বরিশালে লাফিয়ে বাড়ছে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা
jugantor
মাস্ক ব্যবহারের বালাই নেই
বরিশালে লাফিয়ে বাড়ছে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা

  বরিশাল ব্যুরো  

২২ জানুয়ারি ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বরিশালে লাফিয়ে বাড়ছে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। তারপরও স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করে লোকজন নগরীতে ঘুরে বেড়াচ্ছে। সামাজিক দূরত্ব ও মাস্ক ব্যবহারের বালাই নেই। স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতে প্রশাসনের উদ্যোগে বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালিত হলেও তা কাজে আসছে না। তাই নগরীতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার দাবি জানিয়েছেন সচেতন নগরবাসী।

বরিশাল বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্র জানায়, শুক্রবার দুপুরের আগের ২৪ ঘণ্টায় এই বিভাগে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৫২ জন। আর বরিশাল জেলায় ৬৫ জন আক্রান্ত হয়েছেন। বৃহস্পতিবারের পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে ১১৭ জন করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন। ওই সময় বরিশাল জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৫০ জন। এ নিয়ে দুদিনে ২৬৯ জন করোনা আক্রান্ত হলো।

জেলা প্রশাসন, মেট্রোপলিটন পুলিশের উদ্যোগে একাধিক জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালিত হলেও নগরবাসী স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না। তাই স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতে নিয়মিত ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে দণ্ড প্রদানের দাবি উঠেছে।

বেসরকারি চাকরিজীবী হেলাল উদ্দিন জানান, নগরীর অধিকাংশ মানুষ স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা করছেন না। তাই নিয়মিত ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে দণ্ড দেওয়া উচিত। স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক শহিদুল ইসলাম বলেন, স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।

মাস্ক ব্যবহারের বালাই নেই

বরিশালে লাফিয়ে বাড়ছে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা

 বরিশাল ব্যুরো 
২২ জানুয়ারি ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বরিশালে লাফিয়ে বাড়ছে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। তারপরও স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করে লোকজন নগরীতে ঘুরে বেড়াচ্ছে। সামাজিক দূরত্ব ও মাস্ক ব্যবহারের বালাই নেই। স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতে প্রশাসনের উদ্যোগে বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালিত হলেও তা কাজে আসছে না। তাই নগরীতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার দাবি জানিয়েছেন সচেতন নগরবাসী।

বরিশাল বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্র জানায়, শুক্রবার দুপুরের আগের ২৪ ঘণ্টায় এই বিভাগে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৫২ জন। আর বরিশাল জেলায় ৬৫ জন আক্রান্ত হয়েছেন। বৃহস্পতিবারের পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে ১১৭ জন করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন। ওই সময় বরিশাল জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৫০ জন। এ নিয়ে দুদিনে ২৬৯ জন করোনা আক্রান্ত হলো।

জেলা প্রশাসন, মেট্রোপলিটন পুলিশের উদ্যোগে একাধিক জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালিত হলেও নগরবাসী স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না। তাই স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতে নিয়মিত ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে দণ্ড প্রদানের দাবি উঠেছে।

বেসরকারি চাকরিজীবী হেলাল উদ্দিন জানান, নগরীর অধিকাংশ মানুষ স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা করছেন না। তাই নিয়মিত ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে দণ্ড দেওয়া উচিত। স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক শহিদুল ইসলাম বলেন, স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন