সাড়া ফেলেছে চরফ্যাশনের জ্যাকব টাওয়ার

৭ মাসে চূড়ায় ওঠা পর্যটকের সংখ্যা ১ লাখের বেশি

  বরিশাল ব্যুরো ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

পর্যটকদের এক নতুন ঠিকানা ভোলার চরফ্যাশনের জ্যাকব টাওয়ার। প্রতিদিনই এ টাওয়ার দেখতে দূর-দূরান্ত থেকে আসছে মানুষ। শুধু দেশের পর্যটক নয়, আসছেন বিদেশিরাও। প্রতিষ্ঠার ৭ মাসের মাথায় এ টাওয়ার দেখতে আসা পর্যটকের সংখ্যা ১ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। চরফ্যাশন থেকে পাওয়া খবরানুযায়ী, টাওয়ারের চূড়ায় উঠতে প্রতিদিনই লম্বা লাইনে অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে পর্যটকদের। ছুটির দিনে বিভিন্ন বয়সের মানুষের ঢল নামে।

গত ২৫ জানুয়ারি টাওয়ারটি উদ্বোধন করেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। টাওয়ারের চূড়ায় উঠে বাইনোকুলারে চোখ রাখলেই সামনে ভেসে ওঠে রিজার্ভ ফরেস্ট চর কুকরি-মুকরির নয়নাভিরাম সবুজের সারি। মনে হয় যেন হাত বাড়ালেই ছোঁয়া যাবে ঘন জঙ্গলের এলোমেলো ডালপালা। এর একটু ডানে আর বামে চোখ ফেরালে দৃষ্টিসীমায় ভেসে আসে সমুদ্রসৈকত তারুয়া, স্বপ্নদ্বীপ মনপুরার চর পিয়াল, হাতিয়ার নিঝুম দ্বীপ আর গভীর বঙ্গোপসাগরের নীল জলরাশি। চোখ বন্ধ করে কান পাতলেই যেন শোনা যায় ঢেউয়ের গর্জন। অনেকটা প্যারিসের আইফেল টাওয়ারের আদলে নির্মিত এ টাওয়ার উপমহাদেশের সর্বোচ্চ ওয়াচ টাওয়ার বলে সংশ্লিষ্টদের দাবি। উচ্চতা ২১৫ ফুট। এক একর জমিতে প্রায় ২০ কোটি টাকা ব্যয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য এবং বন ও পরিবেশ উপমন্ত্রী আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকবের উদ্যোগে নির্মিত হয়েছে টাওয়ারটি। নির্মাণ প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছে চরফ্যাশন পৌরসভা। পৌর শহরের প্রাণকেন্দ্রে দৃষ্টিনন্দন ফ্যাশন স্কয়ারের পাশে নির্মিত এ টাওয়ার শুধু দেশেই নয়, আন্তর্জাতিকভাবেও বাংলাদেশকে একটি ভিন্ন পরিচিতি এনে দিয়েছে। সম্পূর্ণ ইস্পাত দিয়ে নির্মিত ১৯তলা উচ্চতার এ টাওয়ার আট মাত্রার ভূমিকম্প সহনীয়। চারদিকে অ্যালুমিনিয়ামের ওপর ৫ মিলিমিটার ব্যাসের স্বচ্ছ গ্লাস। টাওয়ারের চূড়ায় ওঠানামার জন্য আছে সিঁড়িসহ দক্ষিণ কোরিয়া থেকে ডিজাইন করে আনা ১৭ জন ধারণক্ষমতাসম্পন্ন অত্যাধুনিক ক্যাপসুল লিফট।

চরফ্যাশন পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আকবর হাওলাদার বলেন, ‘দেশ-বিদেশের হাজার হাজার মানুষ প্রতিদিন এটি দেখতে আসছেন। যে চরফ্যাশনকে এক সময় মানুষ চিনত না, সেই চরফ্যাশনই এখন সবার কাছে আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দু।’

পৌরসভার মেয়র বাদল কৃষ্ণ দেবনাথ বলেন, ‘উদ্বোধনের মাত্র ৭ মাসের মাথায় লক্ষাধিক পর্যটকের পরিদর্শনই প্রমাণ করে যে জ্যাকব টাওয়ার ভ্রমণপিপাসু মানুষের মধ্যে কতটা সাড়া ফেলেছে।’

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter