মহাসড়কে দুর্ঘটনা: স্বস্তির যাত্রায় বিষাদের ছায়া

  সম্পাদকীয় ০৪ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মহাসড়কে দুর্ঘটনা
মহাসড়কে দুর্ঘটনা। প্রতীকী ছবি

যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতির কারণে এবার ঈদযাত্রায় দেশের বিভিন্ন মহাসড়কে যানজট কমেছে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই দেশবাসী আশা করেছিল এবারের ঈদযাত্রা হবে স্বস্তিদায়ক। তবে সব ক্ষেত্রে তেমনটি ঘটছে না। লক্ষ করা যাচ্ছে, সড়কে প্রাণহানির সংখ্যা কমেনি। মহাসড়কে যানবাহনের গতি বৃদ্ধি পেলেও কোনো কোনো চালকের বেপরোয়া মনোভাব ও অন্যান্য কারণে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানির ঘটনা ঘটেই চলেছে।

সোমবার যুগান্তরে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, রোববার সারা দেশে সড়ক দুর্ঘটনায় ২০ জনেরও বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন এবং আহত হয়েছেন অনেকে। এছাড়া গত ৩৩ দিনে সারা দেশে সড়ক দুর্ঘটনায় ২৯৭ জন প্রাণ হারিয়েছেন। উল্লিখিত সময়ে সারা দেশে সড়ক দুর্ঘটনায় যে বিপুলসংখ্যক মানুষ আহত হয়েছেন, তা-ও সহজেই অনুমান করা যায়।

প্রতি বছর ঈদে ঘরমুখী মানুষের দুর্ভোগ কমাতে কর্তৃপক্ষ নানারকম পদক্ষেপ নিয়ে থাকে। কিন্তু তারপরও ঈদের আগে-পরে সড়ক দুর্ঘটনায় অনেক হতাহতের ঘটনা ঘটে। এ সময়ে সড়ক দুর্ঘটনায় কেন হতাহতের সংখ্যা বেড়ে যায়, তা বহুল আলোচিত। প্রশ্ন হল- সমস্যাগুলো যখন চিহ্নিত, সেক্ষেত্রে সেসব সমস্যার সমাধান হচ্ছে না কেন?

সড়কে বিদ্যমান সমস্যা কমলেও যেহেতু কোনো কোনো চালকের বেপরোয়া মনোভাবের কারণে দুর্ঘটনা বেড়েই চলেছে, সেহেতু সড়কে গতি পর্যবেক্ষণে স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থা নেয়া জরুরি হয়ে পড়েছে। এছাড়া ঈদের সময় চাহিদা বৃদ্ধির কারণে ক্লান্ত-পরিশ্রান্ত অবস্থায় অনেক চালক গাড়ি চালিয়ে থাকেন। তখন চালক নিজের অজান্তেই নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দুর্ঘটনা ঘটিয়ে ফেলেন। তাদের এ প্রবণতা পরিহার করতে হবে। যাত্রীদেরও এসব বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে।

দেশে বিদ্যমান যানবাহনের তুলনায় দক্ষ চালকের অভাবের বিষয়টি বহুল আলোচিত। দক্ষ চালক তৈরির জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার পাশাপাশি চালকদের সচেতনতা সৃষ্টিতেও নিতে হবে পদক্ষেপ। কারণ অনেক দক্ষ চালকই মানুষের জীবনের মূল্য সম্পর্কে উদাসীন। পরিবহন শ্রমিকদের জীবনমানে পরিবর্তন আনতেও যথাযথ পদক্ষেপ নিতে হবে। তবে দুর্ঘটনা রোধে যত পদক্ষেপই নেয়া হোক না কেন, পরিবহন খাতে বিদ্যমান অব্যবস্থাপনা দূর করা না হলে এ বিষয়ে কাঙ্ক্ষিত ফল পাওয়ার ক্ষেত্রে অনিশ্চয়তা থেকেই যাবে। এবারের ঈদযাত্রা স্বস্তির ও নিরাপদ হোক, এটাই আমাদের প্রত্যাশা।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×