নৌকায় ভোট প্রকাশ্যে দিতে বললেন ডাক বিভাগ কর্মচারী ইউনিয়নের নেতা
jugantor
নৌকায় ভোট প্রকাশ্যে দিতে বললেন ডাক বিভাগ কর্মচারী ইউনিয়নের নেতা

  কিশোরগঞ্জ ব্যুরো  

১৫ নভেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে নৌকায় ভোট প্রকাশ্যে দিতে বললেন ডাক বিভাগ কর্মচারী ইউনিয়নের এক নেতা। শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার ৭নং ফরিদপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর এক নির্বাচনি সভায় অংশ নিয়ে তিনি ভোটারদের বলেন, ‘উন্নয়নের স্বার্থে নৌকার বিকল্প নেই। তাই আমাদের এই সিদ্ধান্তে আসতে হবে যে, সবাই যেন চেয়ারম্যান ভোটটা সামনাসামনি দেন।’

এই নেতার নাম মোহাম্মদ খলিলুর রহমান ভূঞা। তিনি ডাক বিভাগ কর্মচারী ইউনিয়নের মহাসম্পাদক। ইতোমধ্যে তার এই বক্তব্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।

ওই সভায় খলিলুর রহমান

বলেন, আমরা একটা সিদ্ধান্তে আসব-চেয়ারম্যান ভোটটা আমরা সামনাসামনি দেব। বর্তমান জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার দেশের উন্নয়ন করে যাচ্ছে। এখন এই সরকারের বাইরে যদি চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেন তাহলে এলাকার উন্নয়ন হবে না। উন্নয়নের স্বার্থে নৌকার কোনো বিকল্প নেই। তিনি আরও বলেন, আমি একটু ঢাকায় যাব। কালকে আমার অফিস আছে, যেহেতু সরকারি চাকরি করি, আমাদের কাজের একটা ‘ইয়া’ আছে। আমি আশাকরি, সামনে পুরা সপ্তাহ থাকব। এলাকার সবার সঙ্গে দেখা করার চেষ্টা করব।

নৌকায় ভোট প্রকাশ্যে দিতে বললেন ডাক বিভাগ কর্মচারী ইউনিয়নের নেতা

 কিশোরগঞ্জ ব্যুরো 
১৫ নভেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে নৌকায় ভোট প্রকাশ্যে দিতে বললেন ডাক বিভাগ কর্মচারী ইউনিয়নের এক নেতা। শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার ৭নং ফরিদপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর এক নির্বাচনি সভায় অংশ নিয়ে তিনি ভোটারদের বলেন, ‘উন্নয়নের স্বার্থে নৌকার বিকল্প নেই। তাই আমাদের এই সিদ্ধান্তে আসতে হবে যে, সবাই যেন চেয়ারম্যান ভোটটা সামনাসামনি দেন।’

এই নেতার নাম মোহাম্মদ খলিলুর রহমান ভূঞা। তিনি ডাক বিভাগ কর্মচারী ইউনিয়নের মহাসম্পাদক। ইতোমধ্যে তার এই বক্তব্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।

ওই সভায় খলিলুর রহমান

বলেন, আমরা একটা সিদ্ধান্তে আসব-চেয়ারম্যান ভোটটা আমরা সামনাসামনি দেব। বর্তমান জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার দেশের উন্নয়ন করে যাচ্ছে। এখন এই সরকারের বাইরে যদি চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেন তাহলে এলাকার উন্নয়ন হবে না। উন্নয়নের স্বার্থে নৌকার কোনো বিকল্প নেই। তিনি আরও বলেন, আমি একটু ঢাকায় যাব। কালকে আমার অফিস আছে, যেহেতু সরকারি চাকরি করি, আমাদের কাজের একটা ‘ইয়া’ আছে। আমি আশাকরি, সামনে পুরা সপ্তাহ থাকব। এলাকার সবার সঙ্গে দেখা করার চেষ্টা করব।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন