তদন্ত নিয়ে গড়িমসির অভিযোগ উঠেছে। এর প্রতিবাদে হাসপাতালের প্রধান ফটকের সামনে নার্সরা মঙ্গলবার মানববন্ধন এবং বিক্ষোভ-সমাবেশ করেছেন। বিক্ষোভ কর্মসূচি থেকে তারা যৌন নিপীড়ক চিকিৎসকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন। বাংলাদেশ নার্সেস অ্যাসোসিয়েশনের রামেক হাসপাতাল শাখার ব্যানারে এ কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের রামেক শাখার সভাপতি শাহাদাতুন নূর লাকি। পরিচালনায় ছিলেন সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ খলিলুর রহমান। সমাবেশে সংগঠনের অন্য সদস্যরা বক্তব্য দেন।

বক্তারা বলেন, ঘটনার পর বেশ কিছু সময় পার হলেও অভিযুক্ত চিকিৎসককে শুধু দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি ছাড়া অন্য কোনো শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। অভিযুক্ত চিকিৎসক পার পেলে তারা আরও বড় আন্দোলন কর্মসূচি হাতে নেবেন।

জানা গেছে, অভিযুক্ত চিকিৎসকের নাম মামুন-অর-রহমান। তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে অ্যানেসথেসিয়ার ওপর কোর্স করছেন। কোর্সের অংশ হিসাবে এসেছেন রামেক হাসপাতালে। ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস শেষ করা ডা. মামুন চট্টগ্রামের একটি প্রাইভেট হাসপাতালে কর্মরত। রামেক হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) কর্তব্যরত এক নার্সকে যৌন হয়রানি করেছেন ১৮ ও ১৯ জানুয়ারি। পরদিন তাকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। রামেক হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস বলেন, তদন্ত চলছে। আমরা বিষয়টি দেখছি। কেউ অপরাধ করে থাকলে ছাড় পাবেন না।