আইএমইডির প্রতিবেদন

৬৩ কোটি টাকা বিনিয়োগে পথশিশুদের উন্নয়ন

  হামিদ-উজ-জামান ২১ জুলাই ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

পরিবারের আয় বাড়িয়ে পথশিশুদের উন্নয়নের পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার। এ বিষয়ে নেয়া একটি প্রকল্পের কাজ ইতিমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। এতে প্রকল্পের আওতায় শিশুদের পরিবারের আয় বেড়েছে। শিশুরাও নানাভাবে উপকৃত হয়েছে। ৬৩ কোটি টাকা বিনিয়োগ করে প্রাথমিকভাবে ‘চাইল্ড সেনসেটিভ সোশ্যাল প্রোটেকশন ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক প্রকল্পটি ইতিমধ্যে বাস্তবায়ন করা হয়েছে।

পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়ন, পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগ (আইএমইডি) প্রকল্পের ওপর সম্প্রতি একটি প্রতিবেদন তৈরি করেছে। গত জুনে তৈরি করা প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, প্রকল্পকালীন সময়ে চাইল্ড হেল্পলাইনের মাধ্যমে ১ লাখ ৭ হাজার ৪৮১ জন শিশু, যুব, ছাত্র, শিক্ষক এবং পিতা-মাতা ফোন করেছে। এ ছাড়া চাইল্ড হেল্পলাইন সেবার মাধ্যমে ৮৮৮ শিশুর বাল্যবিবাহ বন্ধ করা সম্ভব হয়েছে। এ ছাড়া এ সেবার মাধ্যমে অনেক শিশুকে ঝুঁকিপূর্ণ স্থান থেকে উদ্ধার করা হয়েছে এবং তাদের নিরাপদ আশ্রয়ের জন্য সরকারি ও বেসরকারি সংস্থায় রেফার করা হয়েছে।

এতে বলা হয়, উপ-আনুষ্ঠানিক শিক্ষা গ্রহণের ক্ষেত্রে তালিকাভুক্ত এবং এ শিক্ষা দেয়া হয়েছে ৩৪ হাজার ২৯০ জন শিশুকে। এ শিক্ষা শেষে এক-তৃতীয়াংশ শিশু পাস করেছে (গ্র্যাজুয়েশন) এবং এদের মধ্যে প্রায় ৬৫ শতাংশ শিশু আনুষ্ঠানিক শিক্ষা গ্রহণ করেছে। এ ছাড়া এসব শিশুর স্বাস্থ্যসেবা দেয়া হয়েছে এবং জটিল শারীরিক সমস্যার জন্য বিভিন্ন হাসপাতাল ও ক্লিনিকে রেফার করা হয়েছে। অন্যান্য সেবার মধ্যে রয়েছে- মনোসামাজিক কাউন্সেলিং, আইনি সহায়তা, জীবন দক্ষতামূলক শিক্ষা, কারিগরি শিক্ষা, বিনোদন ও বিশ্রামের ব্যবস্থা। প্রতিবেদনে প্রকল্পের দুর্বল দিকগুলো সম্পর্কে বলা হয়েছে, সময়মতো অর্থ ছাড় না করার ফলে সময়মতো শিশুদের অভিভাবকদের কাছে অর্থ বিতরণ করা সম্ভব হয়নি। প্রকল্প চলাকালীন অর্থাৎ ৫ বছরে মোট ৬ বার জাতীয় প্রকল্প পরিচালক পরিবর্তন করা হয়েছে। এ ছাড়া মনিটরিং ও ফলোআপ ব্যবস্থাও দুর্বল।

এতে বলা হয়, শিশুকে পরিবারে পুনরেকত্রীকরণের জন্য নিয়ে গেলে অনেক ক্ষেত্রে প্রকৃত অভিভাবক খুঁজে পাওয়া যায় না। দেখা যায় বাবা নেই, মা-বাবা দ্বিতীয় বিয়ে করেছে। আত্মীয়রা শিশুটিকে নিতে চায় না অথবা নিলেও পরবর্তী সময়ে শিশুটি পরিবার থেকে আবার রাস্তায় চলে আসে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×