আকস্মিক কালবৈশাখী: সতর্কতামূলক পদক্ষেপ নিতে হবে

  যুগান্তর ডেস্ক    ০২ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

কালবৈশাখী

কালবৈশাখীর ছোবলে প্রতি বছরই দেশে অনেক ক্ষয়ক্ষতি হয়ে থাকে। এই ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে ব্যাপক সতর্কতা ও প্রস্তুতি নেয়া প্রয়োজন। মৌসুমের প্রথম কালবৈশাখীর ছোবলে রোববার ঢাকায় নারী ও শিশুসহ আটজনের মৃত্যু হয়েছে, আহত হয়েছেন অন্তত ১৮ জন।

ঝড়ের সময় গাছচাপা, ইটের আঘাত, দেয়াল চাপা ও নৌকাডুবিতে মৃত্যুর ঘটনাগুলো থেকে এটাই প্রতীয়মান, ঝড়ের মৌসুমে সংশ্লিষ্ট সবারই বিশেষভাবে সতর্ক থাকা দরকার। রোববার সন্ধ্যায় রাজধানীর ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া কালবৈশাখীর স্থায়িত্ব ছিল অল্প সময়।

এই সময়ের ঝড়ে বিভিন্ন স্থানে গাছপালা ভেঙে পড়েছে। আবার কোথাও গাছ উপড়ে পড়েছে। বিভিন্ন স্থানে বিলবোর্ড ও বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

রোববার ঝড়ের সময় গাছে চাপা পড়ে একজন নিহত হয়েছেন। জানা গেছে, তিনি হাঁটতে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হন। ঝড়ের কারণে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে গাছপালা ভেঙে পড়ে কী ধরনের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা যুগান্তরসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে এসেছে।

ঝড় কিংবা ঝড়ো বাতাসে যেসব গাছপালা ভেঙে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে, নিরাপত্তার স্বার্থে সেসব গাছ কিংবা ডালপালা কেটে ফেলা দরকার। এক্ষেত্রে কেউ বৃক্ষপ্রেমী হিসেবে আবির্ভূত হলে তার ব্যাপারে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। এমন বৃক্ষপ্রেমী হওয়ার দরকার নেই, যার কারণে মানুষের জীবন বিপন্ন হতে পারে।

অনেক সময় বিলবোর্ডও ঝড়ের সময় মৃত্যুফাঁদে পরিণত হতে পারে। কাজেই কেউ যাতে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি এড়িয়ে যেখানে-সেখানে বিলবোর্ড স্থাপন করতে না পারে, এ ব্যাপারে কর্তৃপক্ষকে বিশেষভাবে সতর্ক থাকতে হবে এবং এসব নির্মাণকারীর বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে হবে।

যেসব হকার ফুটপাতে পসরা সাজিয়ে বসেন, তাদের অনেকেই বিদ্যুতের অবৈধ সংযোগ নিয়ে থাকেন। এসব অবৈধ সংযোগও ঝড়ের সময় মৃত্যুফাঁদে পরিণত হতে পারে। ঝড়ের মৌসুমে ঝড়ের সঙ্গে বজ্রপাত ও শিলাবৃষ্টি হয়ে থাকে।

শিলাবৃষ্টির কারণে বিভিন্ন ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। শিলাবৃষ্টির কারণে যেসব প্রান্তিক কৃষক নিঃস্ব হয়ে পড়েন- সেসব কৃষকের ফসল রক্ষায় সরকারিভাবে পদক্ষেপ নেয়া দরকার। প্রয়োজনে তাদের বিকল্প ফসল ফলানোর বিষয়ে উদ্বুদ্ধ করতে হবে।

অতীতে আমাদের দেশে বজ্রপাতে কিছু ক্ষয়ক্ষতি হলেও গত কয়েক বছরে বিশেষত গত বছর বজ্রপাতে মৃতের সংখ্যা অনেক বেড়েছে। এক্ষেত্রেও প্রান্তিক কৃষকই সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হন। কৃষক ও পথচারীদের বজ্রপাত ও ঝড় থেকে সুরক্ষায় সরকারিভাবে পদক্ষেপ নেয়া দরকার।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×