টিসিবির জন্য সোয়া কোটি লিটার তেল কিনবে সরকার
jugantor
টিসিবির জন্য সোয়া কোটি লিটার তেল কিনবে সরকার

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৮ আগস্ট ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভর্তুকি মূল্যে স্বল্প আয়ের মানুষের কাছে বিক্রি করতে টিসিবির জন্য এক কোটি ২৫ লাখ লিটার সয়াবিন তেল কিনবে সরকার। এ ছাড়া ৫ হাজার মেট্রিক টন মসুর ডাল কেনা হবে। বুধবার সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে এ প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়। অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে ভার্চুয়ালি বৈঠক হয়।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. আবদুল বারিক সাংবাদিকদের বলেন, সুপার অয়েল রিফাইনারি লিমিটেডের কাছ থেকে সরাসরি ৪০ লাখ লিটার তেল কেনা হবে। প্রতি লিটারের মূল্য হবে প্রায় ১৭৪ টাকা। এছাড়া সামসিং এডিবল অয়েল রিফাইনারি ২০ লাখ লিটার, বসুন্ধরা মাল্টিফুড প্রডাক্ট লি. থেকে ৩৫ লাখ লিটার এবং সিনো এডিবল অয়েল লিমিটেড থেকে ৩০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল কিনবে সরকার। প্রতি লিটারের মূল্য পড়বে ১৭১ টাকা।

এছাড়া সরাসরি ক্রয় পদ্ধতিতে ৫ হাজার মেট্রিক টন মসুর ডাল কেনা হবে। প্রতিকেজি দাম পড়বে ১১১ টাকা। নাবিল নওগাঁ ফুড লি. থেকে ১ হাজার মেট্রিক টন, এসিআই পিওর ফ্লাওয়ার লিমিটেড থেকে ৩ হাজার মেট্রিক টন এবং এমএস রায় ট্রেডার্স লিমিটেড থেকে ১ হাজার মেট্রিক টন ডাল ক্রয় করা হবে।

অতিরিক্ত সচিব জানান, বৈঠকে আরও ১৬টি প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এতে ব্যয় হবে ১ হাজার ৮৯৫ কোটি টাকা। তিনি বলেন, ‘কুষ্টিয়া থেকে মেহেরপুর পর্যন্ত আঞ্চলিক মহাসড়কের মান ও প্রশস্ততায় উন্নীতকরণ’ প্রকল্পের পূর্ত কাজের ক্রয় প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। এতে ব্যয় হবে ১০১ কোটি টাকা। এছাড়া ঢাকা ওয়াসার ‘ঢাকা এনভারনমেন্টালি সাসটেইনেবল ওয়াটার প্রকল্পের আওতায় কাজের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। প্রকল্পে ব্যয় হবে প্রায় ৩৭৩ কোটি টাকা।

এছাড়া রাষ্ট্রীয় চুক্তির মাধ্যমে কাতার থেকে ৩০ হাজার মেট্রিক টন ইউরিয়া সার আমদানি করা হবে। সারের দাম হবে প্রতি মেট্রিক টন ৫৩৬ মার্কিন ডলার। এতে ব্যয় হবে ১ কোটি ৬০ লাখ ৯৫ হাজার মার্কিন ডলার। অপর প্রস্তাবে কর্ণফুলী ফার্টিলাইজার কোম্পানি লিমিটেডের (কাফকো) কাছ থেকে ৩০ হাজার মেট্রিক টন ইউরিয়া সার কেনার প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়। প্রতি মেট্রিক টন ৫৩৩ ডলার হিসাবে ১ কোটি ৫৯ লাখ ৯৭ হাজার ৫০০ মার্কিন ডলার ব্যয় হবে।

একইভাবে সৌদি আরব থেকে ৬০ হাজার মেট্রিক টন ইউরিয়া সার আমদানির প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। প্রতি মেট্রিক টন ৫৩৪ ডলার হিসাবে ব্যয় হবে প্রায় ৩ কোটি ১৮ মার্কিন ডলার। এছাড়া চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের জিসিবি এলাকায় কার্গো হ্যান্ডেলিং অব্যাহত রাখার লক্ষ্যে কনটেইনার বার্থ অপারেটর নিয়োগের প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। এতে ব্যয় হবে প্রায় ৭৭ কোটি টাকা।

টিসিবির জন্য সোয়া কোটি লিটার তেল কিনবে সরকার

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৮ আগস্ট ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভর্তুকি মূল্যে স্বল্প আয়ের মানুষের কাছে বিক্রি করতে টিসিবির জন্য এক কোটি ২৫ লাখ লিটার সয়াবিন তেল কিনবে সরকার। এ ছাড়া ৫ হাজার মেট্রিক টন মসুর ডাল কেনা হবে। বুধবার সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে এ প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়। অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে ভার্চুয়ালি বৈঠক হয়।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. আবদুল বারিক সাংবাদিকদের বলেন, সুপার অয়েল রিফাইনারি লিমিটেডের কাছ থেকে সরাসরি ৪০ লাখ লিটার তেল কেনা হবে। প্রতি লিটারের মূল্য হবে প্রায় ১৭৪ টাকা। এছাড়া সামসিং এডিবল অয়েল রিফাইনারি ২০ লাখ লিটার, বসুন্ধরা মাল্টিফুড প্রডাক্ট লি. থেকে ৩৫ লাখ লিটার এবং সিনো এডিবল অয়েল লিমিটেড থেকে ৩০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল কিনবে সরকার। প্রতি লিটারের মূল্য পড়বে ১৭১ টাকা।

এছাড়া সরাসরি ক্রয় পদ্ধতিতে ৫ হাজার মেট্রিক টন মসুর ডাল কেনা হবে। প্রতিকেজি দাম পড়বে ১১১ টাকা। নাবিল নওগাঁ ফুড লি. থেকে ১ হাজার মেট্রিক টন, এসিআই পিওর ফ্লাওয়ার লিমিটেড থেকে ৩ হাজার মেট্রিক টন এবং এমএস রায় ট্রেডার্স লিমিটেড থেকে ১ হাজার মেট্রিক টন ডাল ক্রয় করা হবে।

অতিরিক্ত সচিব জানান, বৈঠকে আরও ১৬টি প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এতে ব্যয় হবে ১ হাজার ৮৯৫ কোটি টাকা। তিনি বলেন, ‘কুষ্টিয়া থেকে মেহেরপুর পর্যন্ত আঞ্চলিক মহাসড়কের মান ও প্রশস্ততায় উন্নীতকরণ’ প্রকল্পের পূর্ত কাজের ক্রয় প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। এতে ব্যয় হবে ১০১ কোটি টাকা। এছাড়া ঢাকা ওয়াসার ‘ঢাকা এনভারনমেন্টালি সাসটেইনেবল ওয়াটার প্রকল্পের আওতায় কাজের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। প্রকল্পে ব্যয় হবে প্রায় ৩৭৩ কোটি টাকা।

এছাড়া রাষ্ট্রীয় চুক্তির মাধ্যমে কাতার থেকে ৩০ হাজার মেট্রিক টন ইউরিয়া সার আমদানি করা হবে। সারের দাম হবে প্রতি মেট্রিক টন ৫৩৬ মার্কিন ডলার। এতে ব্যয় হবে ১ কোটি ৬০ লাখ ৯৫ হাজার মার্কিন ডলার। অপর প্রস্তাবে কর্ণফুলী ফার্টিলাইজার কোম্পানি লিমিটেডের (কাফকো) কাছ থেকে ৩০ হাজার মেট্রিক টন ইউরিয়া সার কেনার প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়। প্রতি মেট্রিক টন ৫৩৩ ডলার হিসাবে ১ কোটি ৫৯ লাখ ৯৭ হাজার ৫০০ মার্কিন ডলার ব্যয় হবে।

একইভাবে সৌদি আরব থেকে ৬০ হাজার মেট্রিক টন ইউরিয়া সার আমদানির প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। প্রতি মেট্রিক টন ৫৩৪ ডলার হিসাবে ব্যয় হবে প্রায় ৩ কোটি ১৮ মার্কিন ডলার। এছাড়া চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের জিসিবি এলাকায় কার্গো হ্যান্ডেলিং অব্যাহত রাখার লক্ষ্যে কনটেইনার বার্থ অপারেটর নিয়োগের প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। এতে ব্যয় হবে প্রায় ৭৭ কোটি টাকা।

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন