জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউট ও হাসপাতাল

জটিল হৃদরোগের চিকিৎসা সরাসরি দেখলেন বিশ্বের ৫ হাজার ডাক্তার

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৩ জুন ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

জটিল হৃদরোগের চিকিৎসা সরাসরি দেখলেন বিশ্বের ৫ হাজার ডাক্তার
অধ্যাপক ডা. আফজাুর রহমানের নেতৃত্বে পরিচালিত হৃদরোগের জটিল অপারেশন, যা স্যাটেলাইটের মাধ্যমে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়।

ঢাকার জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউট ও হাসপাতালে করা একটি জটিল হৃদরোগের চিকিৎসা সরাসরি দেখলেন বিশ্বের ৫ হাজার ডাক্তার।

২০ জুন কমপ্লেক্স করোনারি হার্ট ডিজিজে আক্রান্ত ওই হৃদরোগীর হার্টে রিং পরানো হয়, যা স্যাটেলাইটের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের অরলান্ডোতে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক হৃদরোগ সম্মেলনে (সি-থ্রি) সরাসরি সম্প্রচার করা হয়। সেখানে বিশ্বের প্রায় ৫ হাজার হৃদরোগ চিকিৎসক উপস্থিত থেকে এ চিকিৎসা পদ্ধতি অবলোকন করেন।

বাংলাদেশ থেকে এ ধরনের জটিল রোগের চিকিৎসা সরাসরি সম্প্রচার এটাই প্রথম। এটি যুক্তরাষ্ট্রে খুবই প্রসংশিত হয়েছে। এ পদ্ধতিতে আইভাস, এফএফআরের মতো আধুনিক যন্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে।

এ ধরনের জটিল রোগীর হার্টে রিং সফলভাবে পরানোর জন্য জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউট ও হাসপাতালের পরিচালক এবং এ চিকিৎসা পদ্ধতির প্রধান চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. আফজালুর রহমানের ভূয়সী প্রশংসা করেন আন্তর্জাতিক সম্মেলনে উপস্থিত চিকিৎসকরা। তারা অধ্যাপক আফজালকে বাংলাদেশে আধুনিক হৃদরোগ চিকিৎসার জনক বলে আখ্যায়িত করেন।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে অধ্যাপক ডা. আফজালুর রহমান যুগান্তরকে বলেন, স্যাটেলাইটের মাধ্যমে বিশ্বের ৫ হাজার চিকিৎসক যে চিকিৎসা পদ্ধতি সরাসরি দেখেছেন সেটি অত্যন্ত জটিল এবং আধুনিক।

এটি মূলত একটি ‘কমপ্লেক্স করোনারি হার্ট ডিজিজ’। চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় একে ‘টাইফোকেটেড লেফট ভিসটাল মেইন ডিফিউজলি ডিজিজ’ হিসেবে বলা যায়। সহজ করে বলা যায়, হার্টের প্রধান রক্তনালির একাধিক জটিল ব্লক অপসারণ।

এ ধরনের জটিল রোগীদের ক্ষেত্রে এর আগে একমাত্র চিকিৎসা ছিল বাইপাস সার্জারি। তবে এখন আর বাইপাস সার্জারি করতে হবে না। স্টান্টিং বা রিং পরে এসব রোগী সুস্থ জীবন-যাপন করতে পারবেন।

অধ্যাপক আফজাল বলেন, ২০ জুন জাতীয় হৃদরোগ হাসপাতালের তিন নং ক্যাথ লাবে একজন পূর্ণবয়স্ক পুরুষের এ চিকিৎসা করা হয়েছে।

প্রায় বছর খানেক ধরে বাংলাদেশে এ ধরনের জটিল চিকিৎসা পদ্ধতি চালু হয়েছে। কিছু অত্যাধুনিক চিকিৎসা যন্ত্র ব্যবহার করার কারণে সাধারণ স্টান্টিংয়ের চেয়ে খরচ সামান্য বেশি পড়ে। তবে জাতীয় হৃদরোগ হাসপাতালে খরচ সাধারণের নাগালের মধ্যেই।

অধ্যাপক আফজালের নেতৃত্বে পরিচালিত এ জটিল হৃদরোগ চিকিৎসা অব্যাহত রাখতে এবং ভবিষ্যতে এ ধরনের আরও জটিল হৃদরোগীর চিকিৎসা সরাসরি সম্প্রচারের আহ্বান জানিয়েছেন আন্তর্জাতিক হৃদরোগ চিকিৎসকরা।

সংশ্লিষ্টরা জানান, বাংলাদেশ থেকে যুক্তরাষ্ট্রের আন্তর্জাতিক হৃদরোগ সম্মেলনে কোনো জটিল অপারেশন সরাসরি সম্প্রচার এটাই প্রথম।

বর্তমানে দেশের হৃদরোগ চিকিৎসা ব্যবস্থা অনেক উন্নত হয়েছে। সব ধরনের হৃদরোগ চিকিৎসা একমাত্র জাতীয় হৃদরোগ হাসপাতালেই হয়ে থাকে।

অধ্যাপক আফজালের সঙ্গে এ জটিল ও কঠিন চিকিৎসায় আরও যারা সহযোগিতা করেছেন তাদের মধ্যে রয়েছে ডা. মহসিন, ডা. তারেক, ডা. ফারহানা, ডা. আরিফ প্রমুখ।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter