পাথর কোয়ারি না খুলে দিলে মন্ত্রীকে অবাঞ্ছিত ঘোষণার হুঁশিয়ারি
jugantor
উপজেলা চেয়ারম্যানের বক্তব্য ভাইরাল
পাথর কোয়ারি না খুলে দিলে মন্ত্রীকে অবাঞ্ছিত ঘোষণার হুঁশিয়ারি

  সিলেট ব্যুরো  

২৪ জানুয়ারি ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

৩১ জানুয়ারি নৌকা মার্কার বিজয়ের পর পাথর কোয়ারি খুলে না দিলে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপিকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হবে। এমন হুঁশিয়ারি দিয়েছেন সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শামীম আহমদ। শনিবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে তার এই বক্তব্য।

শুক্রবার রাতে সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বাঘারপাড় সৈয়দ শাহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে ইসলামপুর পশ্চিম ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী হাজি আলকাছ আলীর নির্বাচনি জনসভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এই হুঁশিয়ারি দেন।

আঞ্চলিক ভাষায় শামীম আহমদ বলেন, ‘ইনশাআল্লাহ ৩১ জানুয়ারি বিজয়ের মালা পরে মন্ত্রী সাবরে লইয়া আফনারার এ কোয়ারি চালু করিয়া দিমু, আর যদি কোয়ারি চালু করিয়া না দিতে পারি আফনার এ মন্ত্রী সাবরে এ কোম্পানীগঞ্জ থেকে আফনার অবাঞ্ছিত ঘোষণা করবা।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি আজকের জনসভা নৌকা মার্কায় যেখান কইরাম আমি আফনারা যদি কোয়ারি না চলে আগামী সংসদ নির্বাচনে ইমরান আহমদরে কোম্পানীগঞ্জ থাকি আমরা অবাঞ্ছিত ঘোষণা করমু। দলমত সবাই মিল্লা আর আল্লার ওয়াস্তে একটা ভোট নৌকা মার্কায় দেউক্কা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ইজ্জত রক্ষায়, মাননীয় জেলা নেতৃবৃন্দের ইজ্জত রক্ষায় আফনারা একটা ভোট দেউক্কা।’

তার বক্তব্যের ব্যাপারে রোববার জানতে চাইলে শামীম আহমদ বলেন, এটা ইচ্ছাকৃত না। ভুলবশত মুখ ফসকে বেরিয়ে গেছে, মন থেকে এমনটা বলিনি। তবুও এজন্য আমি আন্তরিকভাবে দুঃখিত, ক্ষমাপ্রার্থী। শামীম দাবি করেন, রাজনৈতিকভাবে তাকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে একটি পক্ষ ভিডিওর বিভিন্ন মাধ্যমে প্রচার করতেছে।

জনসভায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য দেন সাবেক সংসদ-সদস্য, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শফিকুর রহমান চৌধুরী এবং প্রধান বক্তা হিসাবে বক্তব্য দেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. নাসির উদ্দিন খান।

উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. ফারুকুজ্জামান রানার সঞ্চালনায় জনসভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাহফুজুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের আইনবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আজমল আলী, দপ্তর সম্পাদক আখতারুজ্জামান চৌধুরী জগলু, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. আব্বাস উদ্দিন, উপদপ্তর সম্পাদক মো. মজির উদ্দিন, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলী আমজদ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক অখিল চন্দ্র বিশ্বাস, উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র যুগ্ম-আহ্বায়ক আব্দুর রহমান, ইসলামপুর পশ্চিম ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী হাজি আলকাছ আলী, উত্তর রণিখাই ইউপি চেয়ারম্যান ফয়জুর রহমান মাস্টার, দক্ষিণ রণিখাই ইউপি চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন ইমাদ প্রমুখ।

উপজেলা চেয়ারম্যানের বক্তব্য ভাইরাল

পাথর কোয়ারি না খুলে দিলে মন্ত্রীকে অবাঞ্ছিত ঘোষণার হুঁশিয়ারি

 সিলেট ব্যুরো 
২৪ জানুয়ারি ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

৩১ জানুয়ারি নৌকা মার্কার বিজয়ের পর পাথর কোয়ারি খুলে না দিলে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপিকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হবে। এমন হুঁশিয়ারি দিয়েছেন সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শামীম আহমদ। শনিবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে তার এই বক্তব্য।

শুক্রবার রাতে সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বাঘারপাড় সৈয়দ শাহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে ইসলামপুর পশ্চিম ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী হাজি আলকাছ আলীর নির্বাচনি জনসভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এই হুঁশিয়ারি দেন।

আঞ্চলিক ভাষায় শামীম আহমদ বলেন, ‘ইনশাআল্লাহ ৩১ জানুয়ারি বিজয়ের মালা পরে মন্ত্রী সাবরে লইয়া আফনারার এ কোয়ারি চালু করিয়া দিমু, আর যদি কোয়ারি চালু করিয়া না দিতে পারি আফনার এ মন্ত্রী সাবরে এ কোম্পানীগঞ্জ থেকে আফনার অবাঞ্ছিত ঘোষণা করবা।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি আজকের জনসভা নৌকা মার্কায় যেখান কইরাম আমি আফনারা যদি কোয়ারি না চলে আগামী সংসদ নির্বাচনে ইমরান আহমদরে কোম্পানীগঞ্জ থাকি আমরা অবাঞ্ছিত ঘোষণা করমু। দলমত সবাই মিল্লা আর আল্লার ওয়াস্তে একটা ভোট নৌকা মার্কায় দেউক্কা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ইজ্জত রক্ষায়, মাননীয় জেলা নেতৃবৃন্দের ইজ্জত রক্ষায় আফনারা একটা ভোট দেউক্কা।’

তার বক্তব্যের ব্যাপারে রোববার জানতে চাইলে শামীম আহমদ বলেন, এটা ইচ্ছাকৃত না। ভুলবশত মুখ ফসকে বেরিয়ে গেছে, মন থেকে এমনটা বলিনি। তবুও এজন্য আমি আন্তরিকভাবে দুঃখিত, ক্ষমাপ্রার্থী। শামীম দাবি করেন, রাজনৈতিকভাবে তাকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে একটি পক্ষ ভিডিওর বিভিন্ন মাধ্যমে প্রচার করতেছে।

জনসভায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য দেন সাবেক সংসদ-সদস্য, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শফিকুর রহমান চৌধুরী এবং প্রধান বক্তা হিসাবে বক্তব্য দেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. নাসির উদ্দিন খান।

উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. ফারুকুজ্জামান রানার সঞ্চালনায় জনসভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাহফুজুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের আইনবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আজমল আলী, দপ্তর সম্পাদক আখতারুজ্জামান চৌধুরী জগলু, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. আব্বাস উদ্দিন, উপদপ্তর সম্পাদক মো. মজির উদ্দিন, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলী আমজদ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক অখিল চন্দ্র বিশ্বাস, উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র যুগ্ম-আহ্বায়ক আব্দুর রহমান, ইসলামপুর পশ্চিম ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী হাজি আলকাছ আলী, উত্তর রণিখাই ইউপি চেয়ারম্যান ফয়জুর রহমান মাস্টার, দক্ষিণ রণিখাই ইউপি চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন ইমাদ প্রমুখ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন