মার্কিন ফেডারেল বিচারক পদে প্রথম বাংলাদেশি নুসরাত
jugantor
মার্কিন ফেডারেল বিচারক পদে প্রথম বাংলাদেশি নুসরাত

  যুগান্তর ডেস্ক  

২১ জানুয়ারি ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ফেডারেল বিচারপতি হিসাবে মনোনয়ন পেয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আমেরিকান নুসরাত জাহান চৌধুরী। নিয়োগ পেলে তিনি হবেন প্রথম নারী মুসলিম-আমেরিকান ফেডারেল বিচারপতি। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এ মনোনয়ন দিয়েছেন বলে জানানো হয়েছে হোয়াইট হাউজের এক বিবৃতিতে। খবর রয়টার্সের।

যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল আদালতের বেঞ্চে নিয়োগের জন্য আটজন বিচারক মনোনয়ন দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট। তাদের মধ্যে একজন হলেন এই নুসরাত। তিনি বর্তমানে আমেরিকান সিভিল লিবার্টিজ ইউনিয়ন (এসিএলইউ) অব ইলিনয় অঙ্গরাজ্যের আইনবিষয়ক পরিচালক পদে কর্মরত। এসিএলইউতে ২০০৮ সাল থেকে কাজ করছেন নুসরাত। তিনি নিউইয়র্কের এসিএলইউতেও কাজ করেছেন।

নিউইয়র্কের ইস্টার্ন ডিস্ট্রিক্টে ফেডারেল জাজ হিসাবে দায়িত্ব পালনের জন্য নুসরাতকে মনোনয়ন দিয়েছেন বাইডেন। নুসরাতের মনোনয়ন সিনেট অনুমোদন করলে তিনি হবেন দেশটিতে ফেডারেল বিচারক হিসাবে দায়িত্ব পাওয়া প্রথম বাংলাদেশি আমেরিকান। একই সঙ্গে নুসরাত হবেন যুক্তরাষ্ট্রে ফেডারেল বিচারক হিসাবে দায়িত্ব পাওয়া প্রথম মুসলিম নারী। আর মুসলিম ব্যক্তি হিসাবে নুসরাত হবেন দেশটির দ্বিতীয় ফেডারেল বিচারক। প্রথম মুসলিম ব্যক্তি হিসাবে দেশটিতে ফেডারেল জাজ হয়েছেন জাহিদ কোরেশি। তিনি পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত আমেরিকান।

হোয়াইট হাউজের বিবৃতিতে নুসরাত সম্পর্কে বলা হয়, ‘তিনি এমন একজন মনোনীত ব্যক্তি যিনি প্রথম বাংলাদেশি-আমেরিকান, প্রথম মুসলিম-আমেরিকান নারী এবং একমাত্র দ্বিতীয় মুসলিম-আমেরিকান ব্যক্তি যিনি ফেডারেল বিচারকের দায়িত্ব পালন করবেন।’

ফেডারেল সরকারের নো ফ্লাই লিস্ট এবং মুসলিম সম্প্রদায়ের ওপর নিউইয়র্ক পুলিশ ডিপার্টমেন্টের নজরদারি চ্যালেঞ্জ করার মামলাসহ অসংখ্য নাগরিক অধিকারের মামলায় সংযুক্ত ছিলেন নুসরাত জাহান। এর আগে ২০২১ সালের আগস্টে নুসরাতকে নিয়োগ দিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের কাছে সুপারিশ করেন সিনেটের সংখ্যাগরিষ্ঠদের নেতা চাক শুমার।

নুসরাত জাহান চৌধুরী যুক্তরাষ্ট্রের ইয়েল ল স্কুল, প্রিন্সটন স্কুল অব পাবলিক অ্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্স এবং কলাম্বিয়া ইউনিভার্সিটিতে পড়াশোনা করেন। সিভিল লিবার্টিজ ইউনিয়নে যোগদানের আগে তিনি নিউইয়র্ক সাউদার্ন ডিসট্রিক্ট কোর্টের ক্লার্ক এবং সেকেন্ড সার্কিট ইউএস কোর্ট অব আপিলের জজ ব্যারিঙ্গটন পার্কারের সঙ্গেও কাজ করেছেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বাইডেন ক্ষমতায় আসার পর গত এক বছরে ১৩ দফায় ৮৩ জন বিচারপতি মনোনয়ন দিয়েছেন।

মার্কিন ফেডারেল বিচারক পদে প্রথম বাংলাদেশি নুসরাত

 যুগান্তর ডেস্ক 
২১ জানুয়ারি ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ফেডারেল বিচারপতি হিসাবে মনোনয়ন পেয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আমেরিকান নুসরাত জাহান চৌধুরী। নিয়োগ পেলে তিনি হবেন প্রথম নারী মুসলিম-আমেরিকান ফেডারেল বিচারপতি। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এ মনোনয়ন দিয়েছেন বলে জানানো হয়েছে হোয়াইট হাউজের এক বিবৃতিতে। খবর রয়টার্সের।

যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল আদালতের বেঞ্চে নিয়োগের জন্য আটজন বিচারক মনোনয়ন দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট। তাদের মধ্যে একজন হলেন এই নুসরাত। তিনি বর্তমানে আমেরিকান সিভিল লিবার্টিজ ইউনিয়ন (এসিএলইউ) অব ইলিনয় অঙ্গরাজ্যের আইনবিষয়ক পরিচালক পদে কর্মরত। এসিএলইউতে ২০০৮ সাল থেকে কাজ করছেন নুসরাত। তিনি নিউইয়র্কের এসিএলইউতেও কাজ করেছেন।

নিউইয়র্কের ইস্টার্ন ডিস্ট্রিক্টে ফেডারেল জাজ হিসাবে দায়িত্ব পালনের জন্য নুসরাতকে মনোনয়ন দিয়েছেন বাইডেন। নুসরাতের মনোনয়ন সিনেট অনুমোদন করলে তিনি হবেন দেশটিতে ফেডারেল বিচারক হিসাবে দায়িত্ব পাওয়া প্রথম বাংলাদেশি আমেরিকান। একই সঙ্গে নুসরাত হবেন যুক্তরাষ্ট্রে ফেডারেল বিচারক হিসাবে দায়িত্ব পাওয়া প্রথম মুসলিম নারী। আর মুসলিম ব্যক্তি হিসাবে নুসরাত হবেন দেশটির দ্বিতীয় ফেডারেল বিচারক। প্রথম মুসলিম ব্যক্তি হিসাবে দেশটিতে ফেডারেল জাজ হয়েছেন জাহিদ কোরেশি। তিনি পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত আমেরিকান।

হোয়াইট হাউজের বিবৃতিতে নুসরাত সম্পর্কে বলা হয়, ‘তিনি এমন একজন মনোনীত ব্যক্তি যিনি প্রথম বাংলাদেশি-আমেরিকান, প্রথম মুসলিম-আমেরিকান নারী এবং একমাত্র দ্বিতীয় মুসলিম-আমেরিকান ব্যক্তি যিনি ফেডারেল বিচারকের দায়িত্ব পালন করবেন।’

ফেডারেল সরকারের নো ফ্লাই লিস্ট এবং মুসলিম সম্প্রদায়ের ওপর নিউইয়র্ক পুলিশ ডিপার্টমেন্টের নজরদারি চ্যালেঞ্জ করার মামলাসহ অসংখ্য নাগরিক অধিকারের মামলায় সংযুক্ত ছিলেন নুসরাত জাহান। এর আগে ২০২১ সালের আগস্টে নুসরাতকে নিয়োগ দিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের কাছে সুপারিশ করেন সিনেটের সংখ্যাগরিষ্ঠদের নেতা চাক শুমার।

নুসরাত জাহান চৌধুরী যুক্তরাষ্ট্রের ইয়েল ল স্কুল, প্রিন্সটন স্কুল অব পাবলিক অ্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্স এবং কলাম্বিয়া ইউনিভার্সিটিতে পড়াশোনা করেন। সিভিল লিবার্টিজ ইউনিয়নে যোগদানের আগে তিনি নিউইয়র্ক সাউদার্ন ডিসট্রিক্ট কোর্টের ক্লার্ক এবং সেকেন্ড সার্কিট ইউএস কোর্ট অব আপিলের জজ ব্যারিঙ্গটন পার্কারের সঙ্গেও কাজ করেছেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বাইডেন ক্ষমতায় আসার পর গত এক বছরে ১৩ দফায় ৮৩ জন বিচারপতি মনোনয়ন দিয়েছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন