কারাগারে আদালত

কর্নেল তাহেরের বিচার কি সংবিধান লঙ্ঘন হয়নি?

হানিফ

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

অভিযোগ

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেছেন, আমরা চাই খালেদা জিয়া মুক্তি পাক।

সাবেক প্রধানমন্ত্রী এতিমের টাকা আত্মসাৎ করে দণ্ডিত হয়ে কারাগারে আছেন। এতে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয়। তিনি যদি নিজেকে নির্দোষ ভাবেন তাহলে আইনি লড়াইয়ের মাধ্যমে নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করে মুক্ত করুন।

শুক্রবার আগারগাঁওয়ে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রধান কার্যালয়ে ইমাম প্রশিক্ষণ একাডেমি আয়োজিত প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ইমামদের রিফ্রেসার্স প্রশিক্ষণ কোর্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

খালেদা জিয়ার শারীরিক অসুস্থতা ও নিরাপত্তা বিবেচনা করে কারাগারের পাশে আদালত স্থাপন করা হয়েছে বলে জানান হানিফ।

তিনি বলেন, বিএনপি সংবিধান লঙ্ঘনের অভিযোগ করছে। বিএনপির কাছে প্রশ্ন করতে চাই, জিয়াউর রহমান যখন কারাগারের ভেতরে আদালত বসিয়ে কর্নেল তাহেরকে ফাঁসি দিয়েছিলেন তখন কি সংবিধান লঙ্ঘিত হয়নি?

হানিফ আরও বলেন, এতিমের টাকা আত্মসাৎ করে সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া দণ্ডিত হয়ে কারাগারে আছেন। তার মুক্তি আদালতের মাধ্যমে হতে পারে। এছাড়া মহামান্য রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা প্রার্থনার মাধ্যমে তিনি মুক্তি পেতে পারেন। এছাড়া মুক্তির আর কোনো পথ নেই।

জামায়াতে ইসলামীর সমালোচনা করে মাহবুবউল আলম হানিফ বলেন, ইসলামের জন্য সবচেয়ে ক্ষতিকর জামায়াতে ইসলাম। অনুষ্ঠানে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সচিব কাজী নূরুল ইসলাম স্বাগত বক্তব্য দেন।

ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বোর্ড অব গভর্নর সিরাজউদ্দিন আহমেদ, ইমাম প্রশিক্ষণ একাডেমির পরিচালক জালাল আহমেদ, ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রেস ব্যবস্থাপক বোরহান উদ্দিন মো. আবু আহসান ও পরিকল্পনা বিভাগের পরিচালক মুহাম্মদ রফিক প্রমুখ অনুষ্ঠানে ছিলেন।

আদালতকে খালেদা জিয়া ও বিএনপি হেনস্থা করছে : আদালতকে বন্দি করা হয়েছে- বিএনপি নেতা রুহুল কবির রিজভীর সাম্প্রতিক এমন বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করে আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, প্রকৃতপক্ষে আদালতকে খালেদা জিয়া, বিএনপি এবং বিএনপির আইনজীবীরা হেনস্থা করছে।

সুতরাং বিএনপি এসব বক্তব্য দিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করার অপচেষ্টা করছে। শুক্রবার সকালে ধানমণ্ডির আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ের নতুন ভবনে আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা উপ-কমিটির নিয়মিত বৈঠক শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় সেখানে ছিলেন তথ্য-প্রযুক্তি ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন প্রমুখ।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.