বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি: ত্রাণ ও পুনর্বাসন কার্যক্রম জোরদার করতে হবে

  সম্পাদকীয় ১১ জুলাই ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ভৌগোলিক অবস্থানের কারণে প্রতিবছর আমাদের দেশের বিপুলসংখ্যক মানুষ বন্যা, ঘূর্ণিঝড় ইত্যাদি প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত হন। লক্ষ করা যায়, দেশে একটি দুর্যোগের প্রভাব শেষ না-হতেই আরেকটি দুর্যোগ দেখা দেয়। এসব দুর্যোগের কারণে প্রতিবছর দেশের বিপুলসংখ্যক দরিদ্র মানুষকে পথে বসতে হয়। কাজেই প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তা করতে কর্তৃপক্ষের দ্রুত পদক্ষেপ প্রয়োজন।

প্রতিবছরের মতো এ বছরও বৃষ্টির পানির সঙ্গে উজানের ঢল যুক্ত হওয়ায় দেশের অনেক এলাকা প্লাবিত হয়েছে। গতকাল যুগান্তরে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, দেশের বিভিন্ন নদ-নদীর পানি বাড়ছে। ভারতের পূর্বাঞ্চলের বিভিন্ন রাজ্যে অতি বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলের পানি নেমে আসায় এ পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। এর সঙ্গে যুক্ত হচ্ছে বৃষ্টিপাতের পানি। এ কারণে দেশের বিভিন্ন নদীতে পানিপ্রবাহ বেড়েছে। বেশ কিছুদিন ধরে চলমান বন্যার কারণে নদ-নদীগুলো পানিতে টইটম্বুর। এ পরিস্থিতিতে আরও বৃষ্টি হলে এবং উজানের ঢল যুক্ত হলে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে।

জানা গেছে, চলতি বন্যায় এ পর্যন্ত সারা দেশে ২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। বন্যাদুর্গত এলাকার উল্লেখযোগ্যসংখ্যক মানুষ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্তদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে হবে। দুর্গত পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণে যাতে কোনো রকম অনিয়ম না হয়, সেদিকে কর্তৃপক্ষকে যথাযথ দৃষ্টি দিতে হবে।

বন্যা শেষ হয়ে যাওয়ার পরও এর নানামুখী প্রভাব থেকে যায়। ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার মানুষের স্বাস্থ্য সুরক্ষার পাশাপাশি তারা যাতে দ্রুত বিভিন্ন উৎপাদনমুখী কর্মকাণ্ডে যুক্ত হতে পারে, কর্তৃপক্ষকে সেদিকেও বিশেষভাবে খেয়াল রাখতে হবে।

যেহেতু দেশে করোনা মহামারী চলছে, সেহেতু এবারের প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করা প্রয়োজন। মহামারীর কারণে জীবিকা হারিয়ে অনেকেই শহর ছেড়ে গ্রামে ফিরেছেন।

বস্তুত করোনা মহামারীর কারণে সারা দেশের মানুষ নানাভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। বন্যার কারণে তাদের অনেকের দুর্ভোগ আরও বেড়েছে। এ অবস্থায় বন্যার্তদের সহায়তায় সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থা ও বিত্তবানদেরও এগিয়ে আসা উচিত। বন্যায় যাদের ঘরবাড়ি ও ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, তাদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করতে হবে।

আরও খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত