জুরাছড়িতে নানা আচারে শেষ কঠিন চীবর দানোৎসব
jugantor
জুরাছড়িতে নানা আচারে শেষ কঠিন চীবর দানোৎসব

  সুশীল প্রসাদ চাকমা, রাঙামাটি  

১৬ নভেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

জেলার জুরাছড়ি উপজেলার ঘিলাতলী ঐক্যবন বিহারে দুই দিনব্যাপী দানোত্তম কঠিন চীবর দানোৎসব উদযাপিত হয়েছে। বিহারটিতে ধর্মীয় নানা আচার অনুষ্ঠানে রোববার শুরু হওয়া উৎসব সোমবার সন্ধ্যায় প্রদীপ প্রজ্বালন ও ফানুস উড়িয়ে শেষ হয়। উৎসবের শেষ দিন সোমবার সকালে বুদ্ধপূজা, বুদ্ধমূর্তিদান, সংঘদান, অষ্টপরিষ্কার দান, পঞ্চশীল প্রার্থনা, বিকালে কঠিন চীবরদান, সূত্রপাঠ, ধর্মীয় দেশনা, হাজারবাতি দান, কল্পতরু শোভাযাত্রা এবং সন্ধ্যায় প্রদীপ প্রজ্বালন ও ফানুস উড়ানো হয়। উৎসবে হাজার পুণ্যার্থীর সমাগম ঘটে।

মূল অনুষ্ঠান পরিচালনায় ছিলেন আনন্দ বিকাশ চাকমা ও প্রজ্ঞা চাকমা। পুণ্যার্থীদের পক্ষে পঞ্চশীল প্রার্থনা করেন স্মৃতি জীবন চাকমা ও কালাধন চাকমা। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ঘিলাতলী ঐক্যবন বিহার পরিচালনা কমিটির সভাপতি অনিল চন্দ্র চাকমা। বিশ্বের সব প্রাণীর হিতসুখ মঙ্গলার্থে ভিক্ষুসংঘের সমীপে বিশেষ প্রার্থনা পাঠ করেন অমর চাকমা।

পরে সমবেত পুণ্যার্থীদের উদ্দেশে সদ্ধর্ম দেশনা দেন তক্ষশীলা বনবিহারের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ করুণাবর্ধন মহাস্থবির, লক্ষীছড়ি বর্মাছড়ি আর্যকল্যাণ বনবিহারের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ জ্ঞানদ্বীপ স্থবির, রাজবন বিহারের শ্রীমৎ সুশীলানন্দ স্থবির, তারাবন ভাবনা কেন্দ্রের বিহার অধ্যক্ষ শ্রীমৎ আদিকল্যাণ স্থবির প্রমুখ।

জুরাছড়িতে নানা আচারে শেষ কঠিন চীবর দানোৎসব

 সুশীল প্রসাদ চাকমা, রাঙামাটি 
১৬ নভেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

জেলার জুরাছড়ি উপজেলার ঘিলাতলী ঐক্যবন বিহারে দুই দিনব্যাপী দানোত্তম কঠিন চীবর দানোৎসব উদযাপিত হয়েছে। বিহারটিতে ধর্মীয় নানা আচার অনুষ্ঠানে রোববার শুরু হওয়া উৎসব সোমবার সন্ধ্যায় প্রদীপ প্রজ্বালন ও ফানুস উড়িয়ে শেষ হয়। উৎসবের শেষ দিন সোমবার সকালে বুদ্ধপূজা, বুদ্ধমূর্তিদান, সংঘদান, অষ্টপরিষ্কার দান, পঞ্চশীল প্রার্থনা, বিকালে কঠিন চীবরদান, সূত্রপাঠ, ধর্মীয় দেশনা, হাজারবাতি দান, কল্পতরু শোভাযাত্রা এবং সন্ধ্যায় প্রদীপ প্রজ্বালন ও ফানুস উড়ানো হয়। উৎসবে হাজার পুণ্যার্থীর সমাগম ঘটে।

মূল অনুষ্ঠান পরিচালনায় ছিলেন আনন্দ বিকাশ চাকমা ও প্রজ্ঞা চাকমা। পুণ্যার্থীদের পক্ষে পঞ্চশীল প্রার্থনা করেন স্মৃতি জীবন চাকমা ও কালাধন চাকমা। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ঘিলাতলী ঐক্যবন বিহার পরিচালনা কমিটির সভাপতি অনিল চন্দ্র চাকমা। বিশ্বের সব প্রাণীর হিতসুখ মঙ্গলার্থে ভিক্ষুসংঘের সমীপে বিশেষ প্রার্থনা পাঠ করেন অমর চাকমা।

পরে সমবেত পুণ্যার্থীদের উদ্দেশে সদ্ধর্ম দেশনা দেন তক্ষশীলা বনবিহারের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ করুণাবর্ধন মহাস্থবির, লক্ষীছড়ি বর্মাছড়ি আর্যকল্যাণ বনবিহারের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ জ্ঞানদ্বীপ স্থবির, রাজবন বিহারের শ্রীমৎ সুশীলানন্দ স্থবির, তারাবন ভাবনা কেন্দ্রের বিহার অধ্যক্ষ শ্রীমৎ আদিকল্যাণ স্থবির প্রমুখ।

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন