মতিন খসরুর আসনে প্রার্থী হতে দৌড়ঝাঁপ
jugantor
মতিন খসরুর আসনে প্রার্থী হতে দৌড়ঝাঁপ
আলোচনায় ২১ নেতা

  ব্রাহ্মণপাড়া ও বুড়িচং (কুমিল্লা) প্রতিনিধি  

২৩ এপ্রিল ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

মতিন খসরুর আসনে প্রার্থী হতে দৌড়ঝাঁপ

কুমিল্লা-৫ (বুড়িচং-ব্রাহ্মণপাড়া) সংসদীয় আসনে ’৮০-এর দশকের শুরু থেকেই অনেকটা অপ্রতিদ্বন্দ্বী নেতা হিসাবে আত্মপ্রকাশ করেছিলেন প্রয়াত এমপি, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, সাবেক আইন বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী অ্যাড. আব্দুল মতিন খসরু।

১৪ এপ্রিল এই নেতার মৃত্যুতে আসনটি শূন্য হয়ে যায়। এ আসনের উপ-নির্বাচনের দিন ঘোষণা না হলেও প্রার্থিতার জন্য দৌড়ঝাঁপ শুরু হয়েছে। এতে আলোচনায় এসেছে ২১ জনের নাম।

প্রার্থী হতে ইচ্ছুক কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আ.লীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন। তিনি যুগান্তরকে বলেন, বুড়িচং-ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার দলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, প্রয়াত এমপির স্ত্রী, ভাই, সেলিম রেজা সৌরভসহ নেতৃত্বে থাকা অন্যদের নিয়ে পরামর্শ করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তবে সবচেয়ে বড় কথা নেত্রী যাকে মনোনয়ন দেন তার পক্ষে কাজ করব।

শূন্য আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী বুড়িচং উপজেলার আ.লীগের সভাপতি অ্যাড. আবুল হাশেম খানও। তিনি যুগান্তরকে বলেন, প্রয়াত এমপি মতিন খসরুর সঙ্গে আমার পথ চলা ১৯৬৯ সাল থেকে। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত ৫২ বছর আমরা একসঙ্গে রাজনীতি করি।

আরেক মনোনয়ন প্রত্যাশী বুড়িচং উপজেলা আ.লীগের সহ-সভাপতি, রিহ্যাবের পরিচালক ও পেশাজীবী কল্যাণ সমিতি বপেকসের সাধারণ সম্পাদক লায়ন ইঞ্জি মো. আল আমিন বলেন, প্রয়াত এমপি আব্দুল মতিন খসরুর সঙ্গে থেকে আমি দীর্ঘদিন ধরে রাজনৈতিক ও সামাজিক কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছি।

প্রার্থিতার ব্যাপারে বুড়িচং উপজেলা চেয়ারম্যান আখলাক হায়দার বলেন, প্রয়াত এমপির পরিবারের ৪ জন রয়েছেন। দল যাকে মনোনয়ন দেয় আমরা তার পক্ষে কাজ করব। এ সময় তিনি নিজেও প্রার্থী হওয়ার ইচ্ছার কথা জানান।

আবদুল মতিন খসরুর আপন সহোদর অ্যাড. আবদুল মমিন ফেরদৌস বলেন, পরিবারের পক্ষ থেকে তার ছেলে মুনেফ ওয়াসিফ ও মেয়ে ডা. উম্মে হাবিবা দিলশাদ মুনমুন যদি প্রার্র্থী না হয় তবে আমি নির্বাচনে প্রার্র্থী হতে চাই।

এ ছাড়াও মতিন খসরুর শূন্য আসনে প্রার্থী হতে চান এক সময়ের চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ নেতা অধ্যক্ষ সেলিম রেজা সৌরভ, ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা আ.লীগ সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর খান চৌধুরী, ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা আ.লীগ সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. আব্দুল বারী, অধ্যক্ষ মো. আলী চৌধুরী মানিক, মেজর জেনারেল (অব.) মোস্তাফিজুর রহমান, আব্দুস সালাম বেগ, আওয়ামী লীগ নেতা শাহজালাল মজুমদার, তারিক হায়দার, সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামের আইন সম্পাদক ব্যারিস্টার সোহরার খান চৌধুরী, বিএলএম গ্রুপের চেয়ারম্যান এম.এ মতিন, যুবলীগ নেতা এহতেশামুল হাসান ভূইয়া রুমি, আব্দুল জলিল, আবু জাহের ও দিদার মো. নিজামুল ইসলাম।

এদিকে প্রয়াত এমপির স্ত্রী সেলিনা সোবহান খসরু যুগান্তরকে বলেন, আমরা এখনও শোক কাটিয়ে উঠতে পারিনি। এ বিষয়ে এখনো চিন্তা করি নাই। আগামীতে কেন্দ্র ও দুই উপজেলার নেতারাসহ জনগণ যদি আমাকে প্রয়োজন মনে করে তবে বিষয়টা আমি ভেবে দেখব।

