শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দুর্নীতি

রাঘববোয়ালদেরও ধরতে হবে

  যুগান্তর ডেস্ক ২৫ জানুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দুর্নীতি
শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দুর্নীতি

শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে ঘিরে দুর্নীতি-অনিয়মের বড় ধরনের সিন্ডিকেট গড়ে উঠেছে বলে কানাঘুষা পুরনো। এরই মধ্যে সাড়ে চার লাখ টাকার চুক্তিতে জঙ্গিবাদের মতো গুরুতর অপরাধের অভিযোগে বন্ধ করে দেয়া একটি ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল খুলে দেয়ার চুক্তিকারী মন্ত্রণালয়টির দু’জন কর্মকর্তাকে হাতেনাতে গ্রেফতারের পর বিষয়টি যে ওপেন সিক্রেট, তা বলাই বাহুল্য।

তবে দুই কর্মকর্তাসহ যে তিনজন গ্রেফতার হয়েছেন, তারা চুনোপুঁটি মাত্র। এদের পেছনে মন্ত্রণালয়টিতে ঘাপটি মেরে থাকা সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নকারী কর্মকর্তাদেরও যদি ধরা না যায়, তবে দুর্নীতি বাড়বে বৈ কমবে না। আমরা আশাবাদী, নানামুখী সমালোচনায় বিদ্ধ শিক্ষা মন্ত্রণালয় অবিলম্বে সে উদ্যোগ নেবে এবং দুর্নীতি-অনিয়মের বিরুদ্ধে নিজেদের কঠোর অবস্থান ও সদিচ্ছার প্রমাণ দেবে।

বর্তমার সরকারের দুই মেয়াদের শেষ বছর চলছে। অন্যান্য খাতের মতো শিক্ষা খাতেও সরকারের নানা সাফল্য আছে সত্য; কিন্তু এ খাতের নানা অনিয়ম-দুর্নীতি, বিশেষত প্রশ্নফাঁস, এমপিওভুক্তি, এমপিওপ্রাপ্তি, স্কুল-কলেজের স্বীকৃতি, বদলি ও পদায়নের জন্য টাকা আদায়ের মতো জঘন্য বিষয়গুলো আলোচনায় এলেও দৃশ্যমান কোনো ব্যবস্থা কেন বিগত বছরগুলোতে নেয়া হয়নি, তা আমাদের বোধগম্য নয়।

অথচ শিক্ষার মতো জাতি গড়ার গুরুত্বপূর্ণ খাতটির অনিয়মের ক্ষেত্রে দীর্ঘমেয়াদি ক্ষতিকর প্রভাবের বিষয়টি কারও না বোঝার কথা নয়। যা হোক, শেষ পর্যন্ত মন্ত্রীর ব্যক্তিগত কর্মকর্তা ও উচ্চমান সহকারী- দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে দুর্নীতির দায়ে। মন্ত্রণালয় তাদের বরখাস্তও করেছে। আমরা আশা করব এটি কোনো লোক দেখানো বরখাস্ত না হয়ে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার প্রাথমিক পদক্ষেপ হবে।

আশার কথা, এ ঘটনায় পুলিশের পাশাপাশি দুদকও তদন্ত শুরু করেছে। এখন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী-সচিবসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের দায়িত্ব হবে এদের পেছনের রাঘববোয়ালদের খুঁজে বের করে বিচারের আওতায় আনার উদ্যোগ নেয়া।

অন্যথায় তারা যেমন অনিয়মকে প্রশ্রয় দেয়ার দায় এড়াতে পারবেন না, তেমনই এ মন্ত্রণালয় থেকে দুর্নীতি-অনিয়মও দূর হবে না। একটি দেশকে ধ্বংস করে দিতে হলে তার শিক্ষাব্যবস্থাকে পঙ্গু করাই যথেষ্ট।

কারণ, এতে করে দক্ষ, যোগ্য ও দেশপ্রেমিক ভবিষ্যৎ প্রজন্ম পাওয়া যাবে না। ফলে শিক্ষা খাতে যে কোনো ধরনের অনিয়মের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা ও নজরদারির বিকল্প নেই।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে যে অদৃশ্য কিছু সমস্যা আছে, তা বোঝা যায় গত বছরের শেষ থেকে এখন পর্যন্ত নানা দাবিদাওয়া নিয়ে একেকবার একেক পর্যায়ের শিক্ষকদের আন্দোলন-অনশনের ঘটনায়। ফলে ক্রমবর্ধমান প্রশ্নফাঁসসহ অন্যান্য দুর্নীতি-অনিয়মের পেছনের রাঘববোয়ালরা যেন আর অধরা না থাকে, তা নিশ্চিত করতে হবে এখনই।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter