উদাসীনতায় করোনা সংক্রমণে আজ জনজীবন বিপন্ন: মির্জা ফখরুল
jugantor
উদাসীনতায় করোনা সংক্রমণে আজ জনজীবন বিপন্ন: মির্জা ফখরুল

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৪ জুলাই ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সরকারের উদাসীনতা ও অযোগ্যতার কারণেই করোনা সংক্রমণে জনজীবন বিপন্ন বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বুধবার ঈদের নামাজ শেষে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মাজার জিয়ারতের পর সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

সকালে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও নজরুল ইসলাম খানকে নিয়ে বিএনপি মহাসচিব শেরেবাংলা নগরে জিয়াউর রহমানের মাজারে যান। তারা সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ফাতেহা পাঠ করে বিশেষ মোনাজাত করেন। এছাড়া ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি ও কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল, সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম নিরব ও সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েল, তাঁতী দলের আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদ, ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েলসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মী জিয়াউর রহমানের মাজারে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন।

মির্জা ফখরুল বলেন- এই দোয়া করেছি যে, ভয়াবহ মহামারি যা সারাবিশ্বে গোটা মানবজাতিকে বিপন্ন করে ফেলেছে আল্লাহতায়ালা যেন তা থেকে রক্ষা করেন। এই দেশের মানুষকে ক্ষমা করেন এবং এই ভয়াবহ মহামারি থেকে তাদের মুক্ত করেন। ঈদ উদযাপন প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, এমন একটা সময় আমরা ঈদুল আজহা উদযাপন করছি, যখন আমাদের চেয়ারপারসন সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া যিনি সারাজীবন ত্যাগস্বীকার করে এদেশের মানুষের কল্যাণের জন্য কাজ করেছেন, গণতন্ত্রের জন্য কাজ করেছেন, তিনি আজ কারারুদ্ধ হয়ে আছেন অসুস্থাবস্থায়। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান তিনি দেশান্তরী হয়ে নির্বাসিত অবস্থায় আছেন। লাখ লাখ মানুষ মিথ্যা মামলায় জর্জরিত হচ্ছে, গুম হয়ে যাচ্ছে। দেশে কোনো গণতন্ত্র নেই। এই অবস্থা থেকে উত্তরণ ঘটাতে হবে।

উদাসীনতায় করোনা সংক্রমণে আজ জনজীবন বিপন্ন: মির্জা ফখরুল

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৪ জুলাই ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সরকারের উদাসীনতা ও অযোগ্যতার কারণেই করোনা সংক্রমণে জনজীবন বিপন্ন বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বুধবার ঈদের নামাজ শেষে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মাজার জিয়ারতের পর সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

সকালে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও নজরুল ইসলাম খানকে নিয়ে বিএনপি মহাসচিব শেরেবাংলা নগরে জিয়াউর রহমানের মাজারে যান। তারা সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ফাতেহা পাঠ করে বিশেষ মোনাজাত করেন। এছাড়া ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি ও কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল, সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম নিরব ও সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েল, তাঁতী দলের আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদ, ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েলসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মী জিয়াউর রহমানের মাজারে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন।

মির্জা ফখরুল বলেন- এই দোয়া করেছি যে, ভয়াবহ মহামারি যা সারাবিশ্বে গোটা মানবজাতিকে বিপন্ন করে ফেলেছে আল্লাহতায়ালা যেন তা থেকে রক্ষা করেন। এই দেশের মানুষকে ক্ষমা করেন এবং এই ভয়াবহ মহামারি থেকে তাদের মুক্ত করেন। ঈদ উদযাপন প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, এমন একটা সময় আমরা ঈদুল আজহা উদযাপন করছি, যখন আমাদের চেয়ারপারসন সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া যিনি সারাজীবন ত্যাগস্বীকার করে এদেশের মানুষের কল্যাণের জন্য কাজ করেছেন, গণতন্ত্রের জন্য কাজ করেছেন, তিনি আজ কারারুদ্ধ হয়ে আছেন অসুস্থাবস্থায়। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান তিনি দেশান্তরী হয়ে নির্বাসিত অবস্থায় আছেন। লাখ লাখ মানুষ মিথ্যা মামলায় জর্জরিত হচ্ছে, গুম হয়ে যাচ্ছে। দেশে কোনো গণতন্ত্র নেই। এই অবস্থা থেকে উত্তরণ ঘটাতে হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন