স্কুলে ভর্তিযুদ্ধ

হয়রানিমুক্ত ও স্বচ্ছ হতে হবে

  যুগান্তর ডেস্ক ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ভর্তি,

সারা দেশের ৪ শতাধিক সরকারি হাইস্কুলে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। দ্বিতীয়, তৃতীয়, ষষ্ঠ ও নবম শ্রেণীতে ভর্তি পরীক্ষার পর ২০ ডিসেম্বর প্রথম শ্রেণীতে লটারির মাধ্যমে ভর্তি নেয়া হবে। রাজধানীর ৪১টি সরকারি হাইস্কুলের মধ্যে ১৭টিতে ১ হাজার ৯৬০ জনকে প্রথম শ্রেণীতে ভর্তি নেয়া হবে এবং এ জন্য আবেদন পড়েছে ২২ হাজার ১৭৯টি। প্রতি আসনের বিপরীতে গড়ে ১২ জন ক্ষুদে শিক্ষার্থীকে লড়তে হচ্ছে। অন্যদিকে এ ১৭টিসহ রাজধানীর ৪১টি সরকারি স্কুলের অন্যান্য শ্রেণীতে ১২ হাজার ৩৬৬ আসনের প্রতিটির বিপরীতে ৭ জন করে ৮৫ হাজার ৭৮৫ জন শিক্ষার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে। এটি মোটেও সুখের খবর নয়। মানসম্মত স্কুল ও শিক্ষার অভাবেই যে এমনটি হচ্ছে তা সহজেই অনুমেয়।

দুর্ভাগ্যের বিষয়, দেশে পর্যাপ্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থাকার পরও সরকারি-বেসরকারি স্কুলগুলো ভালো মানের শিক্ষা দিতে না পারায় অভিভাবকরা বাধ্য হয়ে নিজের ক্ষুদে সন্তানকে শিক্ষাজীবনের শুরুতেই অসম একটি প্রতিযোগিতায় ঠেলে দিতে বাধ্য হন। পছন্দের প্রতিষ্ঠানে ভর্তি করানোর জন্য বছর লস, স্কুল দেখার আগেই কোচিংয়ে নামিয়ে দিয়ে শিশু শিক্ষার্থীর জীবন বিষিয়ে তোলার মতো ন্যক্কারজনক বিষয় তো রয়েছেই। এমন পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থী ভর্তিতে নানা অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া যায় প্রতিবছরই। এ অবস্থায় অনিয়ম-দুর্নীতি রোধে এবং শিক্ষার্থীদের অহেতুক হয়রানি থেকে বাঁচাতে সরকারি-বেসরকারি প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্কুলগুলোতে মানসম্মত শিক্ষা ও উন্নত ভবিষ্যৎ গড়ার উদ্যোগ নেয়ার বিকল্প নেই।

রাজধানীসহ বড় শহরের নামি স্কুলগুলোতেও খুব যে মানসম্মত শিক্ষার ব্যবস্থা রয়েছে তা নয়। এগুলোতেও কোচিং, ভর্তি, টিসি বাণিজ্য এবং ক্লাসে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান নির্ধারণ নিয়ে নানা ধরনের অনিয়ম রয়েছে। কিছুদিন আগে ভিকারুননিসা নূন স্কুলে টিসি-সংক্রান্ত জটিলতায় এক ছাত্রীর আত্মহত্যার পর বিষয়টি আবারও সামনে এসেছে। আমরা মনে করি, ‘ভর্তিযুদ্ধ’ নামের হয়রানি থেকে শিশুদের রক্ষা করার জন্য সরকারি-বেসরকারি স্কুলগুলোর শিক্ষার মানোন্নয়নে বিশেষ উদ্যোগ নেয়া দরকার। সব স্কুলের শিক্ষার মান যদি কাছাকাছি হয়, তবে এ ধরনের হয়রানির মুখে শিক্ষার্থী-অভিভাবকরা পড়তে যাবেন না, এটাই স্বাভাবিক।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×