আওয়ামী লীগকে বিতাড়িত করা অত সহজ নয়
jugantor
ভোলায় বিএনপিকে তোফায়েল
আওয়ামী লীগকে বিতাড়িত করা অত সহজ নয়

  ভোলা প্রতিনিধি  

০৪ অক্টোবর ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিএনপিকে উদ্দেশ করে আওয়ামী লীগ উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সাবেক মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর কথায় কথায় বলেন-আমাদের উচ্ছেদ করবেন। বিতাড়িত করবেন। আমাদের বিতাড়িত করা অত সহজ নয়। আপনারা বিবৃতি বক্তব্য দিয়ে যান। আর আমরা জনগণের জন্য কাজ করে যাব। আমরা রাজনীতি করি মানুষের কল্যাণের জন্য। ভোলায় নিজ বাসভবনে দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি সোমবার এসব কথা বলেন। এ সময় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের গ্রামে গ্রামে গণসংযোগে থাকারও আহ্বান জানান বর্ষীয়ান এ নেতা।

এর আগে তিনি কাচিয়া ইউনিয়নের পরাণগঞ্জ মাদ্রাসা মাঠের জনসভায় বক্তব্য দেন। টানা পাঁচ দিন অবস্থানকালে তিনটি জনসভা, ১০টি পথসভা ও দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময়ের পাশাপাশি শারদীয় দুর্গোৎসবের পূজামণ্ডপ পরিদর্শন করেন তিনি। সোমবার দুপুরে ঢাকার উদ্দেশে সড়কপথে ভোলা ত্যাগ করেন। ভেদুরিয়া ফেরিঘাটে তাকে বিদায় জানাতে বৃষ্টি উপেক্ষা করেও দলীয় নেতাকর্মীরা ভিড় জমান। আগামী নির্বাচন সামনে রেখে ইউনিয়নে ইউনিয়নে জনসভা, পথসভা ও গণসংযোগে ব্যস্ত সময় কাটান তিনি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জেলা আওয়ামী লীগ সিনিয়র সহসভাপতি আবদুল মমিন টুলু, উপজেলা আওয়ামী লীগ সম্পাদক নজরুল ইসলাম গোলদার, সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগ সম্পাদক মইনুল হোসেন বিপ্লব, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক জহুরুল ইসলাম নকিব, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ডেপুটি কমান্ডার সফিকুল ইসলাম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. ইউনুছ, জেলা শ্রমিক লীগ সম্পাদক মো. ফারুক, স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আবু ছায়েম, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রাইয়ান আহমেদ প্রমুখ।

ভোলায় বিএনপিকে তোফায়েল

আওয়ামী লীগকে বিতাড়িত করা অত সহজ নয়

 ভোলা প্রতিনিধি 
০৪ অক্টোবর ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিএনপিকে উদ্দেশ করে আওয়ামী লীগ উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সাবেক মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর কথায় কথায় বলেন-আমাদের উচ্ছেদ করবেন। বিতাড়িত করবেন। আমাদের বিতাড়িত করা অত সহজ নয়। আপনারা বিবৃতি বক্তব্য দিয়ে যান। আর আমরা জনগণের জন্য কাজ করে যাব। আমরা রাজনীতি করি মানুষের কল্যাণের জন্য। ভোলায় নিজ বাসভবনে দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি সোমবার এসব কথা বলেন। এ সময় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের গ্রামে গ্রামে গণসংযোগে থাকারও আহ্বান জানান বর্ষীয়ান এ নেতা।

এর আগে তিনি কাচিয়া ইউনিয়নের পরাণগঞ্জ মাদ্রাসা মাঠের জনসভায় বক্তব্য দেন। টানা পাঁচ দিন অবস্থানকালে তিনটি জনসভা, ১০টি পথসভা ও দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময়ের পাশাপাশি শারদীয় দুর্গোৎসবের পূজামণ্ডপ পরিদর্শন করেন তিনি। সোমবার দুপুরে ঢাকার উদ্দেশে সড়কপথে ভোলা ত্যাগ করেন। ভেদুরিয়া ফেরিঘাটে তাকে বিদায় জানাতে বৃষ্টি উপেক্ষা করেও দলীয় নেতাকর্মীরা ভিড় জমান। আগামী নির্বাচন সামনে রেখে ইউনিয়নে ইউনিয়নে জনসভা, পথসভা ও গণসংযোগে ব্যস্ত সময় কাটান তিনি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জেলা আওয়ামী লীগ সিনিয়র সহসভাপতি আবদুল মমিন টুলু, উপজেলা আওয়ামী লীগ সম্পাদক নজরুল ইসলাম গোলদার, সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগ সম্পাদক মইনুল হোসেন বিপ্লব, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক জহুরুল ইসলাম নকিব, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ডেপুটি কমান্ডার সফিকুল ইসলাম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. ইউনুছ, জেলা শ্রমিক লীগ সম্পাদক মো. ফারুক, স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আবু ছায়েম, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রাইয়ান আহমেদ প্রমুখ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন