ঢাবি ‘খ’ ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষায় পাশের হার ৯.১৩
jugantor
ঢাবি ‘খ’ ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষায় পাশের হার ৯.১৩

  ঢাবি প্রতিনিধি  

২৮ জুন ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির ‘খ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ হয়েছে। এ পরীক্ষায় পাশ করেছেন ৯.৮৭ শতাংশ শিক্ষার্থী। আর ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের ৯০.১৩ শতাংশই অকৃতকার্য হয়েছেন। কলা অনুষদভুক্ত এই ইউনিটে গতবার পাশের হার ছিল ১৬.৮৯ শতাংশ। সোমবার দুপুরে আনুষ্ঠানিকভাবে পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়।

৪ জুন ‘খ’ ইউনিটের পরীক্ষা হয়েছিল। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় এবার তৃতীয়বারের মতো নৈর্ব্যক্তিকের পাশাপাশি লিখিত অংশও ছিল। ‘খ’ ইউনিটে ১ হাজার ৭৮৮ আসনের বিপরীতে ৫৮ হাজার ৫৭৩ শিক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষার আবেদন করেন। পরীক্ষায় অংশ নেন ৪৬ হাজার ৯৭২ জন। ভর্তি পরীক্ষায় লিখিত ও নৈর্ব্যক্তিক অংশে সমন্বিতভাবে উত্তীর্ণ হয়েছেন ৫ হাজার ৬২২ পরীক্ষার্থী। পরীক্ষার ফল জানা যাবে ওয়েবসাইটে।

রোববার দুপুর ১টার দিকে উপাচার্য ড. মো. আখতারুজ্জামান বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের আবদুল মতিন ভার্চুয়াল ক্লাসরুমে ফল ঘোষণা করেন। ওই সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. এএসএম মাকসুদ কামাল, ‘খ’ ইউনিট পরীক্ষার সমন্বয়ক এবং কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আবদুল বাছিরসহ ভর্তি পরীক্ষার সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম নুয়েল : এবার ‘খ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফলে প্রথম হয়েছেন ফরিদপুরের সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের শিক্ষার্থী নাহনুল কবির নুয়েল। তার প্রাপ্ত নম্বর ৭৬ দশমিক ৫০। মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার জিপিএর ভিত্তিতে প্রাপ্ত নম্বরসহ মোট প্রাপ্ত নম্বর ৯৬ দশমিক ৫০। তিনি ভর্তি পরীক্ষায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে পরীক্ষা দিয়েছেন। এছাড়া দ্বিতীয় হয়েছেন বরিশাল সরকারি মহিলা কলেজের শিক্ষার্থী তাবিয়া তাসনিম। তার প্রাপ্ত নম্বর ৭৬ দশমিক ২৫। মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার জিপিএর ভিত্তিতে প্রাপ্ত নম্বরসহ মোট প্রাপ্ত নম্বর ৯৬ দশমিক ২৫। তিনি ভর্তি পরীক্ষায় বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে পরীক্ষা দিয়েছেন। তৃতীয় হয়েছেন সাবরিন আক্তার কেয়া। তিনি মাদারীপুরের সরকারি নাজিমউদ্দিন কলেজের শিক্ষার্থী ছিলেন। তার বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর ৭৬ দশমিক ২৫। আর মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকের জিপিএ মিলে সর্বমোট তার প্রাপ্ত নম্বর ৯৬ দশমিক ২৫। তিনিও ভর্তি পরীক্ষায় বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে পরীক্ষা দিয়েছেন।

দ্বিতীয় এবং তৃতীয় স্থান অর্জন করা শিক্ষার্থীর সমান নম্বর পাওয়ার বিষয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, নীতিমালার আলোকে গড় নম্বর এক হলেও দুটি বিষয়ে নম্বর বেশি পাওয়ায় দ্বিতীয় এবং তৃতীয় করা হয়েছে।

ঢাবি ‘খ’ ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষায় পাশের হার ৯.১৩

 ঢাবি প্রতিনিধি 
২৮ জুন ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির ‘খ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ হয়েছে। এ পরীক্ষায় পাশ করেছেন ৯.৮৭ শতাংশ শিক্ষার্থী। আর ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের ৯০.১৩ শতাংশই অকৃতকার্য হয়েছেন। কলা অনুষদভুক্ত এই ইউনিটে গতবার পাশের হার ছিল ১৬.৮৯ শতাংশ। সোমবার দুপুরে আনুষ্ঠানিকভাবে পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়।

৪ জুন ‘খ’ ইউনিটের পরীক্ষা হয়েছিল। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় এবার তৃতীয়বারের মতো নৈর্ব্যক্তিকের পাশাপাশি লিখিত অংশও ছিল। ‘খ’ ইউনিটে ১ হাজার ৭৮৮ আসনের বিপরীতে ৫৮ হাজার ৫৭৩ শিক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষার আবেদন করেন। পরীক্ষায় অংশ নেন ৪৬ হাজার ৯৭২ জন। ভর্তি পরীক্ষায় লিখিত ও নৈর্ব্যক্তিক অংশে সমন্বিতভাবে উত্তীর্ণ হয়েছেন ৫ হাজার ৬২২ পরীক্ষার্থী। পরীক্ষার ফল জানা যাবে ওয়েবসাইটে।

রোববার দুপুর ১টার দিকে উপাচার্য ড. মো. আখতারুজ্জামান বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের আবদুল মতিন ভার্চুয়াল ক্লাসরুমে ফল ঘোষণা করেন। ওই সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. এএসএম মাকসুদ কামাল, ‘খ’ ইউনিট পরীক্ষার সমন্বয়ক এবং কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আবদুল বাছিরসহ ভর্তি পরীক্ষার সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম নুয়েল : এবার ‘খ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফলে প্রথম হয়েছেন ফরিদপুরের সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের শিক্ষার্থী নাহনুল কবির নুয়েল। তার প্রাপ্ত নম্বর ৭৬ দশমিক ৫০। মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার জিপিএর ভিত্তিতে প্রাপ্ত নম্বরসহ মোট প্রাপ্ত নম্বর ৯৬ দশমিক ৫০। তিনি ভর্তি পরীক্ষায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে পরীক্ষা দিয়েছেন। এছাড়া দ্বিতীয় হয়েছেন বরিশাল সরকারি মহিলা কলেজের শিক্ষার্থী তাবিয়া তাসনিম। তার প্রাপ্ত নম্বর ৭৬ দশমিক ২৫। মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার জিপিএর ভিত্তিতে প্রাপ্ত নম্বরসহ মোট প্রাপ্ত নম্বর ৯৬ দশমিক ২৫। তিনি ভর্তি পরীক্ষায় বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে পরীক্ষা দিয়েছেন। তৃতীয় হয়েছেন সাবরিন আক্তার কেয়া। তিনি মাদারীপুরের সরকারি নাজিমউদ্দিন কলেজের শিক্ষার্থী ছিলেন। তার বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর ৭৬ দশমিক ২৫। আর মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকের জিপিএ মিলে সর্বমোট তার প্রাপ্ত নম্বর ৯৬ দশমিক ২৫। তিনিও ভর্তি পরীক্ষায় বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে পরীক্ষা দিয়েছেন।

দ্বিতীয় এবং তৃতীয় স্থান অর্জন করা শিক্ষার্থীর সমান নম্বর পাওয়ার বিষয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, নীতিমালার আলোকে গড় নম্বর এক হলেও দুটি বিষয়ে নম্বর বেশি পাওয়ায় দ্বিতীয় এবং তৃতীয় করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন