বৈচিত্র্যময় খাসির ‘লেগ রোস্ট’

  হক ফারুক আহমেদ ২৬ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বৈচিত্র্যময় খাসির ‘লেগ রোস্ট’

ইফতারিতে সুস্বাদু খাবার ‘মাটন (খাসির) লেগ রোস্ট’ ও ‘লেগ কাবাব’। দাম একটু বেশি হলেও আকারে বড় হওয়ায় অনায়াসে দুই থেকে তিনজন এটি খেতে পারেন।

লেগ রোস্ট সাধারণত পরোটা বা নানরুটির সঙ্গে খাওয়া হয়ে থাকে। রাজধানীর নামিদামি রেস্টুরেন্ট থেকে শুরু করে অধিকাংশ ইফতার বাজারে খাসির লেগ রোস্ট বিক্রি করতে দেখা যায়।

মুরগির রোস্ট তৈরি করার পদ্ধতিতে খাসির লেগ রোস্ট তৈরি করা হয়। এতে মুখরোচক মসলার মিশ্রণ ও গাঢ় ঝোল মাংসের স্বাদ আরও বাড়িয়ে দেয়। আর খাসির লেগ কাবাব অন্য সব কাবাবের মতো মসলাযোগে কয়লার তাপে পুড়িয়ে তৈরি করা হয়।

তবে খাসির লেগ রোস্ট বা কাবাব ছোট-বড় নানা ধরনের হয়ে থাকে। আকারের ওপর নির্ভর করে এই খাবারের দামের তারতম্য। তবে অনেক সময় রেস্তোরাঁভেদেও দামের তারতম্য হতে দেখা যায়।

কাবাবের জন্য বিখ্যাত মোহাম্মদপুর মুস্তাকিম বা পুরান ঢাকার বিসমিল্লাহ কাবাবে খাসির লেগ রোস্ট পাওয়া যায় না। তবে এই কাবারের জন্য খ্যাতিমান রেস্টুরেন্ট হল স্টার হোটেল অ্যান্ড কাবাব।

ধানমণ্ডি, বনানী, কারওয়ান বাজার ও রায়সাহেব বাজারে স্টার হোটেল অ্যান্ড কাবাবের শাখাগুলোতে খাসির লেগ রোস্ট ও কাবাব পাওয়া যায়। এখানকার মাঝারি আকারের প্রতি পিস লেগ রোস্ট ও কাবাব কিনতে ৪০০ টাকা গুনতে হবে।

শুক্রবার বিকালে আজিমপুর থেকে মোটরসাইকেলে ১০ বছরের ছেলে রবিনকে নিয়ে হাফিজুর রহমান ধানমণ্ডির স্টার হোটেল অ্যান্ড কাবাবে এসেছিলেন। বৃষ্টির মধ্যে রেইনকোট পরে তারা এলেন।

হোটেল থেকে তারা বেছে বেছে তিন পিস লেগ রোস্ট কিনলেন। খাবার হিসেবে লেগ রোস্ট কেমন জানতে চাইলে হাফিজুর বলেন, এখানকার সব ধরনের কাবাবই সুস্বাদু। তবে লেগ রোস্ট বছরের অন্য সময় পাওয়া যায় না। বাসার সবাই খেতে পছন্দ করে তাই কিনেছি।

পুরান ঢাকার নর্থ সাউথ রোডের আল রাজ্জাক হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্টে সুস্বাদু খাসির লেগ রোস্ট পাওয়া যায়। তবে এখানকার লেগ রোস্টের দাম একটু বেশি। এখানে দুই ধরনের লেগ রোস্ট পাওয়া যায়। বড় খাসির লেগ রোস্ট প্রতি পিস ১২০০ টাকায় বিক্রি করা হয়। ছোট প্রতি পিস ৬০০ টাকায় বিক্রি করা হয়।

বেইলি রোডের ক্যাপিটালের ইফতার বাজারে খাসির লেগ রোস্ট প্রতি পিস ৬০০ টাকায় পাওয়া যায়। বর্তমানে গুলশান ও বনানী এলাকার হোটেল-রেস্টুরেন্টগুলোতে খাসির লেগ রোস্ট পাওয়া যায়। সেখানে এর দাম এক হাজার থেকে আড়াই হাজার টাকা পড়বে।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter