সবচেয়ে মূল্যবান ৫ ধাতু

  যুগান্তর ডেস্ক ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সাধারণত আমরা সোনা বা হীরাকে সবচেয়ে মূল্যবান রত্ন হিসেবে মনে করি। শুধু অলঙ্কার রূপে পরতে পারলেই যে এই ধাতুগুলো খুব মূল্যবান তা নয়। বিশ্বে এমন কিছু ধাতু রয়েছে যেগুলোর মূল্য আমাদের কল্পনার বাইরে। পৃথিবীজুড়ে রয়েছে এমন কিছু মূল্যবান ধাতু বা মেটাল, যা অধিকাংশেরই অজানা। যার মূল্য কোটি টাকারও অধিক। মার্কিন গণমাধ্যম মার্কেট ওয়াচ বিশ্বের মূল্যবান ৫টি ধাতুর তালিকা প্রকাশ করেছে-

অ্যান্টিমেটার : মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার বিজ্ঞানীদের মতে অ্যান্টিমেটার বিশ্বের সবচেয়ে মূল্যবান ধাতু। এটির প্রতি গ্রামের মূল্য ৬ দশমিক ২৫ লাখ কোটি ডলার, যা স্থানীয় মুদ্রায় ৩৯৩ দশমিক ৭৫ লাখ কোটি টাকা। ১৭ নভেম্বর ২০১১তে সেন্টার ফর ইউরোপিয়ান নিউক্লিয়ার রিসার্চের বিজ্ঞানীরা অ্যান্টিমেটার বানাতে সক্ষম হয়েছেন।

ক্যালিফোরিয়াম : মূল্যমানে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ক্যালিফোরিয়াম। এটি প্রতি গ্রামের মূল্য প্রায় ১৭০ দশমিক ৯১ কোটি টাকা। ১৯৫০ সালে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার রেডিয়েশন বিশ্ববিদ্যালয়ে চারজন বিজ্ঞানী যৌথভাবে ক্যালিফোরিয়াম আবিষ্কার করেন। ক্যালিফোরিয়াম হচ্ছে একটি রেডিও অ্যাকটিভ ধাতব রাসায়নিক উপাদান। এটি কাজে লাগিয়ে সোনা, রুপার উৎসস্থল অনুসন্ধান করা হয়। এছাড়াও ক্যালিফোরিয়াম (২৫২) দ্রুত ও দক্ষতার সঙ্গে বিমানবন্দরে মালপত্র না খুলেই তা পরীক্ষার কাজে ব্যবহৃত হয়।

হীরা : হীরা পৃথিবীর এক দুর্লভ রত্ন। এক সমীক্ষা থেকে জানা গেছে এমন কিছু হীরা রয়েছে যার মূল্য প্রতি গ্রাম ৩৪ দশমিক ৮১ লাখ টাকা। প্রাকৃতিকভাবে হীরা পৃথিবীর ১৪০ থেকে ১৯০ কিমি গভীরে উচ্চতাপ ও চাপের মধ্যে থাকে। আগ্নেয়গিরির বিস্ফোরণে ম্যাগমার দ্বারা কয়লার সঙ্গে বেরিয়ে আসে। হলুদ, বাদামি, সবুজ, গোলাপি, লাল রঙের হীরা রয়েছে।

ট্রিটিয়াম : হীরার পরেই ট্রিটিয়াম বিশ্বের চতুর্থ মূল্যবান ধাতু। এক গ্রাম ট্রিটিয়ামের মূল্য প্রায় ১৮ দশমিক ৯ লাখ টাকা। এই ট্রিটিয়াম কথাটি আসে গ্রিক শব্দ ‘ট্রিটস’ থেকে, যার মানে তৃতীয়। অর্থাৎ তিনটি কণা (একটি প্রোটন ও দুটি নিউট্রন) দ্বারা গঠিত। সামান্য পরিমাণে ট্রিটিয়াম প্রাকৃতিকভাবে পৃথিবীতে পাওয়া যায়। তবে বেশিরভাগ ট্রিটিয়াম কৃত্রিম উপায়েই সৃষ্টি করা হয়। মূলরূপে এর ব্যবহার দামি ঘড়ি, ওষুধ এবং রেডিও থেরাপিতে করা হয়ে থাকে। এছাড়া কিছু কিছু পারমাণবিক অস্ত্র নির্মাণের কাজেও ব্যবহৃত হয়।

রোডিয়াম : রোডিয়াম খুবই দুর্লভ, দামি ও অনেকটা রুপার মতো রঙের ধাতু। সাম্প্রতিক বাজারে এর মূল্য প্রতি গ্রাম প্রায় ১০৪০ ডলার। প্রতিফলিত বৈশিষ্ট্যের জন্য রোডিয়াম সচারাচর ব্যবহৃত হয়ে থাকে। দক্ষিণ আফ্রিকা, রাশিয়া, কানাডা রোডিয়ামের উৎপত্তি স্থল। প্রতিফলিত চমকের জন্য রোডিয়াম বিভিন্ন ধরনের সার্চ লাইট ও আয়না নির্মাণে ব্যবহৃত হয়। অলঙ্কারের কাজে যেমন হোয়াইট গোল্ডের সঙ্গেও প্রয়োগ করা হয়ে থাকে। এছাড়াও বিভিন্ন শিল্প ক্ষেত্র, মোটরগাড়ি শিল্পেও রোডিয়াম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×