খেলাধুলা ও অর্থনীতি

  নাজমুল হক ১১ জুলাই ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

খেলা

খেলাধুলা কি রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থাপনা বা অর্থনীতির ওপর নির্ভরশীল? বিশ্বে খেলাধুলার সার্বিক চিত্র দেখলেই আমরা তা উপলব্ধি করতে পারব।

দু’-তিনটি ব্যতিক্রমী ঘটনা বাদ দিলে আমাদের সামনে যে চিত্র ভেসে ওঠে তাতে এটি স্পষ্ট যে, একটি দেশের রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থাপনা বা অর্থনীতির সঙ্গে খেলাধুলার বিষয়টি প্রত্যক্ষভাবে জড়িত।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় খেলাধুলার আসর হিসেবে পরিচিত অলিম্পিক গেমসের সর্বশেষ (২০১৬) আসরের দিকে তাকালেই ব্যাপারটি পরিষ্কার হবে।

ব্রাজিলের রিওতে অনুষ্ঠিত ওই গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে ২০৬টি দেশের প্রায় ১১ হাজার ক্রীড়াবিদ অংশগ্রহণ করেন। তা

দের মধ্যে ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের ৫৫৪ জন, ব্রাজিলের ৪৬৫ জন, জার্মানির ৪২৫ জন, অস্ট্রেলিয়ার ৪২১ জন, চীনের ৪১৩ জন, ফ্রান্সের ৩৯৫ জন, ব্রিটেনের ৩৬৬ জন, জাপানের ৩৩৩ জন, কানাডার ৩১৪ জন, ইতালির ৩০৯ জন এবং অন্যান্য দেশের ক্রীড়াবিদরা। অংশগ্রহণকারী শীর্ষ ১০টি দেশের মধ্যে সাতটিই জি-৭ (Group-7)-এর সদস্য, অর্থাৎ বিশ্বের শীর্ষ ৭ ধনী দেশ এরা, যাদের নিয়ন্ত্রণে পৃথিবীর ৫৮ শতাংশ সম্পদ।

তাছাড়া ওই অলিম্পিকের পদক তালিকার দিকে তাকালেও আমরা দেখতে পাই ৪৬টি স্বর্ণপদকসহ ১২১টি পদক নিয়ে শীর্ষস্থানে ছিল যুক্তরাষ্ট্র, ২৬টি স্বর্ণপদকসহ ৭০টি পদক নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে ছিল চীন এবং ২৭টি স্বর্ণপদকসহ ৬৭টি পদক নিয়ে তৃতীয় স্থানে ছিল বি টেন। অর্থনীতির হিসাবেও এ দেশগুলোর অবস্থান শীর্ষে।

তাই বলা যায়, অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির সঙ্গে খেলাধুলায় সাফল্যের সম্পর্ক রয়েছে। অর্থনীতিতে মাসলোর চাহিদা সোপান তত্ত্ব অনুসারে মানুষের মৌলিক চাহিদা পূরণের পরই মানুষ খেলাধুলা, চিত্তবিনোদন ও সম্মানের দিকে ঝুঁকে।

তার আগে সবাই খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা ও চিকিৎসা ব্যয় মেটানোর জীবন সংগ্রামে ব্যস্ত থাকে। তাই মোটা দাগে বলা যায়, খেলাধুলার উন্নতি দেশের সার্বিক উন্নতির একটি প্রাথমিক লক্ষণ।

১৯৯৭ সালে কেনিয়াকে হারিয়ে আইসিসি ট্রফি জয় বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসের প্রথম সবচেয়ে বড় অর্জন ছিল। এ আনন্দে একাত্ম হয়ে গোটা জাতি তখন রাস্তায় নেমে এসেছিল।

যে কেনিয়ার বিপক্ষে বিজয় বাংলাদেশের গর্বের বিষয় ছিল, সেই কেনিয়া আজ ক্রিকেট দুনিয়ায় অনেক পেছনে পড়ে গেছে। একসময়ের অন্যতম ক্রিকেট শক্তি জিম্বাবুয়ের অবস্থাও এখন ভালো নয়।

কেনিয়া ও জিম্বাবুয়ের ক্রিকেট বোর্ডের প্রতি রাষ্ট্রীয় অব্যবস্থাপনা এবং দেশ দুটিতে বিদ্যমান অর্থনৈতিক সংকটের কারণে আজ তাদের এই হাল। সেদিক বিবেচনা করলে আমাদের ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) যথেষ্ট শক্তিশালী।

ক্রিকেট আমাদের সক্ষমতার একটি বাস্তব চিত্র আমাদের সামনে তুলে ধরেছে। অর্থাৎ আমরা সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য নিয়ে একনিষ্ঠভাবে কাজ করার ফলে ক্রিকেটের পরাশক্তিদের পরাজিত করতে পেরেছি। এভাবে চেষ্টা করলে অন্য অনেক সেক্টরেই আমরা শক্তিশালী দেশগুলোকে পরাজিত করতে পারব।

নাজমুল হক : শিক্ষক ও সাংবাদিক

[email protected]

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×