ভূমধ্যসাগরে ৭ বাংলাদেশির মৃত্যু
jugantor
ভূমধ্যসাগরে ৭ বাংলাদেশির মৃত্যু

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৬ জানুয়ারি ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

লিবিয়া থেকে ইতালি যাওয়ার পথে ভূমধ্যসাগরে ঠান্ডায় সাত বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। অবৈধভাবে তারা নৌকাযোগে ইতালির লাম্পেদুসা দ্বীপের উদ্দেশে রওয়ানা হয়েছিলেন। খবর রয়টার্সের।

এক বিবৃতিতে ইতালির আগ্রিজেস্তোর প্রসিকিউটর লুইগি প্যাত্রোনাজিও মঙ্গলবার বলেন, ঠান্ডায় শরীরের তাপমাত্রা দ্রুত কমে আসায় ওই বাংলাদেশিরা প্রাণ হারিয়েছেন।

তিনি জানান, জনবসতিহীন দ্বীপ ল্যাম্পিওনের উপকূল থেকে প্রায় ২৯ কিলোমিটার দূরে ল্যাম্পেদুসার কাছে সারা রাত নৌকাটিকে ভাসতে দেখেন কোস্টগার্ডের সদস্যরা। এরপর সেখানে উদ্ধার অভিযান চালানো হয়। এ ঘটনায় দোষীদের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করার কথাও জানিয়েছেন তিনি।

লাম্পেদুসা দ্বীপের মেয়র সালভারোতে মারতেল্লো এই বাংলাদেশিদের প্রাণহানির ঘটনা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ওই নৌকায় ২৮০ অভিবাসনপ্রত্যাশী ছিলেন। তাদের অধিকাংশ বাংলাদেশ ও মিসরের বাসিন্দা।

জানা যায়, অবৈধ অভিবাসনপ্রত্যাশীদের কাছে ইউরোপে প্রবেশের জন্য ইতালি উপকূলকে প্রধান রুট হিসাবে বিবেচনা করা হয়। আফ্রিকার দেশ লিবিয়া থেকে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে তারা ইতালির বিভিন্ন দ্বীপে প্রবেশের চেষ্টা করেন। কয়েক মাস ধরে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের ইউরোপ যাওয়ার প্রবণতা ব্যাপকভাবে বেড়েছে। এ বিপজ্জনক পথে প্রায়ই দুর্ঘটনার শিকার হন তারা। ইতালি সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, চলতি বছরের ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত ১ হাজার ৭৫১ জন অভিবাসী নৌকার মাধ্যমে ইতালির বিভিন্ন বন্দরে পৌঁছেছেন।

ভূমধ্যসাগরে ৭ বাংলাদেশির মৃত্যু

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৬ জানুয়ারি ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

লিবিয়া থেকে ইতালি যাওয়ার পথে ভূমধ্যসাগরে ঠান্ডায় সাত বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। অবৈধভাবে তারা নৌকাযোগে ইতালির লাম্পেদুসা দ্বীপের উদ্দেশে রওয়ানা হয়েছিলেন। খবর রয়টার্সের।

এক বিবৃতিতে ইতালির আগ্রিজেস্তোর প্রসিকিউটর লুইগি প্যাত্রোনাজিও মঙ্গলবার বলেন, ঠান্ডায় শরীরের তাপমাত্রা দ্রুত কমে আসায় ওই বাংলাদেশিরা প্রাণ হারিয়েছেন।

তিনি জানান, জনবসতিহীন দ্বীপ ল্যাম্পিওনের উপকূল থেকে প্রায় ২৯ কিলোমিটার দূরে ল্যাম্পেদুসার কাছে সারা রাত নৌকাটিকে ভাসতে দেখেন কোস্টগার্ডের সদস্যরা। এরপর সেখানে উদ্ধার অভিযান চালানো হয়। এ ঘটনায় দোষীদের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করার কথাও জানিয়েছেন তিনি।

লাম্পেদুসা দ্বীপের মেয়র সালভারোতে মারতেল্লো এই বাংলাদেশিদের প্রাণহানির ঘটনা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ওই নৌকায় ২৮০ অভিবাসনপ্রত্যাশী ছিলেন। তাদের অধিকাংশ বাংলাদেশ ও মিসরের বাসিন্দা।

জানা যায়, অবৈধ অভিবাসনপ্রত্যাশীদের কাছে ইউরোপে প্রবেশের জন্য ইতালি উপকূলকে প্রধান রুট হিসাবে বিবেচনা করা হয়। আফ্রিকার দেশ লিবিয়া থেকে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে তারা ইতালির বিভিন্ন দ্বীপে প্রবেশের চেষ্টা করেন। কয়েক মাস ধরে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের ইউরোপ যাওয়ার প্রবণতা ব্যাপকভাবে বেড়েছে। এ বিপজ্জনক পথে প্রায়ই দুর্ঘটনার শিকার হন তারা। ইতালি সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, চলতি বছরের ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত ১ হাজার ৭৫১ জন অভিবাসী নৌকার মাধ্যমে ইতালির বিভিন্ন বন্দরে পৌঁছেছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন