সুধী সমাবেশে বাণিজ্যমন্ত্রী

ভোলায় গ্যাসের মজুদ ৫ ট্রিলিয়ন ঘনফুট ছাড়াবে

  ভোলা প্রতিনিধি ২১ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ভোলায় গ্যাসের মজুদ ৫ ট্রিলিয়ন ঘনফুট ছাড়াবে। যা দেশের বৃহত্তর গ্যাস ক্ষেত্র হিসেবে চিহ্নিত হবে। এমন তথ্য জানালেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। শনিবার বিকালে জেলা প্রশাসন আয়োজিত সুধী সমাবেশ ও ইফতার মাহফিলে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ভোলায় ইতিমধ্যে ২ ট্রিলিয়ন ঘনফুট গ্যাসের মজুদ পাওয়া গেছে। আরও ২-৩ ট্রিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস পাওয়া যাবে। ৫ ট্রিলিয়ন ঘনফুট গ্যাসের মজুদের কারণে ভোলায় প্রচুর কলকারখানা গড়ে উঠবে। তিনি বলেন, ভোলা হবে শ্রেষ্ঠ জেলা ও বাংলাদেশের সিঙ্গাপুর।

বাণিজ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ইতিমধ্যে গ্যাসভিত্তিক ২২৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে। আরও ২২৫ মেগাওয়াট করে ৩টি কেন্দ্র স্থাপনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এখানে দৈনিক এক হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে। এ সময় মন্ত্রী কয়েকটি দেশি-বিদেশি কোম্পানির নাম উল্লেখ করে বলেন, ওই সব কোম্পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনসহ কলকারখানা স্থাপনে কাজও শুরু করেছে।

তিনি বলেন, ভোলার প্রধান সমস্যা ছিল নদীভাঙন। ওই ভাঙন রোধ করতে জেলায় দুই হাজার কোটি টাকারও বেশি ব্যয় করা হয়েছে। এ কারণে নদীভাঙন সমস্যা আর নেই। এখানে যে হারে রাস্তাঘাট, পুল- কালভার্ট নির্মাণ করা হয়েছে, তাতে যোগাযোগ ব্যবস্থার অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে। সৎ স্বপ্ন আল্লাহ সবসময় কবুল করেন উল্লেখ করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, তার এখন একটা স্বপ্ন, ভোলা-বরিশাল ব্রিজ নির্মাণ। ওই কাজও এগিয়ে চলছে। এটা করতে পারলে ভোলার সঙ্গে নদী ও স্থলপথে যোগযোগ ব্যবস্থার প্রসার ঘটবে। এ সময় মন্ত্রী আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশ ও কোস্টগার্ড কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন। ভোলার মানুষ শান্তিপ্রিয় উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, এখানে রাজনৈতিক কোনো সংঘাত নেই। সামাজিক কাজে সবাই একযোগে অংশ নেন। আর এ কারণে এখানে ব্যাপক উন্নয়নের সম্ভাবনা রয়েছে।

শুরুতে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক তার শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন। সমাবেশে আরও উপস্থিত ছিলেন- মন্ত্রীপত্নী আনোয়ারা আহমেদ, জেলা ও দায়রা জজ ফেরদৌস আহম্মেদ, পুলিশ সুপার মো. মোকতার হোসেন, কোস্টগার্ড দক্ষিণ জোন কমান্ডার ক্যাপ্টেন রাকিব উদ্দিন, ভোলা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর পারভীন আখতার, জেলা বিএনপির সভাপতি গোলাম নবী আলমগীর, সিভিল সার্জন ডা. রথীন্দ্র নাথ দে, উপজেলা চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগ সহসভাপতি মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডার দোস্ত মাহমুদ, বারের পিপি জেলা আওয়ামী লীগ সহসভাপতি সৈয়দ আশরাফ হোসেন লাভু, পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচালক মাহামুদুল হক আযাদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মৃধা মুজাহিদুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক জহিরুল ইসলাম নকিব, সহ-জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা, ইউপি চেয়ারম্যান ও জেলা উপজেলা পর্যায়ের রাজনৈতিক দলের নেতারা।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.