করোনা মোকাবেলায় বাংলাদেশকে ৩ লাখ ডলার দিচ্ছে এডিবি
jugantor
করোনা মোকাবেলায় বাংলাদেশকে ৩ লাখ ডলার দিচ্ছে এডিবি

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৯ মার্চ ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

করোনাভাইরাস মহামারী মোকাবেলায় বাংলাদেশের পাশে দাঁড়িয়েছে এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক (এডিবি)। প্রাণঘাতী ভাইরাসটি মোকাবেলার জন্য চিকিৎসা সামগ্রী কিনতে বাংলাদেশ সরকারকে তিন লাখ ডলার জরুরি অনুদান সহায়তার অনুমোদন দিয়েছে সংস্থাটি।

এডিবির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে শনিবার জানানো হয়, এই জরুরি সহায়তায় সরকার বিভিন্ন সুরক্ষা সামগ্রী কিনতে পারবে। যার মধ্যে রয়েছে বিশেষ সুরক্ষা পোশাক, এন৯৫ মাস্ক, সুরক্ষা চশমা, অ্যাপ্রন, থার্মোমিটার এবং বায়োহ্যাজার্ড (সংক্রামক বর্জ্য ফেলার) ব্যাগ ইত্যাদি। স্বাস্থ্য অধিদফতর এই তালিকা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে তৈরি করেছে। এই ইক্যুইপমেন্ট করোনাভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের প্রচেষ্টাকে আরও শক্তিশালী করবে। এসব সহায়তা স্বাস্থ্য বিভাগের মহাপরিচালক এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে পাঠানো হবে। বাংলাদেশে এডিবির কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন প্রকাশ বলেন, এটা একেবারেই প্রাথমিক সহায়তা। আরও সহায়তা দিতে এডিবি নিরলসভাবে কাজ করছে। করোনাভাইরাস মোকাবেলায় এডিবি সরকারের পাশেই রয়েছে। এডিবির বাংলাদেশ প্রধান মনমোহন প্রকাশ এ উপলক্ষে বলেন, ‘স্বাস্থ্য ও আর্থিক খাতে আরও বেশি সহায়তা দেয়ার জন্য আমরা জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছি।’ মার্চের ২১ তারিখ অর্থমন্ত্রী আহম মুস্তফা কামালের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। বৈঠক শেষে মনমোহন প্রকাশ বলেছিলেন, কোভিড-১৯ সংক্রমণ রোধে এডিবিকে সহায়তা দিতে অনুরোধ করেছিল বাংলাদেশ সরকার। করোনভাইরাস (কোভিড-১৯) প্রতিরোধে উন্নয়নশীল সদস্য দেশগুলোর জন্য ১৮ মার্চ জরুরি ভিত্তিতে ৬৫০ কোটি ডলার প্রাথমিক সহায়তা তহবিল ঘোষণা করেছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। সংস্থাটির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, সদস্য দেশগুলোর তাৎক্ষণিক প্রয়োজন মেটাতে আমরা এই সাড়ে ৬০০ কোটি ডলারের উদ্ধার তহবিল দেয়া হচ্ছে। এই সাড়ে ৬০০ কোটি ডলারের এই প্যাকেজের বাইরে পরিস্থিতি যখনই চাইবে তখনই আর্থিক ও নীতি সহায়তা দিতে এডিবি প্রস্তুত রয়েছে। এর মধ্যে মহামারীর স্বাস্থ্যগত ও অর্থনৈতিক প্রভাব মোকাবেলার কার্যক্রম পরিচালনার জন্য রাষ্ট্রগুলোকে ৩৬০ কোটি ডলার এবং সরাসরি ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র, কুটির ও মাঝারি আকারের প্রতিষ্ঠান এবং স্থানীয় ও আঞ্চলিক বাণিজ্য এবং কোম্পানিগুলোর জন্য ১৬০ কোটি ডলার দেয়া হবে। এদিকে সম্প্রতি (এডিবি) এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব সবচেয়ে খারাপ অবস্থায় গেলে এক বছরে বাংলাদেশে প্রায় ৯ লাখ কর্মসংস্থান কমে যেতে পারে। এ ছাড়া ৩০০ কোটি ডলারের বেশি মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) ক্ষতি হতে পারে, বর্তমান বাজার দরে (৮৫ টাকা প্রতি ডলার) যার পরিমাণ প্রায় সাড়ে ২৫ হাজার কোটি টাকা।

করোনা মোকাবেলায় বাংলাদেশকে ৩ লাখ ডলার দিচ্ছে এডিবি

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৯ মার্চ ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

করোনাভাইরাস মহামারী মোকাবেলায় বাংলাদেশের পাশে দাঁড়িয়েছে এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক (এডিবি)। প্রাণঘাতী ভাইরাসটি মোকাবেলার জন্য চিকিৎসা সামগ্রী কিনতে বাংলাদেশ সরকারকে তিন লাখ ডলার জরুরি অনুদান সহায়তার অনুমোদন দিয়েছে সংস্থাটি।

এডিবির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে শনিবার জানানো হয়, এই জরুরি সহায়তায় সরকার বিভিন্ন সুরক্ষা সামগ্রী কিনতে পারবে। যার মধ্যে রয়েছে বিশেষ সুরক্ষা পোশাক, এন৯৫ মাস্ক, সুরক্ষা চশমা, অ্যাপ্রন, থার্মোমিটার এবং বায়োহ্যাজার্ড (সংক্রামক বর্জ্য ফেলার) ব্যাগ ইত্যাদি। স্বাস্থ্য অধিদফতর এই তালিকা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে তৈরি করেছে। এই ইক্যুইপমেন্ট করোনাভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের প্রচেষ্টাকে আরও শক্তিশালী করবে। এসব সহায়তা স্বাস্থ্য বিভাগের মহাপরিচালক এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে পাঠানো হবে। বাংলাদেশে এডিবির কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন প্রকাশ বলেন, এটা একেবারেই প্রাথমিক সহায়তা। আরও সহায়তা দিতে এডিবি নিরলসভাবে কাজ করছে। করোনাভাইরাস মোকাবেলায় এডিবি সরকারের পাশেই রয়েছে। এডিবির বাংলাদেশ প্রধান মনমোহন প্রকাশ এ উপলক্ষে বলেন, ‘স্বাস্থ্য ও আর্থিক খাতে আরও বেশি সহায়তা দেয়ার জন্য আমরা জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছি।’ মার্চের ২১ তারিখ অর্থমন্ত্রী আহম মুস্তফা কামালের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। বৈঠক শেষে মনমোহন প্রকাশ বলেছিলেন, কোভিড-১৯ সংক্রমণ রোধে এডিবিকে সহায়তা দিতে অনুরোধ করেছিল বাংলাদেশ সরকার। করোনভাইরাস (কোভিড-১৯) প্রতিরোধে উন্নয়নশীল সদস্য দেশগুলোর জন্য ১৮ মার্চ জরুরি ভিত্তিতে ৬৫০ কোটি ডলার প্রাথমিক সহায়তা তহবিল ঘোষণা করেছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। সংস্থাটির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, সদস্য দেশগুলোর তাৎক্ষণিক প্রয়োজন মেটাতে আমরা এই সাড়ে ৬০০ কোটি ডলারের উদ্ধার তহবিল দেয়া হচ্ছে। এই সাড়ে ৬০০ কোটি ডলারের এই প্যাকেজের বাইরে পরিস্থিতি যখনই চাইবে তখনই আর্থিক ও নীতি সহায়তা দিতে এডিবি প্রস্তুত রয়েছে। এর মধ্যে মহামারীর স্বাস্থ্যগত ও অর্থনৈতিক প্রভাব মোকাবেলার কার্যক্রম পরিচালনার জন্য রাষ্ট্রগুলোকে ৩৬০ কোটি ডলার এবং সরাসরি ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র, কুটির ও মাঝারি আকারের প্রতিষ্ঠান এবং স্থানীয় ও আঞ্চলিক বাণিজ্য এবং কোম্পানিগুলোর জন্য ১৬০ কোটি ডলার দেয়া হবে। এদিকে সম্প্রতি (এডিবি) এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব সবচেয়ে খারাপ অবস্থায় গেলে এক বছরে বাংলাদেশে প্রায় ৯ লাখ কর্মসংস্থান কমে যেতে পারে। এ ছাড়া ৩০০ কোটি ডলারের বেশি মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) ক্ষতি হতে পারে, বর্তমান বাজার দরে (৮৫ টাকা প্রতি ডলার) যার পরিমাণ প্রায় সাড়ে ২৫ হাজার কোটি টাকা।