প্রতিবেশীর সঙ্গে বৈরিতা করে দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়
jugantor
দুদেশের মানুষের আকাক্সক্ষার জায়গা এক : দোরাইস্বামী
প্রতিবেশীর সঙ্গে বৈরিতা করে দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়
-তথ্যমন্ত্রী

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, দেশে নির্বাচন এলে বিএনপি ও কিছু রাজনৈতিক দল ভারত বিরোধিতা সামনে এনে প্রচারণা চালায়। যে দেশটির সহযোগিতা ছাড়া এদেশের স্বাধীনতা সম্ভব ছিল না, তারা সেই দেশটির বিরোধিতা করে। প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে বৈরিতা করে দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়-এ কথা তারা বুঝেও বোঝে না। জাতীয় প্রেস ক্লাবে মঙ্গলবার দুপুরে ইন্ডিয়ান মিডিয়া করেসপন্ডেন্টস বাংলাদেশ (ইমক্যাব) আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধু : বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এসব কথা বলেন। একই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী বলেন, বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে দারুণ সম্পর্ক রয়েছে। দু’দেশের মানুষের আকাক্সক্ষার জায়গা এক। সুসম্পর্ক বাড়ালে অনেক সমস্যার সমাধান হবে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপি মিথ্যাচারে বিশ্বাসী। দলটির নেতারা গোপনে করোনা টিকা নিচ্ছেন। জনসম্মুখে তারা যেভাবে কথা বলেন, টিকাও সেভাবে জনসম্মুখে নেওয়া উচিত। আমরা তাদের স্বাস্থ্যের বিষয়ে লক্ষ্য রাখব। ভারতীয় হাইকমিশনার বলেন, আমার জন্য যা ভালো, আপনার জন্য তা ভালো, আপনার জন্য যা ভালো, আমার জন্য তা ভালো-এ নীতিতে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে।

আমাদের মধ্যে সন্দেহের কোনো জায়গা নেই। দু’দেশের মধ্যকার সম্পর্ক কেমন হবে তা বঙ্গবন্ধুর সময়েই বলা হয়ে গেছে। এর জন্য নতুন নীতিমালা করার কিছু নেই।

ইমক্যাবের সভাপতি বাসুদেব ধরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম সবুজ। অতিথি হিসাবে ছিলেন ডেইলি অবজারভার সম্পাদক ইকবাল সোবহান চৌধুরী, জাতীয় প্রেস ক্লাব সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন, বিএফইউজের সাবেক সভাপতি মনজরুল আহসান বুলবুল ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সেক্টর কমান্ডারস ফোরামের মহাসচিব হারুন হাবিব।

দুদেশের মানুষের আকাক্সক্ষার জায়গা এক : দোরাইস্বামী

প্রতিবেশীর সঙ্গে বৈরিতা করে দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়

-তথ্যমন্ত্রী
 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, দেশে নির্বাচন এলে বিএনপি ও কিছু রাজনৈতিক দল ভারত বিরোধিতা সামনে এনে প্রচারণা চালায়। যে দেশটির সহযোগিতা ছাড়া এদেশের স্বাধীনতা সম্ভব ছিল না, তারা সেই দেশটির বিরোধিতা করে। প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে বৈরিতা করে দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়-এ কথা তারা বুঝেও বোঝে না। জাতীয় প্রেস ক্লাবে মঙ্গলবার দুপুরে ইন্ডিয়ান মিডিয়া করেসপন্ডেন্টস বাংলাদেশ (ইমক্যাব) আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধু : বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এসব কথা বলেন। একই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী বলেন, বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে দারুণ সম্পর্ক রয়েছে। দু’দেশের মানুষের আকাক্সক্ষার জায়গা এক। সুসম্পর্ক বাড়ালে অনেক সমস্যার সমাধান হবে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপি মিথ্যাচারে বিশ্বাসী। দলটির নেতারা গোপনে করোনা টিকা নিচ্ছেন। জনসম্মুখে তারা যেভাবে কথা বলেন, টিকাও সেভাবে জনসম্মুখে নেওয়া উচিত। আমরা তাদের স্বাস্থ্যের বিষয়ে লক্ষ্য রাখব। ভারতীয় হাইকমিশনার বলেন, আমার জন্য যা ভালো, আপনার জন্য তা ভালো, আপনার জন্য যা ভালো, আমার জন্য তা ভালো-এ নীতিতে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে।

আমাদের মধ্যে সন্দেহের কোনো জায়গা নেই। দু’দেশের মধ্যকার সম্পর্ক কেমন হবে তা বঙ্গবন্ধুর সময়েই বলা হয়ে গেছে। এর জন্য নতুন নীতিমালা করার কিছু নেই।

ইমক্যাবের সভাপতি বাসুদেব ধরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম সবুজ। অতিথি হিসাবে ছিলেন ডেইলি অবজারভার সম্পাদক ইকবাল সোবহান চৌধুরী, জাতীয় প্রেস ক্লাব সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন, বিএফইউজের সাবেক সভাপতি মনজরুল আহসান বুলবুল ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সেক্টর কমান্ডারস ফোরামের মহাসচিব হারুন হাবিব।