বরিশালে অর্ধকোটি টাকা নিয়ে উধাও আরএম গ্রুপ
jugantor
চাকরির প্রলোভন
বরিশালে অর্ধকোটি টাকা নিয়ে উধাও আরএম গ্রুপ

  বরিশাল ব্যুরো  

০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বরিশালে দুই শতাধিক চাকরিপ্রার্থীর কাছ থেকে জামানতের কথা বলে অর্ধকোটি টাকা হাতিয়ে লাপাত্তা হওয়ার অভিযোগ উঠেছে আরএম গ্রুপ নামের একটি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে। নগরীর রূপাতলী হাউজিং এলাকার হিরন পয়েন্ট-২ ভবনের ভাড়া বাসায় অবস্থিত অফিসে বুধবার সকালে কাজে যোগ দিতে গেলে অফিস বন্ধ পান চাকরিপ্রার্থীরা। এছাড়া কয়েকটি প্রতিষ্ঠান থেকেও ২০ লক্ষাধিক টাকার মালামাল বাকিতে নিয়ে আত্মসাৎ করে তারা। পরিশোধ করেননি বাড়ি ভাড়াও। এ ঘটনায় বরিশাল কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজীমুল করীম করিম জানান, প্রতারকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ পেলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ভুক্তভোগী বৃষ্টি খন্দকার জানান, পত্রিকায় আরএম গ্রুপ নামের একটি প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন পদে আকর্ষণীয় বেতনে লোকবল নেওয়ার বিজ্ঞাপন দেখতে পান। পরে তিনি নিজ পরিবারের বেকার চার সদস্যের জন্য চাকরির আবেদন করেন। আবেদনের পর চাকরি পেতে ২৫ হাজার টাকা করে জামানত দিতে হবে বলে জানান প্রতিষ্ঠানটির জিএম আমজাদ হোসেন কিরণ ও ম্যানেজার তুষার খান। নির্ধারিত জামানত দিয়ে বুধবার সকালে চাকরিতে যোগদান করতে গেলে তিনি দেখতে পান প্রতিষ্ঠানটি উধাও হয়ে গেছে। সুদৃশ্য সাইনবোর্ডগুলোও খুলে ফেলা হয়েছে। তার মতো আরএম গ্রুপের প্রতারণার শিকার হয়েছেন দুই শতাধিক ব্যক্তি। তাদের কাছ থেকে মোট অর্ধকোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন ওই দুই প্রতারক। ভবনের ম্যানেজার আবু তালেব জানান, ভবনটিতে ভাড়া উঠেছিল প্রতিষ্ঠানটি, কিন্তু তাদেরও টাকা না দিয়েই পালিয়েছে তারা। এছাড়াও কয়েকটি প্রতিষ্ঠান থেকে ২০ লক্ষাধিক টাকার মালামাল বাকিতে নিয়ে টাকা পরিশোধ করেননি। এর বিপরীতে চেক প্রদান করলেও ব্যাংকে পর্যাপ্ত অর্থ না থাকায় ওই চেক প্রত্যাখ্যান হয়। ওই অ্যাকাউন্টে রয়েছে মাত্র ৩শ’ টাকা। বরিশাল কোতোয়ালি থানার ওসি আজীমুল করীম করিম জানান, বুধবার বিকাল পর্যন্ত কোনো ভুক্তভোগী অভিযোগ দেননি। অভিযোগ পেলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

চাকরির প্রলোভন

বরিশালে অর্ধকোটি টাকা নিয়ে উধাও আরএম গ্রুপ

 বরিশাল ব্যুরো 
০২ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বরিশালে দুই শতাধিক চাকরিপ্রার্থীর কাছ থেকে জামানতের কথা বলে অর্ধকোটি টাকা হাতিয়ে লাপাত্তা হওয়ার অভিযোগ উঠেছে আরএম গ্রুপ নামের একটি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে। নগরীর রূপাতলী হাউজিং এলাকার হিরন পয়েন্ট-২ ভবনের ভাড়া বাসায় অবস্থিত অফিসে বুধবার সকালে কাজে যোগ দিতে গেলে অফিস বন্ধ পান চাকরিপ্রার্থীরা। এছাড়া কয়েকটি প্রতিষ্ঠান থেকেও ২০ লক্ষাধিক টাকার মালামাল বাকিতে নিয়ে আত্মসাৎ করে তারা। পরিশোধ করেননি বাড়ি ভাড়াও। এ ঘটনায় বরিশাল কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজীমুল করীম করিম জানান, প্রতারকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ পেলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ভুক্তভোগী বৃষ্টি খন্দকার জানান, পত্রিকায় আরএম গ্রুপ নামের একটি প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন পদে আকর্ষণীয় বেতনে লোকবল নেওয়ার বিজ্ঞাপন দেখতে পান। পরে তিনি নিজ পরিবারের বেকার চার সদস্যের জন্য চাকরির আবেদন করেন। আবেদনের পর চাকরি পেতে ২৫ হাজার টাকা করে জামানত দিতে হবে বলে জানান প্রতিষ্ঠানটির জিএম আমজাদ হোসেন কিরণ ও ম্যানেজার তুষার খান। নির্ধারিত জামানত দিয়ে বুধবার সকালে চাকরিতে যোগদান করতে গেলে তিনি দেখতে পান প্রতিষ্ঠানটি উধাও হয়ে গেছে। সুদৃশ্য সাইনবোর্ডগুলোও খুলে ফেলা হয়েছে। তার মতো আরএম গ্রুপের প্রতারণার শিকার হয়েছেন দুই শতাধিক ব্যক্তি। তাদের কাছ থেকে মোট অর্ধকোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন ওই দুই প্রতারক। ভবনের ম্যানেজার আবু তালেব জানান, ভবনটিতে ভাড়া উঠেছিল প্রতিষ্ঠানটি, কিন্তু তাদেরও টাকা না দিয়েই পালিয়েছে তারা। এছাড়াও কয়েকটি প্রতিষ্ঠান থেকে ২০ লক্ষাধিক টাকার মালামাল বাকিতে নিয়ে টাকা পরিশোধ করেননি। এর বিপরীতে চেক প্রদান করলেও ব্যাংকে পর্যাপ্ত অর্থ না থাকায় ওই চেক প্রত্যাখ্যান হয়। ওই অ্যাকাউন্টে রয়েছে মাত্র ৩শ’ টাকা। বরিশাল কোতোয়ালি থানার ওসি আজীমুল করীম করিম জানান, বুধবার বিকাল পর্যন্ত কোনো ভুক্তভোগী অভিযোগ দেননি। অভিযোগ পেলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন