বঙ্গবন্ধুর হাত ধরেই লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশন: সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী
jugantor
বঙ্গবন্ধুর হাত ধরেই লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশন: সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

  যুগান্তর প্রতিবেদন, সোনারগাঁ  

০২ মার্চ ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ বলেন, বঙ্গবন্ধুর হাত ধরে বাংলার ইতিহাস, ঐতিহ্যের লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে আমরা আমাদের ঐতিহ্যকে ধরে রাখার আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছি। প্রধানমন্ত্রীর অনুগ্রহে লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের একটি প্রকল্পে ১৪৭ কোটি টাকা আমরা বরাদ্দ পেয়ে গেছি। একশ কোটি টাকার টেন্ডার হয়ে গেছে। কার্যাদেশের অনুমোদন পেলেই আমরা কাজ শুরু করব। বাকি কাজগুলো পরবর্তী টেন্ডারের মাধ্যমে শুরু করা হবে। টেন্ডারের কাজ বাস্তবায়ন করার দায়িত্ব সোনারগাঁ আসনের এমপির ওপর ন্যস্ত করা হলো। সোমবার বিকালে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে অবস্থিত বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের মাসব্যাপী লোক কারুশিল্প মেলা ও লোকজ উৎসব-২০২১ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য, জাতীয় পার্টির অতিরিক্ত মহাসচিব, প্রেসিডিয়াম সদস্য ও জাতীয় স্বেচ্ছাসেবক পার্টির সভাপতি লিয়াকত হোসেন খোকা।

বিশেষ অতিথি ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ, নারায়ণগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শেখ বিল্লাল হোসেন, সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আতিকুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের পরিচালক ড. আহমেদ উল্লাহর সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট শামসুল ইসলাম ভূঁইয়া, সোনারগাঁ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা ডেপুটি কমান্ডার ওসমান গনি প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের সিনিয়র গাইড লেকচারার একেএম মুজ্জাম্মিল হক মাসুদ।

অনুষ্ঠানে সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ আরও বলেন, অনেকেই কারুশিল্প পেশা ছেড়ে দিয়ে অন্য পেশায় যোগদান করেছে। কারুশিল্পীদের এ কাজে উজ্জীবিত করতে লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশন কাজ করে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আমরা প্রকৃত কারুশিল্পীদের দোকান বরাদ্দ দিব।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের তিন জন প্রথিতযশা কারুশিল্পী পটুয়াখালীর মৃৎশিল্পী পটারী বিশ্বেশ্বর পাল, কিশোরগঞ্জের নকশি পিঠা শিল্পী শামসুন্নাহার ও কুমিল্লার খাদি তাঁতশিল্পী চিন্তা হরন দেবনাথকে স্বর্ণপদক প্রদান করা হয়।

বঙ্গবন্ধুর হাত ধরেই লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশন: সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

 যুগান্তর প্রতিবেদন, সোনারগাঁ 
০২ মার্চ ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ বলেন, বঙ্গবন্ধুর হাত ধরে বাংলার ইতিহাস, ঐতিহ্যের লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে আমরা আমাদের ঐতিহ্যকে ধরে রাখার আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছি। প্রধানমন্ত্রীর অনুগ্রহে লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের একটি প্রকল্পে ১৪৭ কোটি টাকা আমরা বরাদ্দ পেয়ে গেছি। একশ কোটি টাকার টেন্ডার হয়ে গেছে। কার্যাদেশের অনুমোদন পেলেই আমরা কাজ শুরু করব। বাকি কাজগুলো পরবর্তী টেন্ডারের মাধ্যমে শুরু করা হবে। টেন্ডারের কাজ বাস্তবায়ন করার দায়িত্ব সোনারগাঁ আসনের এমপির ওপর ন্যস্ত করা হলো। সোমবার বিকালে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে অবস্থিত বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের মাসব্যাপী লোক কারুশিল্প মেলা ও লোকজ উৎসব-২০২১ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য, জাতীয় পার্টির অতিরিক্ত মহাসচিব, প্রেসিডিয়াম সদস্য ও জাতীয় স্বেচ্ছাসেবক পার্টির সভাপতি লিয়াকত হোসেন খোকা।

বিশেষ অতিথি ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ, নারায়ণগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শেখ বিল্লাল হোসেন, সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আতিকুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের পরিচালক ড. আহমেদ উল্লাহর সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট শামসুল ইসলাম ভূঁইয়া, সোনারগাঁ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা ডেপুটি কমান্ডার ওসমান গনি প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের সিনিয়র গাইড লেকচারার একেএম মুজ্জাম্মিল হক মাসুদ।

অনুষ্ঠানে সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ আরও বলেন, অনেকেই কারুশিল্প পেশা ছেড়ে দিয়ে অন্য পেশায় যোগদান করেছে। কারুশিল্পীদের এ কাজে উজ্জীবিত করতে লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশন কাজ করে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আমরা প্রকৃত কারুশিল্পীদের দোকান বরাদ্দ দিব।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের তিন জন প্রথিতযশা কারুশিল্পী পটুয়াখালীর মৃৎশিল্পী পটারী বিশ্বেশ্বর পাল, কিশোরগঞ্জের নকশি পিঠা শিল্পী শামসুন্নাহার ও কুমিল্লার খাদি তাঁতশিল্পী চিন্তা হরন দেবনাথকে স্বর্ণপদক প্রদান করা হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন