২৫ বছর পর বাবা মাকে খুঁজে পেল আকলিমা
jugantor
এফএম রেডিও’র ‘আপন ঠিকানা’
২৫ বছর পর বাবা মাকে খুঁজে পেল আকলিমা

  গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

গফরগাঁও উপজেলার আকলিমা খাতুন ওরফে আঁখি নূর ২৫ বছর পর তার বাবা-মাকে খুঁজে পেয়েছেন। ১৯৯৬ সালে ছয় বছর বয়সে তিনি বাবার সঙ্গে ঢাকায় বেড়াতে গিয়ে হারিয়ে যান। ১৬ সেপ্টেম্বর আরজে কিবরিয়ার এফএম রেডিও’র ‘আপন ঠিকানায়’ আকলিমার সাক্ষাৎকার প্রচারিত হলে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। সাক্ষাৎকারটি শুনে বাবা মানিক মিয়া তার মেয়েকে (আকলিমার) চিনতে পারেন। এরপর তাদের মধ্যে যোগাযোগ হয়। বর্তমানে স্বামী ও দুই সন্তান নিয়ে আকলিমা বাবার বাড়ি অবস্থান করছেন। গফরগাঁও উপজেলার পাগলা থানার মাইজবাড়ি গ্রামের মানিক মিয়ার মেয়ে আকলিমার ঢাকার আশুলিয়ায় বিয়ে হয়েছে। তার স্বামীর নাম মাসুম মোল্লা।

মানিক মিয়া (৬০) জানান, ১৯৯৬ সালে বড় মেয়ে আকলিমাকে নিয়ে তিনি ঢাকায় বেড়াতে যান। গুলিস্তান মোড়ের একটি পান দোকানের সামনে মেয়েকে দাঁড় করিয়ে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে তিনি একটু সামনে যান। সেখানে গিয়ে তিনি ছিনতাইকারীর কবলে পড়েন। দীর্ঘ সময় তাকে আটকে রেখে টাকা-পয়সা কেড়ে নিয়ে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। মোড়ে গিয়ে মেয়েকে আর তিনি পাননি। মানিক মিয়া আরও বলেন, এরপর শহরের বহু জায়গায় খোঁজাখুঁজি ও মাইকিং করেছি। থানায় জিডি, পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দিয়েছি। কিন্তু মেয়ের কোনো সন্ধান পায়নি। মেয়েকে না পেয়ে ২৫ বছর ধরে বুকে কষ্ট চাপা দিয়ে রেখেছি। মেয়েকে না পেয়ে নিজেকে কিছুতেই ক্ষমা করতে পারছিলাম না। দুই ছেলে ও দুই মেয়ের জনক মানিক মিয়া বলেন, অবশেষে আরজে কিবরিয়ার এফএম রেডিও’র বদৌলতে মেয়েকে খুঁজে পেয়েছি। এ জন্য রেডিওটির প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।

আকলিমা খাতুন (৩১) জানান, ওইদিন অনেকক্ষণ গুলিস্তান মোড়ে অবস্থান করার পরও বাবাকে না পেয়ে আমি একটি বাসে উঠে পড়ি। বাসে কান্নাকাটি করায় এক লোক আমাকে সেখান থেকে একটি আশ্রয় কেন্দ্রে নিয়ে যান। গ্রামের নাম-ঠিকানা বলতে না পারায় আশ্রয় কেন্দ্রে আমি আঁখি নূর নামে বড় হয়ে উঠি। সেখানেই আমার বিয়ে হয়। এরপর স্বামী মাসুম মোল্লার সঙ্গে আশুলিয়ায় চলে যাই। আমার এক মেয়ে ও এক ছেলে।

আকলিমা আরও জানান, বাবা-মার খোঁজে আমি আরজে কিবরিয়ার এফএম রেডিও’র ‘আপন ঠিকানায়’ সাক্ষাৎকারের জন্য আবেদন করি। দীর্ঘদিন অপেক্ষার পর আমার সাক্ষাৎকারের ডাক পড়ে। সাক্ষাৎকারটি প্রচারের পর বাবা-মার খোঁজ পান।

আকলিমার স্বামী মাসুম মোল্লা বলেন, আমি সবকিছু জেনে তাকে বিয়ে করেছি। বিয়ের পর থেকে তার বাবা-মার খোঁজে অনেক জায়গায় ছুটাছুটি করেছি। শ্বশুর-শাশুড়ি পেয়ে আমি খুশি।

এফএম রেডিও’র ‘আপন ঠিকানা’

২৫ বছর পর বাবা মাকে খুঁজে পেল আকলিমা

 গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

গফরগাঁও উপজেলার আকলিমা খাতুন ওরফে আঁখি নূর ২৫ বছর পর তার বাবা-মাকে খুঁজে পেয়েছেন। ১৯৯৬ সালে ছয় বছর বয়সে তিনি বাবার সঙ্গে ঢাকায় বেড়াতে গিয়ে হারিয়ে যান। ১৬ সেপ্টেম্বর আরজে কিবরিয়ার এফএম রেডিও’র ‘আপন ঠিকানায়’ আকলিমার সাক্ষাৎকার প্রচারিত হলে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। সাক্ষাৎকারটি শুনে বাবা মানিক মিয়া তার মেয়েকে (আকলিমার) চিনতে পারেন। এরপর তাদের মধ্যে যোগাযোগ হয়। বর্তমানে স্বামী ও দুই সন্তান নিয়ে আকলিমা বাবার বাড়ি অবস্থান করছেন। গফরগাঁও উপজেলার পাগলা থানার মাইজবাড়ি গ্রামের মানিক মিয়ার মেয়ে আকলিমার ঢাকার আশুলিয়ায় বিয়ে হয়েছে। তার স্বামীর নাম মাসুম মোল্লা।

মানিক মিয়া (৬০) জানান, ১৯৯৬ সালে বড় মেয়ে আকলিমাকে নিয়ে তিনি ঢাকায় বেড়াতে যান। গুলিস্তান মোড়ের একটি পান দোকানের সামনে মেয়েকে দাঁড় করিয়ে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে তিনি একটু সামনে যান। সেখানে গিয়ে তিনি ছিনতাইকারীর কবলে পড়েন। দীর্ঘ সময় তাকে আটকে রেখে টাকা-পয়সা কেড়ে নিয়ে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। মোড়ে গিয়ে মেয়েকে আর তিনি পাননি। মানিক মিয়া আরও বলেন, এরপর শহরের বহু জায়গায় খোঁজাখুঁজি ও মাইকিং করেছি। থানায় জিডি, পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দিয়েছি। কিন্তু মেয়ের কোনো সন্ধান পায়নি। মেয়েকে না পেয়ে ২৫ বছর ধরে বুকে কষ্ট চাপা দিয়ে রেখেছি। মেয়েকে না পেয়ে নিজেকে কিছুতেই ক্ষমা করতে পারছিলাম না। দুই ছেলে ও দুই মেয়ের জনক মানিক মিয়া বলেন, অবশেষে আরজে কিবরিয়ার এফএম রেডিও’র বদৌলতে মেয়েকে খুঁজে পেয়েছি। এ জন্য রেডিওটির প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।

আকলিমা খাতুন (৩১) জানান, ওইদিন অনেকক্ষণ গুলিস্তান মোড়ে অবস্থান করার পরও বাবাকে না পেয়ে আমি একটি বাসে উঠে পড়ি। বাসে কান্নাকাটি করায় এক লোক আমাকে সেখান থেকে একটি আশ্রয় কেন্দ্রে নিয়ে যান। গ্রামের নাম-ঠিকানা বলতে না পারায় আশ্রয় কেন্দ্রে আমি আঁখি নূর নামে বড় হয়ে উঠি। সেখানেই আমার বিয়ে হয়। এরপর স্বামী মাসুম মোল্লার সঙ্গে আশুলিয়ায় চলে যাই। আমার এক মেয়ে ও এক ছেলে।

আকলিমা আরও জানান, বাবা-মার খোঁজে আমি আরজে কিবরিয়ার এফএম রেডিও’র ‘আপন ঠিকানায়’ সাক্ষাৎকারের জন্য আবেদন করি। দীর্ঘদিন অপেক্ষার পর আমার সাক্ষাৎকারের ডাক পড়ে। সাক্ষাৎকারটি প্রচারের পর বাবা-মার খোঁজ পান।

আকলিমার স্বামী মাসুম মোল্লা বলেন, আমি সবকিছু জেনে তাকে বিয়ে করেছি। বিয়ের পর থেকে তার বাবা-মার খোঁজে অনেক জায়গায় ছুটাছুটি করেছি। শ্বশুর-শাশুড়ি পেয়ে আমি খুশি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন