মুক্তামণির ক্ষতস্থানে পচন ও পোকা, ঝরছে রক্ত

  সাতক্ষীরা প্রতিনিধি ২৩ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

রক্তনালিতে টিউমার আক্রান্ত সাতক্ষীরার মুক্তামণি এখন তীব্র জ্বালা-যন্ত্রণায় নির্জীব হয়ে পড়ছে। টানা ৬ মাসের উন্নত চিকিৎসায় যুদ্ধজয়ের ইতিহাস গড়া সেই মুক্তামণির ক্ষতস্থানে এখন নতুন করে পচন ধরেছে। রোগ সারা দেহে ছড়িয়ে পড়েছে। তীব্র যন্ত্রণায় কাতর মুক্তামণির ডান হাতের পচন জায়গা থেকে বেরিয়ে আসছে ছোটবড় পোকা।

জন্মের দেড় বছর পর ১৩ বছরের শিশু মুক্তামণির দেহে একটি ছোট মার্বেলের মতো গোটা দেখা দেয়। এরপর থেকে সেটি বাড়তে থাকে। দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে নিয়েও তার কোনো চিকিৎসা হয়নি। তার আক্রান্ত হাতটি গাছের গুঁড়ির আকার ধারণ করে প্রচণ্ড ভারি হয়ে ওঠে। এতে পচন ধরে। পোকাও জš§ায়। দিনরাত চুলকানি ও যন্ত্রণায় অস্থির হয়ে থাকত মুক্তামণি। বিকট দুর্গন্ধের কারণে তার বাড়িতে আত্মীয়স্বজন ও পড়শিদের যাতায়াতও এক রকম বন্ধ হয়ে যায়। মুক্তামণির বাবা সাতক্ষীরা সদর উপজেলার কামারবায়সা গ্রামের মুদি দোকানি ইব্রাহিম হোসেন জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার মেয়ের চিকিৎসার দায়িত্ব নেন। ২০১৭ সালের ১০ জুলাই তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের দুই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডা. আবুল কালাম আজাদ ও ডা. সামন্তলাল সেনের নেতৃত্বে একটি মেডিকেল টিম টানা ৬ মাস ধরে তার চিকিৎসা দেয়। এ সময় তার দেহে কয়েক দফা অস্ত্রোপচার করা হয়। চিকিৎসায় তার স্বাস্থ্যের আশানুরূপ উন্নতি হয়। ঢাকায় টানা ৬ মাস চিকিৎসা শেষে এক মাসের ছুটিতে মুক্তামণি ২২ ডিসেম্বর বাড়ি ফিরে আসে। এরপর থেকে ডাক্তারদের পরামর্শ অনুযায়ী বাড়িতে রেখে তার চিকিৎসা চলতে থাকে। এরই মধ্যে তার অবস্থার অবনতি হতে শুরু করেছে। তার বাবা-মা এমনকি মুক্তামণি নিজেই এখন হতাশ। সব ধরনের ওষুধ খাওয়াও বন্ধ হয়ে গেছে। প্রতিদিন একবার করে ড্রেসিং করতে হয়। এখন মুক্তামণি দাঁড়াতে পারে না। দেশ-বিদেশের বহু মানুষ ও প্রতিষ্ঠান তার প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। তারা তার রোগমুক্তি কামনা করেছেন। মুক্তার মা আসমা খাতুন জানান, ডাক্তার বলেছেন ঈদের পর ঢাকায় নিয়ে যেতে।

২৪ ঘণ্টা শয্যাশায়ী মুক্তামণি জানায়, তার দেহে কোনো শক্তি নেই। সব চিকিৎসা ব্যর্থ হয়েছে। এখন তীব্র জ্বালা-যন্ত্রণায় ভুগছি। ক্ষত স্থান থেকে রক্ত ঝরে। পোকা বের হয়। বিকট দুর্গন্ধে কেউ কাছে থাকতে পারে না। একমাত্র আল্লাহ তাকে বাঁচিয়ে রাখতে পারে।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.