এ মাসেই পাঁচ তারকা হোটেলটি উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

ইন্টারকন্টিনেন্টাল নতুন রূপে

  হামিদ-উজ-জামান ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বিশালাকারের ‘ইনফিনিটি সুইমিং পুল’, অত্যাধুনিক স্পা, জাকুঝি, পুলসাইড বার, প্রশস্ত লবি, রাজকীয় প্রেসিডেন্সিয়াল স্যুইট, ৫টি সুসজ্জিত রেস্টুরেন্ট, সূর্যালোকের পর্যাপ্ত ব্যবহার আর সর্বত্র নান্দনিক কারুকার্যতার ছোঁয়ায় নতুন রূপে আসছে হোটেল ‘ইন্টারকন্টিনেন্টাল’। পাঁচ তারকামানের প্রতিটি সুবিধা নিয়ে অবশেষে আলোর মুখ দেখছে আলোচিত এ হোটেলটি। ১৩ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ নবযাত্রার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন। ইতিমধ্যেই কাজ প্রায় শেষপ্রান্তে। চলছে শেষ মুহূর্তের ঝাড়া-মোছা আর গোছানোর কার্যক্রম। বৃহস্পতিবার সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, হোটেলটির রূপের ঝলক। মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিবিজড়িত ‘ইন্টারকন্টিনেন্টাল’ ফিরে আসছে। মালিকানা বদলের আগে প্রধানমন্ত্রী নাম দিয়েছিলেন রূপসী বাংলা হোটেল। কিন্তু এখন আগের আন্তর্জাতিক নামি হোটেল চেইন হিসেবে ইন্টারকন্টিনেন্টাল নামেই পর্দা উঠছে পাঁচ তারকা এ হোটেলটির। তবে এক্ষেত্রে এসেছে ব্যাপক সংস্কার আর পরির্তন। মূল ডিজাইনটি ঠিক রেখে ভেতরের প্রায় সবকিছুইর আমূল বদলে গেছে। স্যুইট রুম ছাড়াও ডিলাক্স রুমগুলোর আয়তন আগের চেয়ে বেড়েছে। নতুন টাইলস, আধুনিক স্যানিটারি উপকরণসহ প্রতিটি বাথরুমেই থাকছে নতুন বাথটাব। রুমভেদে ৩২ ইঞ্চি থেকে শুরু করে ৪৮ ইঞ্চি টিভিসহ সবকিছুই থাকছে। বাইরের ফুলগাছ থেকে শুরু করে ভেতরের ফানির্চারে পর্যন্ত পরিবর্তনের ছোঁয়া। অতিথিদের সুবিধা বাড়ানোর জন্য যা যা করা প্রয়োজন তার সবই করা হয়েছে। এখন শুধু অপেক্ষার পালা।

বদলে যাওয়া প্রসঙ্গে হোটেলটির মার্কেটিং ও বিজনেস প্রমোশন ডিরেক্টর সহিদুস সাদেক যুগান্তরকে জানান, রূপসী বাংলা থেকে ইন্টারকন্টিনেন্টাল রূপে আবির্ভূত হতে গিয়ে অনেক ক্ষেত্রেই পরিবর্তন আনা হয়েছে। আগে প্রেসিডেন্ট স্যুইট ৬টি থাকলেও এখন করা হয়েছে ৫টি। অর্থাৎ পরিসর বাড়ায় সংখ্যা কমে গেছে। তবে এগুলোর নাম এখনও ঠিক করা হয়নি। এছাড়া আগে ২৬ বর্গমিটারের অতিথি কক্ষ থাকলেও সেগুলোর পরিসর বাড়িয়ে ৪০ বর্গমিটার করা হয়েছে। ফলে আগে গেস্ট রুম ছিল ২৭২টি। এখন কমে গিয়ে হয়েছে ২২৬টি। এছাড়া আগে বলরুম, উইন্টার গার্ডেনসহ মিটিং রুমগুলো বিভিন্ন দিকে ছড়ানো-ছিটানো ছিল। এখন নতুন হোটেলে মোট ৯টি হল থাকবে ২১ হাজার বর্গফুটের মধ্যে। এর মধ্যে ৬টিই থাকবে হোটেলের পূর্বদিকে (রমনা পার্কের পাশে)। হলগুলোর নাম পরিবর্তন করে ইতিমধ্যেই ঠিক করা হয়েছে নতুন নাম। এর মধ্যে আগের গ্রান্ড বলরুমটিকে দু’ভাগ করে রূপসী বাংলা উইন্টার গার্ডেন-১ এবং রূপসী বাংলা উইন্টার গার্ডেন-২ রাখা হয়েছে। কারণ মূল হোটেলের নাম পরিবর্তন হলেও রূপসী বাংলার স্মৃতি হিসেবে এ হলের নামকরণ করা হয়েছে। আগের বলরুমের নাম পরিবর্তন হয়ে এখন রাখা হয়েছে ক্রিস্টাল রুম, বীথিকার নাম পরিবর্তন হয়ে পার্ল, বকুলের নাম পরির্তন করে মধুমতি ও চামেলীর নাম পরিবর্তন করে তুরাগ রাখা হয়েছে। তাছাড়া ছোট ছোট মিটিং রুমগুলোর নামও বদলে গেছে।

সরেজমিন রাজধানীর শাহবাগে গিয়ে দেখা যায়, বাইরের চুনকাম করা শেষ হয়েছে। ভেতরের ইন্টেরিয়র ডেকোরেশন প্রায় শেষ। আসবাবপত্র বসানোর কাজ শুরু হয়েছে।

 

 

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter