সীমান্ত পাড়ি দিয়ে ভারতে কালাম

কালাম-আসলাম মাদক সিন্ডিকেটের উৎপত্তিস্থল রাজশাহী কারাগার

  রাজশাহী ব্যুরো ৩০ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সীমান্ত পাড়ি দিয়ে ভারতে কালাম
লাল গোল চিহ্নিত ব্যক্তি রাজশাহী অঞ্চলের মাদক সিন্ডিকেটের আলোচিত গডফাদার কালাম মোল্লা

রাজশাহী অঞ্চলের মাদক সিন্ডিকেটের আলোচিত গডফাদার কালাম মোল্লা ও আসলাম সরকার। রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে দু’জনের পরিচয়।

২০১৫ সালে কালাম মোল্লা মাদকদ্রব্য এবং আসলাম সরকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের মামলায় কারাগারে ছিলেন। সেখানেই তাদের মধ্যে গড়ে ওঠে ঘনিষ্ঠতা।

কারাগারেই এ দু’জন মাদক মাফিয়া রাজশাহীসহ উত্তরাঞ্চলে বিশাল মাদক নেটওয়ার্ক গড়ে তোলার মূল পরিকল্পনা করেন। কারাগার থেকে বের হওয়ার পর রাজশাহী অঞ্চলে কালাম ও আসলাম গড়ে তোলেন মাদক সাম্রাজ্য।

আর এ সাম্রাজ্য নিয়ন্ত্রণের জন্য ‘ব্ল্যাক ক্যাফে’ নামে নগরীর ঘোষপাড়া এলাকায় গড়ে তোলা হয় একটি রেস্টুরেন্ট। এ রেস্টুরেন্টেই কালাম ও আসলাম ছাড়াও উত্তরাঞ্চলসহ দেশের শীর্ষ মাদক মাফিয়াদের অবাধ যাতায়াত ছিল। অনুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে এসব চাঞ্চল্যকর তথ্য।

এদিকে ২৪ মে কক্সবাজারে রাজশাহী নগরীর ডিঙ্গাডোবা এলাকার আজিজুল আলমের ছেলে আসলাম এক লাখ আট হাজার পিস ইয়াবাসহ আটক হন। আটকের খবর পাওয়ার পরই নিজেকে রক্ষা করতে চারঘাট ও বাঘার সীমান্তবর্তী মীরগঞ্জ হেলালপুর গ্রামের আকছেদ আলী মোল্লার ছেলে কালাম মোল্লা সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে আশ্রয় নিয়েছেন বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।

সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানায়, ২০১৫ সালের শেষের দিকে কালাম মোল্লার মাদকের বড় চালান চট্টগ্রামসহ নিজ এলাকায় আটক হতে থাকলে তিনি প্রশাসনের নজরে পড়ে যান।

এ সময় কালাম নিজেকে বাঁচাতে এলাকায় গড়ে তোলেন পুরনো মোটরসাইকেলের একটি শোরুম। কালাম এভাবে নিজেকে বৈধ ব্যবসায়ী হিসেবে প্রকাশ করার চেষ্টা করেন।

একপর্যায়ে ২০১৫ সালের শেষদিকে গ্রেফতার হয়ে যান তিনি। নারী ও শিশু নির্যাতন মামলায় আগে থেকেই রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি ছিলেন আসলাম সরকার।

সেখানেই তারা মাদক নেটওয়ার্ক নির্বিঘ্নে পরিচালনার জন্য ‘ব্ল্যাক ক্যাফে’ রেস্টুরেন্ট গড়ে তোলার পরিকল্পনা করেন। এছাড়া এর পাশেই চারতলা আরেকটি ভবনে সরকার প্রোডাকশন হাউস নামে আরও একটি প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন আন্ডারওয়ার্ল্ডের এ দুই মাফিয়া।

বিভিন্ন গোয়েন্দা এবং আইন প্রয়োগকারী সংস্থার অনুসন্ধানে এ দুটি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমেই তারা মাদক সাম্রাজ্য পরিচালনা করতেন বলে চাঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে এসেছে।

গোয়েন্দা সংস্থার এক শীর্ষ কর্মকর্তা বলেন, আসলাম কক্সবাজারে ইয়াবার বড় চালানসহ আটকের পর একের পর এক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য বেরিয়ে আসছে। এসব তথ্য যাচাই-বাছাই করে দেখা হচ্ছে।

তবে তারা দু’জন বড় মাদক ব্যবসায়ী- এ ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া গেছে। ব্ল্যাক ক্যাফেতে বসেই তারা পরিকল্পনা অনুযায়ী মাদকদ্রব্যের রমরমা ব্যবসা চালাতেন।

এছাড়া শুটিংয়ের আড়ালে কক্সবাজার থেকে রাজশাহীতে ইয়াবার বড় চালান নিয়ে আসা হতো। একটি সূত্রে জানা গেছে, আসলাম সরকার ইয়াবাসহ ধরা পড়ার সময় কালাম মোল্লা রাজশাহীতেই ছিলেন। আসলামের খবর জানার পর পরই তিনি রাজশাহী ছাড়েন। রাতেই বাঘার একটি সীমান্ত দিয়ে তিনি ভারতে চলে যান।

রাজশাহী জেলা পুলিশের মুখপাত্র সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আবদুর রাজ্জাক বলেন, কালাম মোল্লার বিরুদ্ধে চারঘাট ও বাঘাসহ দেশের বিভিন্ন থানায় রয়েছে একাধিক মাদকদ্রব্যসহ হত্যা মামলা।

এর মধ্যে একটি মামলায় তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা রয়েছে। তাকে গ্রেফতারে পুলিশ তৎপরতা চালাচ্ছে। তবে কালাম মোল্লা ভারতে পালিয়ে গেছে কি না- এ ব্যাপারে তিনি নিশ্চিত নন বলে জানিয়েছেন।

jugantor-event-মাদকবিরোধী-অভিযান-২০১৮-54243--1

ঘটনাপ্রবাহ : মাদকবিরোধী অভিযান ২০১৮

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter