তবু বাণিজ্য মেলায় বাঁধভাঙা দর্শনার্থী অগ্রাহ্য স্বাস্থ্যবিধি
jugantor
ভ্রাম্যমাণ আদালতের দণ্ড
তবু বাণিজ্য মেলায় বাঁধভাঙা দর্শনার্থী অগ্রাহ্য স্বাস্থ্যবিধি
৩ চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত

  এ হাই মিলন, রূপগঞ্জ  

২৮ জানুয়ারি ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বাণিজ্য মেলায় স্বাস্থ্যবিধি, সামাজিক দূরত্ব, আইনশৃঙ্খলা, নিয়মনীতি ও ভোক্তা সংরক্ষণ আইন বাস্তবায়নে প্রশাসন কঠোর অবস্থানে থাকলেও দর্শনার্থীরা স্বাস্থ্যবিধি মানেননি খুব একটা। তারা মেলার প্রবেশপথে মাস্ক পরলেও ভেতরে গিয়েই খুলে ফেলেন। আর স্টলে ভিড় ঠেলে কেনাকাটার জন্য স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না। যদিও কেউ কেউ ভ্রাম্যমাণ আদালতের কব্জায় এমন অপরাধের জন্য গুনছেন জরিমানা। আবার দায়িত্বরত তিন চিকিৎসকসহ পাঁচ পুলিশ সদস্য করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

পূর্বাচল নতুন শহর প্রকল্পে মাসব্যাপী অনুষ্ঠিত ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার ২৭তম দিনে মেলায় ঘুরে দেখা গেছে, নিরাপত্তা ও নিয়মনীতি বাস্তবায়নে নিয়োজিত পুলিশ, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, আনসার, স্বেচ্ছাসেবক, মেলা আয়োজক ও ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর কাজ করছেন শুরুর দিন থেকে। মেলায় দায়িত্বরত কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ২৭ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ভ্রাম্যমাণ আদালত বিভিন্ন অনিয়মে ৫২টি মামলায় অনিয়মকারীকে নগদ জরিমানা আদায় করা হয়েছে। এর মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করে মাস্ক না পরা, খাদ্যের মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করা ও পণ্যের দাম বেশি রাখা, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্য উৎপাদন উল্লেখযোগ্য।

নারায়ণগঞ্জ জেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রাসেল হাসান নূর বলেন, মেলা প্রাঙ্গণে অভিযান চালিয়ে ৯টি মামলা তাৎক্ষণিকভাবে নিষ্পত্তি করেছি। এসবের মাঝে ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ আইনে দুই স্টলকে দুই হাজার টাকা করে এবং মাস্ক না পরায় সাতজনের কাছ থেকে ৫০০ টাকা করে জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

সূত্র জানায়, মেলার ২৩তম দিনে নারায়ণগঞ্জ জেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সানজিদা আক্তার মেলা প্রাঙ্গণে অভিযান চালিয়ে সাতটি মামলা নিষ্পত্তি করেন। এর মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করে মাস্ক না পরায় পাঁচজনকে দুই হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়। ভোক্তা-অধিকার আইনে সংরক্ষণ মামলায় দুই স্টল থেকে ১৭ হাজার ১০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। ১২ জানুয়ারি নারায়ণগঞ্জ জেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল মতিন খান মেলা প্রাঙ্গণে অভিযান চালিয়ে ১১টি মামলা তাৎক্ষণিকভাবে নিষ্পত্তি করেন। এদের মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করে মাস্ক না পরায় ১১ জনের কাছ থেকে ২০০ টাকা করে জরিমানা আদায় করা হয়। তবে বাণিজ্য মেলা সুষ্ঠু ও নিয়মনীতির মধ্যে পরিচালনার জন্য প্রশাসন তৎপর রয়েছে। ফলে স্টল মালিক, কর্মকর্তা, কর্মচারী, ক্রেতা, বিক্রেতারা মাস্ক ব্যবহার করেই পণ্য বেচাকেনা করছেন।

রূপগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আতিকুল ইসলাম বলেন, মেলায় স্বাস্থ্যবিধি রক্ষা ও শৃঙ্খলার জন্য মেলা শুরুর দিন থেকে আমরা ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেছি। আইন ভঙ্গ করায় জরিমানা করা হয়েছে অনেককেই। ১০তম দিনে মেলা প্রাঙ্গণে অভিযান চালিয়ে দুটি মামলা তাৎক্ষণিকভাবে নিষ্পত্তি করেছি। এর মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করে মাস্ক না পরায় দুজনকে ৫০০ টাকা করে জরিমানা করা হয়। খাদ্যের মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করায় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ আইনে একটি খাবার দোকানকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক প্রণব কুমার প্রামাণিক বলেন, মেলার শুরু থেকে ২৭ জানুয়ারি পর্যন্ত ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ আইনে ২৫টি মামলায় বিভিন্ন রেস্টুরেন্ট, স্টল থেকে ৮১ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

এদিকে মেলায় দায়িত্বরত তিনজন চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। করোনা আক্রান্ত রূপগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে ডা. আরিফ, ডা. সায়মন ও ডা. জাহিদ আইসোলেশনে আছেন বলে নিশ্চিত করেন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা নূরজাহান আরা খাতুন। এ ছাড়া মেলায় দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে করোনা আক্রান্ত রূপগঞ্জ থানার কয়েকজন পুলিশ সদস্যও আইসোলেশনে রয়েছেন বলে জানিয়েছেন রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এএফএম সায়েদ।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের দণ্ড

তবু বাণিজ্য মেলায় বাঁধভাঙা দর্শনার্থী অগ্রাহ্য স্বাস্থ্যবিধি

৩ চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত
 এ হাই মিলন, রূপগঞ্জ 
২৮ জানুয়ারি ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বাণিজ্য মেলায় স্বাস্থ্যবিধি, সামাজিক দূরত্ব, আইনশৃঙ্খলা, নিয়মনীতি ও ভোক্তা সংরক্ষণ আইন বাস্তবায়নে প্রশাসন কঠোর অবস্থানে থাকলেও দর্শনার্থীরা স্বাস্থ্যবিধি মানেননি খুব একটা। তারা মেলার প্রবেশপথে মাস্ক পরলেও ভেতরে গিয়েই খুলে ফেলেন। আর স্টলে ভিড় ঠেলে কেনাকাটার জন্য স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না। যদিও কেউ কেউ ভ্রাম্যমাণ আদালতের কব্জায় এমন অপরাধের জন্য গুনছেন জরিমানা। আবার দায়িত্বরত তিন চিকিৎসকসহ পাঁচ পুলিশ সদস্য করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

পূর্বাচল নতুন শহর প্রকল্পে মাসব্যাপী অনুষ্ঠিত ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার ২৭তম দিনে মেলায় ঘুরে দেখা গেছে, নিরাপত্তা ও নিয়মনীতি বাস্তবায়নে নিয়োজিত পুলিশ, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, আনসার, স্বেচ্ছাসেবক, মেলা আয়োজক ও ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর কাজ করছেন শুরুর দিন থেকে। মেলায় দায়িত্বরত কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ২৭ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ভ্রাম্যমাণ আদালত বিভিন্ন অনিয়মে ৫২টি মামলায় অনিয়মকারীকে নগদ জরিমানা আদায় করা হয়েছে। এর মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করে মাস্ক না পরা, খাদ্যের মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করা ও পণ্যের দাম বেশি রাখা, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্য উৎপাদন উল্লেখযোগ্য।

নারায়ণগঞ্জ জেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রাসেল হাসান নূর বলেন, মেলা প্রাঙ্গণে অভিযান চালিয়ে ৯টি মামলা তাৎক্ষণিকভাবে নিষ্পত্তি করেছি। এসবের মাঝে ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ আইনে দুই স্টলকে দুই হাজার টাকা করে এবং মাস্ক না পরায় সাতজনের কাছ থেকে ৫০০ টাকা করে জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

সূত্র জানায়, মেলার ২৩তম দিনে নারায়ণগঞ্জ জেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সানজিদা আক্তার মেলা প্রাঙ্গণে অভিযান চালিয়ে সাতটি মামলা নিষ্পত্তি করেন। এর মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করে মাস্ক না পরায় পাঁচজনকে দুই হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়। ভোক্তা-অধিকার আইনে সংরক্ষণ মামলায় দুই স্টল থেকে ১৭ হাজার ১০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। ১২ জানুয়ারি নারায়ণগঞ্জ জেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল মতিন খান মেলা প্রাঙ্গণে অভিযান চালিয়ে ১১টি মামলা তাৎক্ষণিকভাবে নিষ্পত্তি করেন। এদের মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করে মাস্ক না পরায় ১১ জনের কাছ থেকে ২০০ টাকা করে জরিমানা আদায় করা হয়। তবে বাণিজ্য মেলা সুষ্ঠু ও নিয়মনীতির মধ্যে পরিচালনার জন্য প্রশাসন তৎপর রয়েছে। ফলে স্টল মালিক, কর্মকর্তা, কর্মচারী, ক্রেতা, বিক্রেতারা মাস্ক ব্যবহার করেই পণ্য বেচাকেনা করছেন।

রূপগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আতিকুল ইসলাম বলেন, মেলায় স্বাস্থ্যবিধি রক্ষা ও শৃঙ্খলার জন্য মেলা শুরুর দিন থেকে আমরা ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেছি। আইন ভঙ্গ করায় জরিমানা করা হয়েছে অনেককেই। ১০তম দিনে মেলা প্রাঙ্গণে অভিযান চালিয়ে দুটি মামলা তাৎক্ষণিকভাবে নিষ্পত্তি করেছি। এর মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করে মাস্ক না পরায় দুজনকে ৫০০ টাকা করে জরিমানা করা হয়। খাদ্যের মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করায় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ আইনে একটি খাবার দোকানকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক প্রণব কুমার প্রামাণিক বলেন, মেলার শুরু থেকে ২৭ জানুয়ারি পর্যন্ত ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ আইনে ২৫টি মামলায় বিভিন্ন রেস্টুরেন্ট, স্টল থেকে ৮১ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

এদিকে মেলায় দায়িত্বরত তিনজন চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। করোনা আক্রান্ত রূপগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে ডা. আরিফ, ডা. সায়মন ও ডা. জাহিদ আইসোলেশনে আছেন বলে নিশ্চিত করেন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা নূরজাহান আরা খাতুন। এ ছাড়া মেলায় দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে করোনা আক্রান্ত রূপগঞ্জ থানার কয়েকজন পুলিশ সদস্যও আইসোলেশনে রয়েছেন বলে জানিয়েছেন রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এএফএম সায়েদ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন