বিশ্ব মা দিবস আজ

মধুর আমার মায়ের হাসি

  সাংস্কৃতিক রিপোর্টার ১৩ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মধুর আমার মায়ের হাসি

‘মাগো মা ও মা/এই পৃথিবীর এত আলো/এত যে সুন্দর/জীবনের স্পন্দনে এত আনন্দ/জেনেছি সেতো শুধু তোমারি জন্য/ওগো মা’। ‘জননী’ নামের গানে ওয়ারফেজের জনপ্রিয় গায়ক বাবনা এভাবেই মাকে ভালোবাসা জানিয়েছিলেন তাকে পৃথিবী আলো দেখানোর জন্য।

‘মা’ পৃথিবীর সেরা অনুভূতির নাম, ভালোবাসার নাম। মা সেইজন যিনি শত ব্যথা বেদনায় সন্তানকে আগলে রাখেন। মমতার আঁচলে রেখে সন্তানকে বড় করেন। সে মমতা পরিমাপ করা যায় না। আজ রোববার বিশ্ব মা দিবস।

মাকে ভালোবাসার জন্য বিশেষ কেনো দিন দরকার নেই। তবুও মায়ের মহিমা তুলে ধরা ও তাকে ভালোবাসা জানাতে সৃষ্টি এ দিনটির। যাদের মা আজ কাছে আছেন তারা মায়ের প্রতি ভালোবাসা জানাবেন।

আর মাকে ছেড়ে যারা দূরে আছেন তারা হয়তো গানের কথার মতো বলবেন, ‘মধুর আমার মায়ের হাসি/চাঁদের মুখে ঝরে/মাকে মনে পড়ে আমার/মাকে মনে পড়ে।’ মাকে মনে করেই অনেকে মুঠোফোন বা অন্য কেনোভাবে মায়ের আশীর্বাদ নেবেন।

কিন্তু যারা মা-হারা তাদের জন্য আজকের দিনটি বেদনার। তাদের মনে বাজবে ‘একটা চাঁদ ছাড়া রাত/আঁধার কালো,/মায়ের মমতা ছাড়া/কে থাকে ভালো?’। তারা হয়তো মায়ের অনেক স্মৃতিতে ভাসতে ভাসতেই অজান্তে চোখের কোণের জল মুছবেন।

মা যেখানেই থাক তাকে কৃতজ্ঞতা জানাবেন। পৃথিবীর আর কিছুই মায়ের সঙ্গে তুল্য নয়। মাকে আম্মা, আম্মু যে নামেই ডাকা হোক না কেন, এর চেয়ে মধুর কোনো শব্দ শব্দকোষে নেই। মাকে নিয়ে তাই কত গান, কবিতা, নাটক, গল্প, উপন্যাসের সৃষ্টি।

মা দিবস সৃষ্টির একটি ইতিহাস আছে। ১৮৬১ থেকে ১৮৬৪ সাল পর্যন্ত মার্কিন গৃহযুদ্ধে প্রাণ হারায় লাখো তরুণ-যুবক। তাই সন্তানহারা মায়েরা কেঁদে ফিরে টেক্সাসের পথে পথে। যুদ্ধ বন্ধের দাবিতে তারাই রাজপথে নামেন। ১৮৭০ সালে জুলিয়া ওয়ার্ড হোই নামের এক মা ঘোষণা করেন, মা দিবসের ঘোষণাপত্র।

এরও ৩৮ বছর পর মার্কিন নারী আনা জার্ভিস মে মাসের দ্বিতীয় রোববারকে পালন করেন মা দিবস হিসেবে। একটা সময়ে বিশ্বজুড়ে স্বীকৃতি পায় দিনটি।

তবে, একটা সময়ে এসে মা দিবস বাণিজ্যিক হয়ে পড়ে। তাই একসময় একে ‘হলমার্ক ডে’ বলতেও দ্বিধা করেননি আনা জার্ভিস। কারণ, মাকে কার্ড পাঠিয়ে সত্যিকারের ভালোবাসা প্রকাশ পায় না। মাকে প্রতিটিক্ষণ মনে রাখার মধ্য দিয়ে অনুভব করতে হয়।

আমাদের দেশে মা দিবস পালনের চল খুব বেশি দিনের নয়। তার পরও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর কল্যাণে এখন সবারই জানা আজ মা দিবস। বিশেষ করে আজকের দিনে ফেসবুকে মাকে নিয়ে ভালোবাসা, স্মৃতি, মায়ের সঙ্গে ছবি পোস্ট দেবেন অনেকেই। মায়ের প্রতি ভালোবাসা প্রকাশ করবেন নানাভাবে।

মা দিবস উপলক্ষে প্রতি বছরের মতো এবারও বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। প্রতি বছরের মতো এবারও আজাদ প্রোডাক্টস ‘রতœগর্ভা মা’দের সম্মাননা জানাবে। সংবাদপত্রগুলো প্রকাশ করেছে বিশেষ নিবন্ধ। টেলিভিশন চ্যানেলগুলো প্রচার করছে বিশেষ অনুষ্ঠান।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter