চাই আইনের প্রয়োগ ও মানবিকতা

  সাঈদ চৌধুরী ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সড়ক দুর্ঘটনা

সড়ক দুর্ঘটনা বেড়েই চলছে। দুর্ঘটনা রোধে কেউ যেন কিছুই করতে পারছে না। যখন লিখছি ঠিক তখনই ময়মনসিংহে ইউপি সদস্যসহ মা, ছেলে ও বাবার একসঙ্গে মৃত্যুর খবর এলো। কী মর্মান্তিক! কী ভয়াবহ ঝুঁকি মাথায় নিয়ে আমরা চলাফেরা করছি!

সড়ক দুর্ঘটনার কারণ নিয়ে প্রতিদিনই কথা হচ্ছে। সমাধানের পথনির্দেশনাও দেয়া হচ্ছে; কিন্তু দিনশেষে ২০ জন, ১৫ জন, ১০ জন করে লাশ হয়ে যাচ্ছে! এ থেকে পরিত্রাণের কোনো উপায় কি আসলেই নেই?

রাস্তায় যেমন অসচেতন মানুষ বাড়ছে, তেমনি চালক-হেলপাররা উগ্র হচ্ছে। সৃষ্টি হচ্ছে এক অসহনীয় পরিস্থিতি। জনবহুল দেশে সড়কে নিরাপত্তা আনতে সবার আগে নিঃসন্দেহে গাড়ির গতির দিকে নজর দিতে হবে এবং একইসঙ্গে নজর দিতে হবে মানুষের সাবধানতা ও আইন মানার দিকে ।

গত সপ্তাহেরই একটি ঘটনা। পরিচিত এক ছোট ভাই মোটরসাইকেল চালিয়ে যাচ্ছিল নিজের কাজে। গতি ছিল যথেষ্ট। একজন পথচারী, তার কানে এয়ারফোন, হঠাৎ রাস্তা পার হওয়ার জন্য দৌড় দিল। এ সময় একজন মোটরসাইকেল চালকের পক্ষে গতি কমানো কতটা সম্ভব? তাৎক্ষণিক পড়ে গেল দু’জনেই। ফলে মারাত্মক আহত হয়ে হাসপাতালে!

পথচারীদের এমন অসচেতনতার কারণে দুর্ঘটনা ঘটছে অহরহ। গাজীপুর, সাভার, নারায়ণগঞ্জের মতো শিল্পাঞ্চলগুলোতে শিল্প-কারখানা ছুটি হওয়ার পর প্রচুর মানুষ রাস্তা পার হতে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। অর্থাৎ ড্রাইভার-হেলপারদের বেপরোয়াপনার সঙ্গে সঙ্গে পথচারীদের অসচেতনতাও কম নয়।

সামগ্রিক অর্থে আমরা যখন সচেতনতার কথা বলি, তখন কিন্তু এর সঙ্গে মানবিকতার ব্যপারটিও চলে আসে। যিনি একজন ড্রাইভার হচ্ছেন, বেশিরভাগ ক্ষেত্রে মানবিক আচরণ শেখার আগেই তিনি রূঢ়তা শিখে ফেলছেন। সবকিছু মিলে মনে হচ্ছে, সড়ক দুর্ঘটনা রোধে সবারই দায়িত্ব রয়েছে।

এলাকাভিত্তিক রাস্তাগুলোর জন্য আলাদা আলাদা কিছু ব্যবস্থা নেয়া প্রয়োজন। ট্রাক চলাচলের জন্য আইন করে একটি লেন ব্যবহারের পদ্ধতি চালু করা যায়। কোনো অবস্থাতেই ট্রাক যেন মাঝের লেন ছেড়ে পাশের লেনে না আসতে পারে। ট্রাকের ক্ষেত্রে, বিশেষ করে ড্রাম ট্রাকের ক্ষেত্রে ওভারটেক আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হোক ।

এলাকার বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন এ ক্ষেত্রে ভালো ভূমিকা রাখতে পারে। কেউ বেশি গতিতে গাড়ি চালালেই তাকে আইনের আওতায় আনতে সহায়তা করতে হবে এ সংগঠনগুলোকে। কোনো যানবাহন যাতে স্কুল ও হাসপাতাল এলাকার রাস্তায় দ্রুত গতিতে চলতে না পারে এ বিষয়ে পোষ্টারিং, চিহ্ন অংকন করে প্রচারণা চালানো যেতে পারে।

মহাসড়কগুলোতে ছোট গাড়ি চলাচলের ব্যাপারে আরও কঠোর হতে হবে। গাজীপুরে ঢাকা-ময়মনসিংহ সড়কে লেগুনা বন্ধের পর দুর্ঘটনা কমেছে অনেক। পাশাপাশি ট্রাকের মতো যানবাহনগুলোর এক লেনে চলার নিয়ম চালু করা যেতে পারে। সব ধরনের বাজার রাস্তার পাশ থেকে উঠিয়ে দিতে হবে ।

সড়ক দুর্ঘটনা রোধে আরও কার্যকর উদ্যোগ নিতে হবে এখনই। নইলে প্রিয়জন হারানো মানুষের আর্তনাদ বাড়তেই থাকবে। শুধু আইন কার্যকর নয়, শুধু নিয়ম নয়, সবাইকে মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকেই এ ব্যাপারে এগিয়ে আসতে হবে।

সাঈদ চৌধুরী : রসায়নবিদ ও সদস্য, উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি, শ্রীপুর, গাজীপুর

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×