পণ্যের দাম কি ইচ্ছামতো বাড়ানো যায়?

  মো. সোয়েব মেজবাহউদ্দিন ২৭ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

দাম বৃদ্ধি

অন্ন, বস্ত্র, চিকিৎসা ও বাসস্থান মানুষের মৌলিক অধিকার। উচ্চবিত্ত, মধ্যবিত্ত ও নিুবিত্ত মানুষ তাদের চাহিদা ও সামর্থ্য অনুযায়ী পণ্য ক্রয় করে থাকে। কিন্তু ইদানীং দেখা যাচ্ছে বিভিন্ন উৎপাদনকারী বা আমদানিকারক তাদের ইচ্ছা অনুযায়ী যখন-তখন কোনো কারণ ছাড়াই পণ্যের দাম বাড়িয়ে দেয়।

ফলে সাধারণ মানুষকে পড়তে হয় বিপাকে। উন্নয়নশীল দেশে পণ্য ও সেবার মূল্যবৃদ্ধির প্রয়োজন হলে সরকার যৌক্তিক কারণ দেখিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে গণশুনানি করে প্রচার মাধ্যমে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে মূল্যবৃদ্ধি করে।

ফলে ক্রেতা পণ্যের মূল্যবৃদ্ধি এবং মূল্যবৃদ্ধির কারণ সম্পর্কে অবহিত হয় এবং তার আয়ের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে পণ্য ক্রয়ের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়। যেমন আমাদের দেশে গ্যাস ও বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির ব্যাপারে গণশুনানি হয়।

কিন্তু গ্যাস ও বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির কোনো যৌক্তিক কারণ দেখাতে পারেনি এবং সাধারণ মানুষের সমর্থন পায়নি সরকার। কিছুদিন আগে রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকায় কতিপয় চাঁদাবাজের চাঁদার পরিমাণ বাড়ার কারণে লেগুনার ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়েছিল; কিন্তু জনসাধারণের চাপের মুখে ভাড়া আবার আগের মতো করা হয়েছে।

সম্প্রতি দোকানে একটি খাদ্যপণ্য কিনতে গিয়ে জানতে পারলাম এর দাম ৫ টাকা বাড়ানো হয়েছে। কী কারণে এই মূল্যবৃদ্ধি, তা ক্রেতা জানতেই পারল না। অথচ এটা জানার অধিকার ক্রেতার আছে।

প্রায়ই ওষুধ কিনতে গিয়ে জানা যায় ওষুধের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। কসমেটিকস কিনতে গেলে জানা যায় কসমেটিকসের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। আমদানিকৃত তেল, ডালসহ অনেক ভোগ্যপণ্যের দাম এভাবে যখন-তখন বৃদ্ধি করা হয়।

কী কারণে পণ্যের দাম বৃদ্ধি করা হল তা জনগণকে জানাতে হবে। নতুবা বিক্রেতারা যখন-তখন ইচ্ছামতো পণ্যের দাম বাড়িয়ে দেবে এটাই স্বাভাবিক। আমাদের দেশে আমদানিকারক ও উৎপাদনকারী ব্যক্তিরা এতই প্রভাবশালী যে সরকারের নির্দেশনাও তারা মানতে চান না। তাদের ব্যাপারে সরকারকে কঠোর হতে হবে।

গণশুনানি না করে প্রচার মাধ্যমে বিজ্ঞপ্তি না দিয়ে যৌক্তিক কারণ ছাড়া ভোগ্যপণ্য বা কোনো সেবার মূল্যবৃদ্ধি করা যায় কি? যদি তা অন্যায় হয় তাহলে এ ব্যাপারে কোনো কোম্পানি তার ইচ্ছা অনুযায়ী পণ্যের দাম হঠাৎ করে বৃদ্ধি করলে কেন আইনি ব্যবস্থা নেয়া হয় না?

এভাবে হঠাৎ করে কোনো পণ্যের মূল্যবৃদ্ধি করা হলে ওই কোম্পানির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া উচিত। এর ফলে আর কোনো কোম্পানি তার ইচ্ছামাফিক পণ্যের মূল্যবৃদ্ধি করবে না বলে আশা করা যায়।

মো. সোয়েব মেজবাহউদ্দিন : মিডিয়া কর্মী

[email protected]

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×