রাজৈরে হৃদয়ের বাড়িতে শোকের মাতম
jugantor
ভূমধ্যসাগরে হিটস্ট্রোকে মৃত্যু
রাজৈরে হৃদয়ের বাড়িতে শোকের মাতম

  টেকেরহাট (মাদারীপুর) প্রতিনিধি  

২৫ জুলাই ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

অবৈধভাবে সমুদ্রপথে ইতালি যাওয়ার সময় লিবিয়ার ভূমধ্যসাগরে হিটস্ট্রোকে প্রাণ গেছে মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার টেকেরহাট ঘোসালকান্দি গ্রামের মোশারফ কাজীর ছেলে হৃদয় কাজীর। শনিবার সকালে হৃদয় কাজীর বাড়ি গেলে দেখা যায় পরিবারজুড়ে চলছে শোকের মাতম। এ ঘটনায় দালালদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জানিয়েছেন স্বজন ও এলাকাবাসী।

স্বজনরা জানান, তিন মাস আগে দালালদের খপ্পরে পড়ে হৃদয় লিবিয়ায় আটকা পড়ে। ১৯ জুলাই লিবিয়া থেকে ইঞ্জিনচালিত নৌকায় দালালরা ইতালির উদ্দেশ্যে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিতে বাধ্য করে। পরে মাঝপথে নষ্ট হয়ে যায় নৌকাটি। এ সময় প্রচণ্ড রোদে হিটস্ট্রোকে প্রাণ হারায় হৃদয় কাজী।

একই নৌকায় থাকা হৃদয় কাজীর বন্ধু হৃদয় শেখ পরিবারের সদস্যদের জানান, হৃদয় কাজী আমার কোলেই পানি পানি করতে করতে মারা গিয়েছে। আমিও অসুস্থ হয়ে চিকিৎসাধীন আছি। এছাড়াও একই উপজেলার ছাতিয়ানবাড়ী গ্রামের সাধন বিশ্বাস, হোসেনপুরের জিন্নাত শেখ ও শংকরদী গ্রামের সাগর সিকদারও চিকিৎসাধীন।

হৃদয় কাজীর মা কোমেলা বেগম কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, আমার ছেলে হৃদয় কাজীর সঙ্গে সর্বশেষ আমার ১৭ জুলাই ফোনে কথা হয়েছে। তখন আমার ছেলে কেঁদে কেঁদে আমাকে বার বার বলছিল মা আমাকে দালালরা মারধর করে। ঠিকমতো খাবার দেয় না।

এলাকাবাসী জানায়, গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলার বড়দিয়া গ্রামের মানবপাচারচক্রের সদস্য আক্কাস ফকিরের ছেলে ইলিয়াছ ফকির ও টুটুল ফকির ইতালি যাওয়ার স্বপ্ন দেখিয়ে হৃদয়ের পরিবারের কাছ থেকে দুই দফা আদায় করে ৭ লাখ ৪০ হাজার টাকা।

রাজৈর থানার ওসি (তদন্ত) আনোয়ার হোসেন বলেন, এ ব্যাপারে পরিবার থেকে অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ভূমধ্যসাগরে হিটস্ট্রোকে মৃত্যু

রাজৈরে হৃদয়ের বাড়িতে শোকের মাতম

 টেকেরহাট (মাদারীপুর) প্রতিনিধি 
২৫ জুলাই ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

অবৈধভাবে সমুদ্রপথে ইতালি যাওয়ার সময় লিবিয়ার ভূমধ্যসাগরে হিটস্ট্রোকে প্রাণ গেছে মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার টেকেরহাট ঘোসালকান্দি গ্রামের মোশারফ কাজীর ছেলে হৃদয় কাজীর। শনিবার সকালে হৃদয় কাজীর বাড়ি গেলে দেখা যায় পরিবারজুড়ে চলছে শোকের মাতম। এ ঘটনায় দালালদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জানিয়েছেন স্বজন ও এলাকাবাসী।

স্বজনরা জানান, তিন মাস আগে দালালদের খপ্পরে পড়ে হৃদয় লিবিয়ায় আটকা পড়ে। ১৯ জুলাই লিবিয়া থেকে ইঞ্জিনচালিত নৌকায় দালালরা ইতালির উদ্দেশ্যে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিতে বাধ্য করে। পরে মাঝপথে নষ্ট হয়ে যায় নৌকাটি। এ সময় প্রচণ্ড রোদে হিটস্ট্রোকে প্রাণ হারায় হৃদয় কাজী।

একই নৌকায় থাকা হৃদয় কাজীর বন্ধু হৃদয় শেখ পরিবারের সদস্যদের জানান, হৃদয় কাজী আমার কোলেই পানি পানি করতে করতে মারা গিয়েছে। আমিও অসুস্থ হয়ে চিকিৎসাধীন আছি। এছাড়াও একই উপজেলার ছাতিয়ানবাড়ী গ্রামের সাধন বিশ্বাস, হোসেনপুরের জিন্নাত শেখ ও শংকরদী গ্রামের সাগর সিকদারও চিকিৎসাধীন।

হৃদয় কাজীর মা কোমেলা বেগম কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, আমার ছেলে হৃদয় কাজীর সঙ্গে সর্বশেষ আমার ১৭ জুলাই ফোনে কথা হয়েছে। তখন আমার ছেলে কেঁদে কেঁদে আমাকে বার বার বলছিল মা আমাকে দালালরা মারধর করে। ঠিকমতো খাবার দেয় না।

এলাকাবাসী জানায়, গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলার বড়দিয়া গ্রামের মানবপাচারচক্রের সদস্য আক্কাস ফকিরের ছেলে ইলিয়াছ ফকির ও টুটুল ফকির ইতালি যাওয়ার স্বপ্ন দেখিয়ে হৃদয়ের পরিবারের কাছ থেকে দুই দফা আদায় করে ৭ লাখ ৪০ হাজার টাকা।

রাজৈর থানার ওসি (তদন্ত) আনোয়ার হোসেন বলেন, এ ব্যাপারে পরিবার থেকে অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন