সম্মেলনের দেড় বছর পর পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন
jugantor
যশোর জেলা আ.লীগ
সম্মেলনের দেড় বছর পর পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন

  যশোর ব্যুরো  

৩১ জুলাই ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

যশোর জেলা আওয়ামী লীগের ৯৪ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ৭৫ সদস্যের নির্বাহী ও ১৯ সদস্যের উপদেষ্টা পরিষদ রয়েছে। সম্মেলনের দেড় বছর পর শুক্রবার আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের তিন বছর মেয়াদি এ কমিটি অনুমোদন দেন। ২০১৯ সালের ২৭ নভেম্বর যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সেই সম্মেলনে শহীদুল ইসলাম মিলনকে সভাপতি ও শাহীন চাকলাদারকে সাধারণ সম্পাদক করে ২২ সদস্যের আংশিক কমিটি ঘোষণা করেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। এক বছর ৮ মাস পর সেই কমিটি পূর্ণাঙ্গ করা হলো।

সংশ্লিষ্টদের দাবি, পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে প্রবীণদের পাশাপাশি নতুনদের জায়গা করে দেওয়া হয়েছে। আবার উপজেলা কমিটির শীর্ষ নেতাদের জেলা কমিটির সদস্য ও উপদেষ্টা পরিষদে রাখা হয়েছে। আওয়ামী লীগের সাবেক ও বর্তমান নেতাদের স্ত্রী-সন্তানও কমিটিতে স্থান পেয়েছেন। সর্বশেষ উপজেলা ও পৌর নির্বাচনের বিদ্রোহীদের কমিটিতে জায়গা হয়নি।

পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে সহ-সভাপতি হিসাবে পদে আব্দুল মজিদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা হায়দার গনি খান পলাশ, সাইফুজ্জামান পিকুল, আব্দুল খালেক, বীর মুক্তিযোদ্ধা একেএম খয়রাত হোসেন, অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আলী রায়হান, গোলাম মোস্তফা, অ্যাভোকেট জহুর আহমেদ, অ্যাডভোকেট এবিএম আহসানুল হক, মেহেদী হাসান মিন্টু ?ও এসএম হুমায়ুন কবীর কবু। যদিও সম্মেলনের দিন ঘোষিত ২২ সদস্যের আংশিক কমিটিতে নির্বাহী সদস্য করা হয়েছিল সাইফুজ্জামান পিকুলকে।

যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে অ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলাম, আশরাফুল আলম লিটন ও মীর জহুরুল ইসলাম, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাভোকেট গাজী আব্দুল কাদের, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবু সেলিম রানা, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক ফারুক আহমেদ কচি, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সুখেন মজুমদার, দপ্তর সম্পাদক মজিবুদ্দৌলা কনক, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক খলিলুর রহমান, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মুন্সী মহিউদ্দিন আহমেদ, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক সাইফুদ্দিন সাইফ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আশরাফুল কবির বিপুল ফারাজী, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সেতারা খাতুন, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ হারুনুর রশিদ, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক জিয়াউল হাসান হ্যাপী, শিক্ষা মানব সম্পাদক বিষয়ক সম্পাদক এএসএম আশিফুদ্দৌলা, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক শেখ আতিকুর বাবু, শ্রম সম্পাদক কাজী আবদুস সবুর হেলাল, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক কাজী বর্ণ উত্তম, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পদাক ডা. এমএ বাশার, সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম আফজাল হোসেন, মোস্তফা ফরিদ আহমেদ চৌধুরী ও জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টু, উপ-দপ্তর সম্পাদক ওহিদুল ইসলাম তরফদার, উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক লুৎফুল কবীর বিজু ও কোষাধ্যক্ষ করা হয়েছে মঈনুল আলম টুলুকে।

কমিটির সদস্যরা হলেন-প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য, সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ, আফিল উদ্দিন এমপি, রনজিত রায় এমপি, মেজর জেনারেল (অব.) অধ্যক্ষ নাসির উদ্দিন এমপি, মোহিত কুমার রায়, আলেয়া আফরোজ, মিসেস ফিরোজা রেজা আলী, বীর মুক্তিযোদ্ধা শরীফ খাইরুজ্জামান রয়েল, এনামুল হক বাবুল, কৃষিবিদ আবদুস সালাম, ফারুক হোসেন, সরদার অলিয়ার রহমান, মেহেদী মাসুদ চৌধুরী, শওকত আলী, আসাদুজ্জামান মিঠু, আসাদুজ্জামান আসাদ, মীর আরশাদ আলী রহমান, আনোয়ার হোসেন মোস্তাক, মোস্তাফা আশিষ দেবু, প্রভাষক দেলোয়ার হোসেন দিপু, কামাল হোসেন (শহর), অধ্যাপক মোয়াজ্জেম হোসেন, রফিকুল ইসলাম মোড়ল, মসিউর রহমান সাগর, অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম তুহিন, ইঞ্জিনিয়ার আরশাদ পারভেজ, এহসানুর রহমান লিটু, গোলাম মোস্তফা, সামির ইসলাম পিয়াস, আলমুন ইসলাম পিপুল, অমিত কুমার বসু, নাজমা খানম, ভিক্টোরিয়া পারভিন সাথি, হুমায়ুন সুলতান ও মারুফ হোসেন খোকন।

১৯ সদস্যের উপদেষ্টা পরিষদে রাখা হয়েছে অ্যাডভোকেট মঈনুদ্দিন মিয়াজি, নজরুল ইসলাম ঝর্ণা, অধ্যাপক মাহমুদুল হাসান (মনিরামপুর), মাস্টার রুহুল আমিন, গোলাম মোস্তফা খোকন, জাহাঙ্গীর আলম মুকুল (ঝিকরগাছা), সৈয়দ ওসমান মঞ্জুর জানু, অ্যাডভোকেট মঞ্জুরুল ইমাম, এসএম কামরুজ্জামান চুন্নু, গোলাম রসুল (শার্শা), প্রণব ধর, জয়নাল আবেদীন (শ্রমিক নেতা), আলহাজ নওশের আলী (ঝিকরগাছা), মিজানুর রহমান মৃধা (চৌগাছা), অ্যাডভোকেট আবুল হোসেন খান, আব্দুল মান্নান মিনু, মোবাশ্বের হোসেন বাবু, আলহাজ আহসান উল্লাহ মাস্টার ও সোলায়মান হোসেন।

যশোর জেলা আ.লীগ

সম্মেলনের দেড় বছর পর পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন

 যশোর ব্যুরো 
৩১ জুলাই ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

যশোর জেলা আওয়ামী লীগের ৯৪ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ৭৫ সদস্যের নির্বাহী ও ১৯ সদস্যের উপদেষ্টা পরিষদ রয়েছে। সম্মেলনের দেড় বছর পর শুক্রবার আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের তিন বছর মেয়াদি এ কমিটি অনুমোদন দেন। ২০১৯ সালের ২৭ নভেম্বর যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সেই সম্মেলনে শহীদুল ইসলাম মিলনকে সভাপতি ও শাহীন চাকলাদারকে সাধারণ সম্পাদক করে ২২ সদস্যের আংশিক কমিটি ঘোষণা করেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। এক বছর ৮ মাস পর সেই কমিটি পূর্ণাঙ্গ করা হলো।

সংশ্লিষ্টদের দাবি, পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে প্রবীণদের পাশাপাশি নতুনদের জায়গা করে দেওয়া হয়েছে। আবার উপজেলা কমিটির শীর্ষ নেতাদের জেলা কমিটির সদস্য ও উপদেষ্টা পরিষদে রাখা হয়েছে। আওয়ামী লীগের সাবেক ও বর্তমান নেতাদের স্ত্রী-সন্তানও কমিটিতে স্থান পেয়েছেন। সর্বশেষ উপজেলা ও পৌর নির্বাচনের বিদ্রোহীদের কমিটিতে জায়গা হয়নি।

পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে সহ-সভাপতি হিসাবে পদে আব্দুল মজিদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা হায়দার গনি খান পলাশ, সাইফুজ্জামান পিকুল, আব্দুল খালেক, বীর মুক্তিযোদ্ধা একেএম খয়রাত হোসেন, অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আলী রায়হান, গোলাম মোস্তফা, অ্যাভোকেট জহুর আহমেদ, অ্যাডভোকেট এবিএম আহসানুল হক, মেহেদী হাসান মিন্টু ?ও এসএম হুমায়ুন কবীর কবু। যদিও সম্মেলনের দিন ঘোষিত ২২ সদস্যের আংশিক কমিটিতে নির্বাহী সদস্য করা হয়েছিল সাইফুজ্জামান পিকুলকে।

যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে অ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলাম, আশরাফুল আলম লিটন ও মীর জহুরুল ইসলাম, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাভোকেট গাজী আব্দুল কাদের, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবু সেলিম রানা, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক ফারুক আহমেদ কচি, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সুখেন মজুমদার, দপ্তর সম্পাদক মজিবুদ্দৌলা কনক, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক খলিলুর রহমান, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মুন্সী মহিউদ্দিন আহমেদ, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক সাইফুদ্দিন সাইফ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আশরাফুল কবির বিপুল ফারাজী, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সেতারা খাতুন, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ হারুনুর রশিদ, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক জিয়াউল হাসান হ্যাপী, শিক্ষা মানব সম্পাদক বিষয়ক সম্পাদক এএসএম আশিফুদ্দৌলা, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক শেখ আতিকুর বাবু, শ্রম সম্পাদক কাজী আবদুস সবুর হেলাল, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক কাজী বর্ণ উত্তম, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পদাক ডা. এমএ বাশার, সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম আফজাল হোসেন, মোস্তফা ফরিদ আহমেদ চৌধুরী ও জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টু, উপ-দপ্তর সম্পাদক ওহিদুল ইসলাম তরফদার, উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক লুৎফুল কবীর বিজু ও কোষাধ্যক্ষ করা হয়েছে মঈনুল আলম টুলুকে।

কমিটির সদস্যরা হলেন-প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য, সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ, আফিল উদ্দিন এমপি, রনজিত রায় এমপি, মেজর জেনারেল (অব.) অধ্যক্ষ নাসির উদ্দিন এমপি, মোহিত কুমার রায়, আলেয়া আফরোজ, মিসেস ফিরোজা রেজা আলী, বীর মুক্তিযোদ্ধা শরীফ খাইরুজ্জামান রয়েল, এনামুল হক বাবুল, কৃষিবিদ আবদুস সালাম, ফারুক হোসেন, সরদার অলিয়ার রহমান, মেহেদী মাসুদ চৌধুরী, শওকত আলী, আসাদুজ্জামান মিঠু, আসাদুজ্জামান আসাদ, মীর আরশাদ আলী রহমান, আনোয়ার হোসেন মোস্তাক, মোস্তাফা আশিষ দেবু, প্রভাষক দেলোয়ার হোসেন দিপু, কামাল হোসেন (শহর), অধ্যাপক মোয়াজ্জেম হোসেন, রফিকুল ইসলাম মোড়ল, মসিউর রহমান সাগর, অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম তুহিন, ইঞ্জিনিয়ার আরশাদ পারভেজ, এহসানুর রহমান লিটু, গোলাম মোস্তফা, সামির ইসলাম পিয়াস, আলমুন ইসলাম পিপুল, অমিত কুমার বসু, নাজমা খানম, ভিক্টোরিয়া পারভিন সাথি, হুমায়ুন সুলতান ও মারুফ হোসেন খোকন।

১৯ সদস্যের উপদেষ্টা পরিষদে রাখা হয়েছে অ্যাডভোকেট মঈনুদ্দিন মিয়াজি, নজরুল ইসলাম ঝর্ণা, অধ্যাপক মাহমুদুল হাসান (মনিরামপুর), মাস্টার রুহুল আমিন, গোলাম মোস্তফা খোকন, জাহাঙ্গীর আলম মুকুল (ঝিকরগাছা), সৈয়দ ওসমান মঞ্জুর জানু, অ্যাডভোকেট মঞ্জুরুল ইমাম, এসএম কামরুজ্জামান চুন্নু, গোলাম রসুল (শার্শা), প্রণব ধর, জয়নাল আবেদীন (শ্রমিক নেতা), আলহাজ নওশের আলী (ঝিকরগাছা), মিজানুর রহমান মৃধা (চৌগাছা), অ্যাডভোকেট আবুল হোসেন খান, আব্দুল মান্নান মিনু, মোবাশ্বের হোসেন বাবু, আলহাজ আহসান উল্লাহ মাস্টার ও সোলায়মান হোসেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন