পাওয়া, না পাওয়ার বিশ্বকাপ

  আজহার মাহমুদ ১০ জুলাই ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

পাওয়া, না পাওয়ার বিশ্বকাপ

অনেক আশা ও সম্ভাবনা নিয়ে এবারের বিশ্বকাপ মঞ্চে দাঁড়িয়েছিল বাংলাদেশ। শুরুটা হয় চমৎকার। প্রথম ম্যাচেই দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দুর্দান্ত জয়ে আসরে ভালো কিছুরই ইঙ্গিত দিচ্ছিল বাংলাদেশ দল।

কিন্তু আসরে প্রত্যাশা ও প্রাপ্তির ব্যবধান ছিল অনেক। সেমিফাইনালের স্বপ্নভঙ্গের পর চার ম্যাচ জেতার লক্ষ্যও পূর্ণ করতে পারেনি টাইগাররা।

আসরে ১০ দলের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান টেবিলে ৮ নম্বরে। টুর্নামেন্টের আগে র‌্যাঙ্কিংয়ের ৭ নম্বর দল হিসেবে খেলতে এসেছিল বাংলাদেশ। ফিরছে সেই একই অবস্থানে থেকে। টাইগাররা টুর্নামেন্ট শেষ করেছে ৩ জয় ও ৫ হারে। বৃষ্টিতে বাতিল একটি ম্যাচ। আসরে ভালোমন্দ দুই সময়ই দেখেছে বাংলাদেশ।

এবারের বিশ্বকাপ দলকে ঘিরে অনেক স্বপ্ন বুনেছিলেন টাইগার-ভক্তরা। গত বিশ্বকাপ থেকে টানা চার বছরের ধারাবাহিক পারফরম্যান্সই এর কারণ। ২০১৫ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল খেলা বাংলাদেশ ২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেমিফাইনালে ওঠে, আন্তর্জাতিক আসরে যেটি টাইগারদের সবচেয়ে বড় সাফল্য। ২০১৬ ও ২০১৮ টানা দুটি এশিয়া কাপের ফাইনালে ওঠে বাংলাদেশ।

এছাড়া গত বছর দেশের মাটিতে ত্রিদেশীয় সিরিজের পর শ্রীলংকায় নিদাহাস ট্রফির ফাইনাল খেলাসহ গত কয়েক বছর ধরেই একের পর এক সাফল্যে মেতেছে টাইগাররা। সর্বশেষ আয়ারল্যান্ডের মাটিতে প্রথমবারের মতো বহুজাতিক আসরে শিরোপা জিতেই বিশ্বকাপ মিশন শুরু করে টাইগাররা। একের পর এক সাফল্যের পথ পাড়ি দিয়ে এগিয়ে গেছে বাংলাদেশ।

দলের সামর্থ্য, অর্জন এসব দেখে আস্থা বেড়েছে টাইগার-সমর্থকদেরও। তারা স্বপ্ন দেখেছেন, বিশ্বাস করেছেন ইতিহাসের সেরা সাফল্য নিয়েই বিশ্বকাপ থেকে ফিরবে টাইগাররা। কিন্তু সমর্থকদের আস্থার সেই প্রতিদান দিতে পারেনি মাশরাফি বাহিনী।

তবে দলীয় প্রাপ্তির খাতা যে একেবারে শূন্য তা নয়। এবারের বিশ্বকাপে দু’বার নিজেদের সর্বোচ্চ ওয়ানডে রানের স্কোর গড়েছে বাংলাদেশ। ওভালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে নিজেদের প্রথম ম্যাচে বিশ্বকাপ ও ওয়ানডেতে নিজেদের সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড গড়ে বাংলাদেশ।

৩৩০ রানের স্কোর গড়ে টাইগার বাহিনী পায় ২১ রানের অসাধারণ জয়। এরপর ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৩২১ রান সফলভাবে তাড়া করে বিশ্বকাপে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান তাড়ার রেকর্ড গড়ে মাশরাফি বাহিনী। এ ম্যাচে ৭ উইকেটে জেতে টাইগাররা।

পরের ম্যাচে নটিংহ্যামে অস্ট্রেলিয়ার এভারেস্টসম ৩৮১ তাড়া করতে নেমে ৮ উইকেটে ৩৩৩ করে নিজেদের সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড গড়ার কৃতিত্ব দেখায় বাংলাদেশ। আফগানিস্তানের বিপক্ষে ৬৬ রানের জয়ের পর ভারতের বিপক্ষেও দুর্দান্ত লড়াই করে বাংলাদেশ। কিন্তু টুর্নামেন্টে ইংল্যান্ড ও পাকিস্তানের বিপক্ষে সর্বশেষ ম্যাচটিতে বাজে পারফরম্যান্স দেখায় টাইগাররা।

তবে দলীয় অর্জন কম হলেও ব্যক্তিগত অর্জন ছিল দেখার মতো। অবশ্য দল না জিতলে ব্যক্তিগত অর্জন নিয়ে সুখ পান না খেলোয়াড় ও সর্মথকরা। তাই বাংলাদেশকে জিততে হলে প্রয়োজন দলীয় পারফরম্যান্স। দলের সবাই ভালো খেললে অবশ্যই দল জিতবে।

একা সাকিব কিংবা মুস্তাফিজের মাধ্যমে কখনও বাংলাদেশ দল ভালো পর্যায়ে যেতে পারবে না। বড়জোর দুয়েকটি খেলা জিততে পারে। বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীরা এখন ২০২৩ সালের আশায় বুক বাঁধতে পারে। ক্রিকেট বাংলাদেশের আবেগ। তাই এটা আমাদের হৃদয়ে সবসময় থাকবে। ক্রিকেট নিয়ে স্বপ্ন প্রতিদিনই দেখবে সর্মথকরা। একদিন আমরা জিতবই।

আজহার মাহমুদ : প্রাবন্ধিক

[email protected]

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×