নকল-মানহীন ইনসুলিন

ডায়াবেটিস চিকিৎসার সব প্রতিবন্ধকতা দূর করা হোক

  সম্পাদকীয় ১৫ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সম্পাদকীয়

গতকাল ছিল বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস। আর গতকালই যুগান্তরে প্রকাশিত এক খবরে বলা হয়েছে, ডায়াবেটিস রোগীদের চিকিৎসার অন্যতম অনুষঙ্গ ইনসুলিন নকল হচ্ছে।

বাজারে সঠিক মানের ইনসুলিনের অভাবে ডায়াবেটিস রোগীরা এ থেকে কাঙ্ক্ষিত সেবা পাচ্ছেন না। বিষয়টি উদ্বেগজনক। দেশে ৭৩ লাখ মানুষ ডায়াবেটিসে আক্রান্ত। টাইপ-১ ডায়াবেটিস রোগীর জন্য ইনসুলিন একটি অত্যাবশ্যকীয় অনুষঙ্গ এবং টাইপ-২ ডায়াবেটিস রোগীর জন্যও অনেক ক্ষেত্রে ইনসুলিনের প্রয়োজন হয়।

দেশে যত ডায়াবেটিস রোগী আছেন, তাদের ৯৫ শতাংশই টাইপ-২ ডায়াবেটিসে আক্রান্ত। তাদের শরীরে ইনসুলিন নিষ্ক্রিয় থাকে অথবা ইনসুলিনের ঘাটতি থাকে। কাজেই ডায়াবেটিস রোগীদের ব্যবহার্য ইনসুলিন যদি নকল বা মানহীন হয়, তাহলে রোগীর স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ঝুঁকিতে পড়ে। এমনকি টাইপ-১ ডায়াবেটিস রোগীর মৃত্যুর আশঙ্কাও থেকে যায়। তাই বাজারে যে ইনসুলিন বিক্রি হয় তার মান নিশ্চিত করা জরুরি। নকল ইনসুলিন বিক্রি বন্ধে পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন।

জানা গেছে, উন্নত প্রযুক্তিতে প্রস্তুত ইনসুলিনের দাম কিছুটা বেশি হওয়ায় কিছু বিদেশি কোম্পানির ইনসুলিনের নকল বের হয়েছে। দেশে বেশ কয়েকটি ওষুধ কোম্পানি ইনসুলিন বাজারজাত করছে। তবে এসব ইনসুলিনের কোনো বায়োইকুইভেলেন্স পরীক্ষা নেই।

এমনকি এটি কত মাত্রায় ব্যবহার করা হলে ব্লাড সুগার কতটা নিয়ন্ত্রণ হবে সে বিষয়েও কোনো গবেষণা নেই। সবচেয়ে উদ্বেগের বিষয় হল, এসব কোম্পানি বিভিন্ন কৌশলে তাদের ইনসুলিন চিকিৎসকদের ব্যবস্থাপত্রে লিখতে বাধ্য করে।

সাম্প্রতিক সময়ে একাধিক বিদেশি ওষুধ কোম্পানি এ দেশ থেকে ব্যবসা গুটিয়ে নিয়েছে। ফলে মানসম্পন্ন ইনসুলিনের অভাবে দুর্ভোগে পড়ছেন ডায়াবেটিস রোগীরা।

এ পরিপ্রেক্ষিতে দেশের ওষুধের বাজারে পর্যাপ্ত ইনসুলিন সরবরাহের ব্যবস্থা করা, সেগুলোর মান নিশ্চিত করা এবং সহজলভ্য করা জরুরি হয়ে পড়েছে বলে আমরা মনে করি। এ ব্যাপারে ঔষধ প্রশাসন অধিদফতরের সক্রিয় ভূমিকা কাম্য। সারা বিশ্বের মতো এ দেশেও ডায়াবেটিস রোগীর সংখ্যা উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে। বস্তুত ডায়াবেটিস এক ধরনের মহামারীর রূপ নিয়েছে বলে মত দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

কাজেই মানসম্পন্ন ইনসুলিনসহ ডায়াবেটিস রোগীদের চিকিৎসার সব ধরনের ওষুধ ও অনুষঙ্গ সহজলভ্য করা দরকার অবিলম্বে। এ ব্যাপারে যথাযথ গুরুত্ব দেয়া হবে, এটাই কাম্য।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×