মতিন খসরুর আসনে প্রার্থী হতে দৌড়ঝাঁপ

আলোচনায় ২১ নেতা
 ব্রাহ্মণপাড়া ও বুড়িচং (কুমিল্লা) প্রতিনিধি 
২৩ এপ্রিল ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
মতিন খসরুর আসনে প্রার্থী হতে দৌড়ঝাঁপ
প্রয়াত মতিন খসরু ও কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আ.লীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন

কুমিল্লা-৫ (বুড়িচং-ব্রাহ্মণপাড়া) সংসদীয় আসনে ’৮০-এর দশকের শুরু থেকেই অনেকটা অপ্রতিদ্বন্দ্বী নেতা হিসাবে আত্মপ্রকাশ করেছিলেন প্রয়াত এমপি, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, সাবেক আইন বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী অ্যাড. আব্দুল মতিন খসরু।

১৪ এপ্রিল এই নেতার মৃত্যুতে আসনটি শূন্য হয়ে যায়। এ আসনের উপ-নির্বাচনের দিন ঘোষণা না হলেও প্রার্থিতার জন্য দৌড়ঝাঁপ শুরু হয়েছে। এতে আলোচনায় এসেছে ২১ জনের নাম।

প্রার্থী হতে ইচ্ছুক কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আ.লীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন। তিনি যুগান্তরকে বলেন, বুড়িচং-ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার দলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, প্রয়াত এমপির স্ত্রী, ভাই, সেলিম রেজা সৌরভসহ নেতৃত্বে থাকা অন্যদের নিয়ে পরামর্শ করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তবে সবচেয়ে বড় কথা নেত্রী যাকে মনোনয়ন দেন তার পক্ষে কাজ করব।

শূন্য আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী বুড়িচং উপজেলার আ.লীগের সভাপতি অ্যাড. আবুল হাশেম খানও। তিনি যুগান্তরকে বলেন, প্রয়াত এমপি মতিন খসরুর সঙ্গে আমার পথ চলা ১৯৬৯ সাল থেকে। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত ৫২ বছর আমরা একসঙ্গে রাজনীতি করি।

আরেক মনোনয়ন প্রত্যাশী বুড়িচং উপজেলা আ.লীগের সহ-সভাপতি, রিহ্যাবের পরিচালক ও পেশাজীবী কল্যাণ সমিতি বপেকসের সাধারণ সম্পাদক লায়ন ইঞ্জি মো. আল আমিন বলেন, প্রয়াত এমপি আব্দুল মতিন খসরুর সঙ্গে থেকে আমি দীর্ঘদিন ধরে রাজনৈতিক ও সামাজিক কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছি।

প্রার্থিতার ব্যাপারে বুড়িচং উপজেলা চেয়ারম্যান আখলাক হায়দার বলেন, প্রয়াত এমপির পরিবারের ৪ জন রয়েছেন। দল যাকে মনোনয়ন দেয় আমরা তার পক্ষে কাজ করব। এ সময় তিনি নিজেও প্রার্থী হওয়ার ইচ্ছার কথা জানান।

আবদুল মতিন খসরুর আপন সহোদর অ্যাড. আবদুল মমিন ফেরদৌস বলেন, পরিবারের পক্ষ থেকে তার ছেলে মুনেফ ওয়াসিফ ও মেয়ে ডা. উম্মে হাবিবা দিলশাদ মুনমুন যদি প্রার্র্থী না হয় তবে আমি নির্বাচনে প্রার্র্থী হতে চাই।

এ ছাড়াও মতিন খসরুর শূন্য আসনে প্রার্থী হতে চান এক সময়ের চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ নেতা অধ্যক্ষ সেলিম রেজা সৌরভ, ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা আ.লীগ সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর খান চৌধুরী, ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা আ.লীগ সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. আব্দুল বারী, অধ্যক্ষ মো. আলী চৌধুরী মানিক, মেজর জেনারেল (অব.) মোস্তাফিজুর রহমান, আব্দুস সালাম বেগ, আওয়ামী লীগ নেতা শাহজালাল মজুমদার, তারিক হায়দার, সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামের আইন সম্পাদক ব্যারিস্টার সোহরার খান চৌধুরী, বিএলএম গ্রুপের চেয়ারম্যান এম.এ মতিন, যুবলীগ নেতা এহতেশামুল হাসান ভূইয়া রুমি, আব্দুল জলিল, আবু জাহের ও দিদার মো. নিজামুল ইসলাম।

এদিকে প্রয়াত এমপির স্ত্রী সেলিনা সোবহান খসরু যুগান্তরকে বলেন, আমরা এখনও শোক কাটিয়ে উঠতে পারিনি। এ বিষয়ে এখনো চিন্তা করি নাই। আগামীতে কেন্দ্র ও দুই উপজেলার নেতারাসহ জনগণ যদি আমাকে প্রয়োজন মনে করে তবে বিষয়টা আমি ভেবে দেখব।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন